বৃহস্পতিবার, ২৭ জানুয়ারী ২০২২, ০৩:১০ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম ::
সাবেক অর্থমন্ত্রী শাহ এএমএস কিবরিয়ার হত্যাকান্ড ॥ ১৭ বছরেও সম্পন্ন হয়নি বিচার কার্যক্রম ৬ বছরে স্বাক্ষ্য হয়েছে ৪৪ জনের বানিয়াচংয়ে নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান ও সদস্যদের শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবিগঞ্জে নতুন করে আরো ৭১ জন করোনায় আক্রান্ত ৫ পলাতক আসামিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ সদর হাসপাতালে নবজাতক চুরির ঘটনায় এক পিতার মামলায় অপর পিতা কারাগারে হবিগঞ্জে হঠাৎ বৃষ্টিতে শীতের তীব্রতা বেড়েছে পাইকপাড়ায় মর্ডান বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষ ॥ আহত ১০ চুনারুঘাটে গাঁজাসহ চোরাকারবারি ছাত্তার আটক ॥ ৯টি গরু উদ্ধার মক্রমপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের কমিটি অনুমোদন ॥ কাজী বাশার সভাপতি, শেখ আরিফ সাধারণ সম্পাদক মনোনীত বানিয়াচংয়ে মাস্ক পরিধানে প্রশাসনের পক্ষে সচেতনতামূলক অভিযান

সাংবাদিক সম্মেলনে গজনাইপুর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ প্রার্থীর অভিযোগ ॥ বিদ্রোহী প্রার্থী মুকুলের হুমকী প্রার্থীসহ কর্মীরা নিরাপত্তাহীন

  • আপডেট টাইম শনিবার, ২৭ নভেম্বর, ২০২১
  • ১৯ বা পড়া হয়েছে

স্টাফ রিপোর্টার ॥ নবীগঞ্জ উপজেলার ১১নং গজনাইপুর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী মোহাম্মদ সাবের আহমদ চৌধুরী বলেছেন, বিদ্রোহী প্রার্থী ইমদাদুর রহমান মুকুল তিনি ও তার সমর্থকদের বিভিন্ন স্থানে বিভিন্নভাবে হুমকি দিয়ে আসছেন। মুকুল ও তার লোকজন অব্যাহত হামলা, অগ্নিসংযোগ ও হুমকি ধামকির ঘটনায় পরিবারসহ তিনি এবং তার কর্মী-সমর্থকরা নিরাপত্তাহীনতায় রয়েছি। ভোট কেন্দ্র দখল করে জোরপূর্বক ব্যালট বাক্স ছিনিয়ে নিবে বলেও মুকুল ও তার লোকজন হুমকি দিয়ে আসছেন। ইমদাদুর রহমান মুকুল ও তার লোকজন তাকে নির্বাচনী প্রচারণায়ও বাধা প্রদান করে আসছেন। ফলে বিদ্রোহী প্রার্থী প্রভাবশালী ইমদাদুর রহমান মুকুলের এলাকার সাতাইহাল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, মুড়াউড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, নবজাগরণ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভোট কেন্দ্র জোরপূর্বক দখল করতে পারে বলে আশংকা প্রকাশ করেন আওয়ামীলীগ প্রার্থী সাবের চৌধুরী।
গতকাল রাতে হবিগঞ্জ প্রেসক্লাবে আয়োজিত সাংবাদিক সম্মেলনে মোঃ সাবের আহমেদ চৌধুরী উপরোক্ত কথাগুলো বলেন। তিনি বলেন, আগামী ২৮ নভেম্বর আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নবীগঞ্জ উপজেলার ১১নং গজনাইপুর ইউনিয়নে তিনি আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী। মনোনয়ন পাওয়ার পর থেকে তিনি সাধারণ মানুষ ও আওয়ামী লীগ এবং সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দকে নিয়ে গজনাইপুর ইউনিয়নের প্রত্যন্ত অঞ্চলে প্রচারণা অব্যাহত রেখেছি। এতে নৌকার জনজোয়ার সৃষ্টি হয়েছে। এদিকে নৌকার জনপ্রিয়তায় ঈর্ষান্বিত হয়ে উপজেলা আওয়ামী লীগের সদ্য বহিস্কৃত সভাপতি গরীবের চাল আত্মসাতের দায়ে বরখাস্তকৃত প্রভাবশালী চেয়ারম্যান ইমদাদুর রহমান মুকুল নৌকার বিরুদ্ধে আদর্শ বিচ্যুতি হয়ে বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেছেন।
লিখিত বক্তব্যে তিনি, ইমদাদুর রহমান মুকুল চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়ে গরিবের হক লুটেপুটে খেয়েছে। খাদ্য বান্ধব কর্মসূচির ২২৯ জন সুবিধাভোগীর ১০ টাকা কেজি ধরের চাল আত্মসাত করার দায়ে মুকুলকে স্থানীয় সরকার মন্ত্রনালয় বরখাস্ত করে। চাল আত্মসাত প্রমাণিত হওয়ায় তিনি আর চেয়ারম্যান পদ ফিরে পাননি। এছাড়াও পাহাড় কাটা, জায়গা দখল, চাদাবাজিসহ অসংখ্য অভিযোগ রয়েছে ইমদাদুর রহমান মুকুলের বিরুদ্ধে। তিনি বলেন, গত ২৩ নভেম্বর সন্ধ্যায় দেওপাড়া বাজারে তিনি এবং তার সমর্থকদের উপর বিদ্রোহী প্রার্থী ইমদাদুর রহমান মুকুলের নেতৃত্বে হামলা করা হয়। ওইদিন রাতে দেওপাড়া বাজারস্থ তার নির্বাচনী কার্যালয় আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেয়া হয়। এর ফলে ভোটারদের মনে আতঙ্ক উৎকণ্ঠা বিরাজ করছে ।
লিখিত বক্তব্যে তিনি আরো বলেন, স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী বিএনপি নেতা ও আহলে হাদিসের অনুসারী শফিউল আলম বজলু বিভিন্নভাবে প্রভাব বিস্তার করার চেষ্টা এবং হুমকি ধামকি দিচ্ছেন। এ অবস্থায় তিনি প্রশাসন ও গণমাধ্যমকর্মীদের সহযোগিতা কামনা করেন।
সাংবাদিক সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক দিরেন্দ্র গোপ, আওয়ামী লীগ নেতা হাজী আব্দুল আকবরসহ আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

 

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2013-2021 HabiganjExpress.Com
Design and Development BY ThemesBazar.Com