মঙ্গলবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৫:০১ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
গ্রীসে নিহত নবীগঞ্জের দু’ব্যক্তিকে শেষ বিদায় জানালো এলাকাবাসী চুনারুঘাটে রাস্তার কাঁদায় ধান রোপন করে প্রতিবাদ নবীগঞ্জে হত্যা মামলার ৭০ আসামীর জামিন নামঞ্জুর কারাগারে প্রেরণের নির্দেশ শহরের গাণিংপার্ক থেকে নতুন বিবাহিত যুবকের লাশ উদ্ধার বাঙ্গালীর আশার বাতিঘর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা-এমপি আবু জাহির হবিগঞ্জে নতুন করে ৫ জন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত শহরে নকল সোনা বিক্রেতা আটক আমার হবিগঞ্জের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জেলা কৃষক লীগের নব নির্বাচিত সভাপতি শরীফ উল্লাহকে শচীন্দ্র কলেজের রোভার স্কাউট গ্রুপের ফুলেল শুভেচ্ছা নবীগঞ্জে প্রবাসীর স্ত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ
নবীগঞ্জের হীরাগঞ্জ বাজারে লন্ডন প্রবাসীর জায়গা দখল ॥ দখলদার ও ওসির বিরুদ্ধে অভিযোগ ॥ তদন্ত শুরু

নবীগঞ্জের হীরাগঞ্জ বাজারে লন্ডন প্রবাসীর জায়গা দখল ॥ দখলদার ও ওসির বিরুদ্ধে অভিযোগ ॥ তদন্ত শুরু

কিবরিয়া চৌধুরী, নবীগঞ্জ থেকে ॥ নবীগঞ্জের আউশকান্দি- হীরাগঞ্জ বাজারে অবৈধ দখলদারদের কবল থেকে ভিটে উদ্ধারের জন্য পুলিশ সুপার বরাবরে আবেদন করেছেন এক লন্ডন প্রবাসী। সেই সাথে ওই আবেদনে নবীগঞ্জ থানার ওসির বিরুদ্ধেও অভিযোগ করা হয়েছে। অভিযোগকারী হলেন, বাজারের প্রতিষ্ঠাতা প্রয়াত সোনা মিয়া চৌধুরীর নাতি যুক্তরাজ্য প্রবাসী শামীম আহমদ চৌধুরী। গত ২১ নভেম্বর হবিগঞ্জ পুলিশ সুপার বরাবরে অভিযোগটি দায়ের করেন তিনি। অভিযোগের প্রেক্ষিতে গতকাল সোমবার সরেজমিন তদন্ত করেছেন হবিগঞ্জ জেলা পুলিশের উত্তর সার্কেলের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মোঃ রাসেলুর রহমান।
অভিযোগে শামীম আহমদ চৌধুরী উল্লেখ করেন, মিঠাপুর মৌজাধীন আউশকান্দি হীরাগঞ্জ বাজারস্থ তাদের মালিকানাধীন ভিটে রকম প্রায় ৬শতক ভূমি কতিপয় প্রভাবশালী ব্যক্তি জাল দলিল সৃষ্ঠি করে। এমন খবর পেয়ে লন্ডন প্রবাসী শামীম আহমদ চৌধুরী চাচাতো ভাই আউশকান্দি হীরাগঞ্জ বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সাধারন সম্পাদক জাহান চৌধুরী বাদী হয়ে বিজ্ঞ আদালতে অভিযোগ দায়ের করেন। এরই প্রেক্ষিতে বিজ্ঞ আদালত ১৪৪ ধারা জারী করেন। আদালতের এ নির্দেশ উপেক্ষা করে তারা জোরপূর্বক ভিটেটি দখলে নিয়ে ঘর নির্মাণ করে ফেলে। নবীগঞ্জ থানার ওসির সহায়তায় এ দখল প্রক্রিয়া করা হয়েছে বলে অভিযোগে উল্লেখ করা হয়। পরবর্তীতে শামীম আহমদ চৌধুরী দেশে এসে পুলিশ সুপার বরাবরে অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগে উল্লেখ করা হয়, নবীগঞ্জ থানার ওসি আব্দুল বাতেন খাঁন বাদীর মাতা রাজিয়া খানমকে ভয়ভীতি দেখিয়ে ৫০হাজার টাকা হাতিয়ে নেন এবং পিতা মৃত শফিকুল হক চৌধুরীর নামীয় আনরেজিষ্ট্রারীকৃত মূল দলিল ও বাংলাদেশী পাসপোর্ট থানায় ডেকে নিয়ে তা হাতিয়ে নেন। অদ্যাবদি এসব ফেরত দেন নাই। পরবর্তীতে ওসি আব্দুল বাতেন খাঁন আবারো ভয় ভীতি ও অন্যান্য মামলায় ঢুকানোর হুমকি দেখিয়ে আবারো ৫০হাজার টাকা হাতিয়ে নেন। টাকা না দিলে শামীম চৌধুরীকে যুক্তরাজ্য যেতে দেওয়া হবে না বলেও তিনি হুমকি দিয়েছিলেন মর্মে অভিযোগে উল্লেখ রয়েছে।
এদিকে গতকাল সোমবার সকাল সাড়ে ১১টায় হবিগঞ্জ উত্তর সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে বলেন, সুষ্ঠু তদন্তের স্বার্থে বেশী বক্তব্য দেওয়া যাবেনা। তবে অভিযোগের প্রেক্ষিতে তদন্ত চলছে। তদন্তে অভিযোগ প্রমানীত হলে কাউকেই ছাড় দেওয়া হবে না।
অপরদিকে, অভিযোগের প্রধান সাক্ষি আউশকান্দি হীরাগঞ্জ বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সাধারন সম্পাদক জাহান চৌধুরী বলেন, প্রবাসীর সম্পত্তি রক্ষার দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে প্রতিপক্ষ আমাদের পরিবার ও গ্রামের নিরপরাধ লোকজনের উপর নবীগঞ্জ থানার ওসির আব্দুল বাতেন খাঁনের যোগসাজসে হয়রানীমূলক একাধিক মামলা আদালতে করিয়েছেন। আমার নিরাপত্তার জন্য নবীগঞ্জ থানায় সাধারন ডায়েরী করতে গেলে আমার জিডি এন্ট্রি তিনি নেননি। উল্টো আমাকে একাধিক মামলার হুমকি দেন। সাধারন নাগরিক হিসাবে আমার অধিকার থাকলেও তিনি বারবার টাকার জন্য আমাদের হুমকি দেন, এবং ভূমি খেকো দুর্র্বৃত্তদের কবলে থাকা প্রবাসীর সম্পদের ব্যাপারে নাক না গলানোর জন্য ও সাক্ষি না দেওয়ার জন্য তিনি আমার সাথে খারাপ আচরন করেন ওসি আব্দুল বাতেন খাঁন।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com