সোমবার, ২০ জানুয়ারী ২০২০, ০৫:২৬ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
রিচিতে টমটম ধাক্কায় আহত এসএসসি পরীক্ষার্থী নিহত ॥ শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ সাতছড়ি জাতীয় উদ্যানে চাঞ্চল্যকর গণধর্ষণ মামলার আসামি গ্রেফতার শায়েস্তাগঞ্জ ১০ কেজি গাঁজাসহ দুই মাদক ব্যবসায়ী আটক উমেদনগর পৌর উচ্চ বিদ্যালয়ে এমপি আবু জাহির ॥ সমাজে মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে মানসম্পন্ন শিক্ষার বিকল্প নেই এপিপি আবুল কালামকে আ.লীগ থেকে অব্যাহতি নবীগঞ্জে হত্যাসহ ৬ মামলার পলাতক আসামী গ্রেফতার নবীগঞ্জে অজ্ঞাত লাশ উদ্ধার নবীগঞ্জ সরকারি কলেজ ছাত্রদলের উদ্যোগে জিয়াউর রহমানের জন্মবার্ষিকী পালিত স্বপ্নধারা সোসাইটি অব হবিগঞ্জের শীতার্তদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি মজিদ খানকে বানিয়াচং প্রেসক্লাবের শুভেচ্ছা
হবিগঞ্জবাসীর উদ্বেগ-উৎকণ্ঠার অবসান ॥ খোয়াই নদীর পানি তলদেশে

হবিগঞ্জবাসীর উদ্বেগ-উৎকণ্ঠার অবসান ॥ খোয়াই নদীর পানি তলদেশে

স্টাফ রিপোর্টার ॥ হবিগঞ্জবাসীর উদ্বেগ-উৎকণ্ঠার অবসান হয়েছে। গত দু’দিনের শ্বাসরুদ্ধকর পরিস্থিতি থেকে পরিত্রাণ পেয়েছে শহরবাসী। খোয়াই নদীর বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি হওয়ায় আতঙ্ক আর বিপদমুক্ত হয়ে স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলেছে শহরবাসী। স্মরণকালের যে কোন সময়ের বন্যার চেয়ে গেল বন্যার পরিস্থিতি ছিল খুবই ভয়াবহ। নিকট অতীতে কেউ এ ধরণের ভয়াবহ বন্যা দেখেননি বলে সবাই দাবি করছেন। সেই সাথে সাধারণ মানুষ ভয়াবহ পরিস্থিতি মোকাবেলায় যে সাহসী পদক্ষেপ দেখিয়েছে তাতে সাধারণ মানুষের মধ্যে ভবিষ্যতে যে কোন পরিস্থিতি মোকাবেলা করতে পারবে বলে আশার সঞ্চার হয়েছে।
এদিকে গতকাল বুধবার বিকেল ৩টায় শহরের মাছুলিয়া পয়েন্টে খোয়াই নদীর পানি বিপদসীমার ২০ সেন্টিমিটার নিচে অবস্থান করছিল। উজানে ভারতে বৃষ্টিপাত থেমে যাওয়ায় এবং পাহাড়ি ঢল না আসায় নদীর পানি মঙ্গলবার বিকেল থেকে কমতে শুরু করে। পানি উন্নয়ন বোর্ড জানায়, ভাটি এলাকায় অবস্থিত খোয়াই নদীর ডুবন্ত বাঁধের মধ্যে বানিয়াচং উপজেলার সুজাতপুর, দক্ষিণ সাঙ্গর নৌকাঘাট, রতনপুর ও গজারিয়াকান্দি এলাকায় বাঁধ ভেঙ্গে যায়। এসব ভাঙ্গন দিয়ে খোয়াই নদীর পানি হাওরে ছড়িয়ে পড়ায় নদীর পানি দ্রুত হ্রাস পায়।
অনেকের মতে, খোয়াই নদীর প্রতিরক্ষা বাধ মেরামত, সংস্কার ও রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্ব স্থানীয় পানি উন্নয়ন বোর্ডের। কিন্তু পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্তা ব্যক্তিরা সঠিক ভাবে দায়িত্ব পালন করেন নি। ২ মাস পূর্বে জেলা আইন শৃংখলা কমিটির সভায়ও পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্তা ব্যক্তিদের গাফিলতি ও দায়িত্বে অবহেলা নিয়ে ব্যাপক আলোচনা ও সমলোচনা করা হয়। কিন্তু তাদের টনক নড়েনি। ফলে এর খেসারত দিতে হয়েছে হবিগঞ্জবাসীকে। খোয়াই নদীতে পানি বৃদ্ধি পাবার সাথে বাধের দুর্বল স্থানগুলো বিশেষ করে শহরের কামড়াপুর, মাছুলিয়া ও হরিপুর এলাকায় বাধে ফাটল দেখা দেয়। শত শত মানুষ স্বেচ্ছায় দিনরাত কাজ করে বাঁধের দুর্বল স্থানগুলোকে ভাঙ্গনের কবল থেকে রক্ষা করতে সক্ষম হয়।
উল্লেখ্য, খোয়াই নদীর পানি গত রোববার রাতে আশংকাজনভাবে বৃদ্ধি পেতে থাকে। সোমবার রাতে নদীর পানি বিপদসীমার ২৯০ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হয়। এসময় নদীর শহর প্রতিরক্ষা বাঁধ ভাঙ্গনের আশংকা দেখা দেয়। যার ফলে শহরবাসীর মধ্যে আতংক দেখা দেয়।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com