বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৮:৪৮ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম ::
নবীগঞ্জ শহর রণক্ষেত্র ॥ পুলিশ সাংবাদিকসহ আহত অর্ধ শতাধিক ॥ দোকান ও মোটর সাইকেল ভাংচুর তুচ্ছ ঘটনা নিয়ে বন্ধুত্বে ফাটল ॥ থুথু ফেলার জের ॥ নবীগঞ্জে জনসম্মুখে কলেজ ছাত্র তাহসিনকে ছুরিকাঘাতে হত্যা নবীগঞ্জ পৌরসভার উদ্যোগে একুশে বইমেলা ২য় দিন অতিবাহিত নারীদের খেলাধূলায় এমপি আবু জাহির এর অনুদান আজমিরীগঞ্জে বাঁধ সংস্কারে ধীর গতি ॥ কৃষকদের শঙ্কা আর ক্ষোভ হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালের চিকিৎসা কার্যক্রম দেখে উদ্বেগ প্রকাশ করলেন মানবাধিকার চেয়ারম্যান কামাল উদ্দিন শায়েস্তাগঞ্জে হপবিস’র বার্ষিক সাধারণ সভায় ॥ বোর্ডের সভাপতি মিজানুর রহমান চকদার সচিব এমদাদুল ইসলাম সোহেল বানিয়াচংয়ে মাসিক আইন-শৃংখলা কমিটির সভা অনুষ্ঠিত আইন-শৃংখলার উন্নয়নে সকলকে এক সাথে কাজ করতে হবে-এমপি রুয়েল হবিগঞ্জে শিশু-কিশোর চিত্রাংকন প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ রাষ্ট্রপতির পুলিশ পদক পেলেন হবিগঞ্জের কৃতি সন্তান এসপি নূরুল আমীন

স্বামীর খোঁজে বাংলাদেশের চুনারুঘাটে পাকিস্তানি নারী

  • আপডেট টাইম রবিবার, ১০ ডিসেম্বর, ২০২৩
  • ৪৯ বা পড়া হয়েছে

স্টাফ রিপোর্টার ॥ বাংলাদেশি স্বামীর খোঁজে চুনারুঘাটে তার গ্রামের বাড়িতে এসে হাজির হয়েছেন এক পাকিস্তানি নারী। তার নাম মাহা বাজোয়ার (৩০)। পাকিস্তানের লাহোরের বাসিন্দা মকসুদ আহমেদের মেয়ে তিনি। মাহার স্বামীর নাম সাজ্জাদ হোসেন মজুমদার (৩৫)। চুনারুঘাট পৌরসভার ২নং ওয়ার্ডের উত্তর বড়াইল এলাকার শফি উল্লা মজুমদারের ছেলে তিনি।
গত শুক্রবার (৮ ডিসেম্বর) স্বামীর খোঁজে হবিগঞ্জে এসেছেন মাহা। সেখানে সাজ্জাদের ভাইয়ের বাড়িতে অবস্থান নিয়েছেন। এদিকে বিদেশি বধূ আসার খবরে আশপাশের এলাকা থেকে উৎসুক জনতা ওই বাড়িতে ভিড় জমাচ্ছেন। জানা গেছে, দশ বছর আগে দুবাইয়ে সাজ্জাদের পরিচয় হয় পাকিস্তানি নারী মাহার। পরে তারা বিয়েও করেন। কিন্তু এক পর্যায়ে মাহাকে ডিভোর্স দেন সাজ্জাদ। কিন্তু সেই ডিভোর্স মেনে নেননি মাহা। স্বামীর সঙ্গে সংসার করতে চান।
তাই জানা গেছে, গত ১৭ নভেম্বর পাকিস্তান থেকে বাংলাদেশে আসেন মাহা। গত শুক্রবার রাতে তিনি উত্তর বড়াইল গ্রামে সাজ্জাদের বাড়িতে গিয়ে ওঠেন।
সাজ্জাদের ভাই স্বপন মজুমদার জানান, ২০১৪ সালে পাকিস্তানের লাহোরে ওই পাকিস্তানি তরুণীকে বিয়ে করেন সাজ্জাদ। এরপর পর সাজ্জাদ তাকে বাংলাদেশে নিয়ে আসেন এবং পরে পুনরায় পাকিস্তান চলে যান। সাজ্জাদ ১৭ নভেম্বর পুনরায় দেশে ফেরেন; একই দিনে বাংলাদেশে ফেরেন মাহাও।
এ বিষয়ে সাজ্জাদের ভাই স্বপন বলেন, দুবাইয়ের একটি নাইট ক্লাবে সাজ্জাদ চাকরি করতেন। সেখানেই মাহার সঙ্গে তার পরিচয়। পরে তারা বিয়ে করেন। এক পর্যায়ে তাদের সংসারে ভাঙন ধরে। সাজ্জাদ দেশে ফিরলে মাহাও বাংলাদেশে এসে হাজির হয়েছেন। এ মুহূর্তে সাজ্জাদ উপস্থিত নেই বাড়িতে। সে এলে এলাকার গণ্যমান্যদের নিয়ে বসে বিষয়টির সুরাহা করা হবে। পাকিস্তানের ওই নারী বর্তমানে তার আতিথেয়তায় রয়েছেন বলেও স্বপন জানান।
হবিগঞ্জ জেলা পুলিশের এক কর্মকর্তা জানান, ২০১৮ সালে মাহা ও সাজ্জাদের তালাক হয়। কিন্তু মাহা তা মেনে নিচ্ছেন না। তিনি স্বামীর সঙ্গে সংসার করতে চান।
এ বিষয়ে চুনারুঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রাশেদুল হক জানান, মাহা ভিসা নিয়ে বাংলাদেশ এসেছেন। কিন্তু এদেশে অবস্থানের জন্য প্রয়োজনীয় নিয়মাবলি তিনি অনুসরণ করেননি। ওই নারী থানায় এসেছিলেন এবং পরবর্তীতে আবার আসবেন বলে চলে যান। গত শনিবার সন্ধ্যায় একটি হোয়াটসঅ্যাপ নম্বরে যোগাযোগ করা হলে মাহা বলেন, ‘আমি আপনার সঙ্গে দেখা করে কথা বলব। এখন আমি অসুস্থ।
এ বিষয়ে সাজ্জাদের বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2013-2021 HabiganjExpress.Com
Design and Development BY ThemesBazar.Com