রবিবার, ২৫ অগাস্ট ২০১৯, ১১:৪৬ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
লাখাইয়ে পারিবারিক বিষয় নিয়ে বাকবিতন্ডা ॥ পুত্রের হাতে পিতা খুন হবিগঞ্জে স্থানীয় সরকার মন্ত্রী তাজুল ইসলাম ॥ রোহিঙ্গাদের নিজ দেশে প্রত্যাবর্তনই উত্তম পন্থা শহরের বিভিন্ন স্কুল ও কলেজের সামন থেকে ১২ রোমিও আটক পরিবারের মুছলেখায় মুক্তি ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত হয়ে চুনারুঘাটের ১ জনের মৃত্যু নবীগঞ্জে বউ-শাশুড়ীর ঝগড়া প্রাণ গেল সবুর হোসেনের বঙ্গবন্ধুকে হত্যার মধ্য দিয়ে দেশকে পিছিয়ে দিয়েছিল-এমপি মিলাদ গাজী বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের বাংলা গড়াই হোক জাতীয় শোক দিবসের অঙ্গীকার-এমপি মজিদ খান পইলে শহীদ এনাম স্মৃতি সংঘের ৭ম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত তিতখাই-চান্দপুর সড়কটি সংস্কার কাজ বন্ধ ॥ জনদুর্ভোগ চরমে বানিয়াচঙ্গে চেক ডিজঅনার মামলার সাজা প্রাপ্ত পলাতক আসামী গ্রেপ্তার
বানিয়াচং বক্তারপুর আবুল খায়ের উচ্চ বিদ্যালয়ে শ্রেণী কক্ষের অভাবে বাইরে দাড়িয়ে থাকে শিক্ষার্থীরা

বানিয়াচং বক্তারপুর আবুল খায়ের উচ্চ বিদ্যালয়ে শ্রেণী কক্ষের অভাবে বাইরে দাড়িয়ে থাকে শিক্ষার্থীরা

স্টাফ রিপোর্টার ॥ শ্রেণী কক্ষের অভাবে ছাত্রছাত্রীরা ঠিকভাবে ক্লাস করতে পারছে না বানিয়াচং উপজেলার বক্তারপুর আবুল খায়ের উচ্চ বিদ্যালয়ে। প্রতিটি ক্লাসেই ছাত্রছাত্রী বেশি হওয়ায় যারা আগে রুমে প্রবেশ করে তারা ক্লাস করতে পারছে আর পরে আসা শিক্ষার্থীদের বাইরে দাড়িয়ে থাকতে হয়। স্কুলটি বানিয়াচং উপজেলায় হলেও নবীগঞ্জ উপজেলার একেবারে সন্নিকটে হওয়ায় দুই এলাকার ছাত্রছাত্রীরাই এখানে ভর্তি হয়। অন্যদিকে এলাকার আশে পাশে আর কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান না থাকায় এই স্কুলটিই এলাকার একমাত্র ভরসা। ছাত্রছাত্রীরা জানায়, শ্রেণী কক্ষে স্থান সংকুলান না হওয়ায় তাদেরকে প্রতিদিনই  বাইরে দাড়িয়ে থাকতে হচ্ছে। ভেতরে যারা ক্লাস করছে তাদের ক্লাস শেষ হলে বাকীরা ক্লাসে ঢুকে। এ ব্যাপারে বিদ্যালয়ের একজন শিক্ষক জানান, শ্রেণী কক্ষের অভাবে এমনটি হচ্ছে। বিদ্যালয়ে বর্তমানে অনুমোদিত শিক্ষককের সংখ্যা ১৫ জন, এর মধ্যে ১৩ জন কর্মরর্ত আছেন এবং ২ টি পদ (একজন ইংরেজী এবং একজন শরীরচর্চা শিক্ষক) শূণ্য আছে। তিনি জানান, এই বিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীর সংখ্যা ১ হাজার ৩৬৪ জন। ছাত্রসংখ্যা প্রতি শ্রেণীতে ধারণ ক্ষমতার অতিরিক্ত হওয়ার শ্রেণী কার্যক্রম ঠিকভাবে চালানো সম্ভব হয় না। শ্রেণী কক্ষ বাড়ানোর জন্য উর্ধ্বতন কর্র্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ রাখা হলেও আশানুরূপ ফল পাওয়া যাচ্ছে না। বর্তমানে ৬ষ্ঠ শ্রেণীতে তিনটি শাখায় ৪০৫ জন, ৭ম শ্রেণীতে দুইটি শাখায় ২৮৫ জন, ৮ম শ্রেণীতে দুইটি শাখায় ২৭৭ জন, ৯ম শ্রেণীতে বিজ্ঞান ও মানবিক শাখায় ২২৭ জন, ১০ম শ্রেণীতে বিজ্ঞান ও মানবিক শাখায় ১৬৬ জন ছাত্র-ছাত্রী রয়েছে। ৭ম, ৮ম, ৯ম ও ১০ম শ্রেণীতে একটি করে চারটি শাখা খোলার কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন আছে। বিদ্যালয়ের পার্শ্ববর্তী গ্রামের সংখ্যা বেশী হওয়ায় এবং এখানে অন্য কোন বিদ্যালয় না থাকায় এবং ছাত্র-ছাত্রীর সংখ্যা প্রতি বছর বাড়ছে বলেও তিনি জানান। তিনি বলেন, অনুপস্থিত ছাত্র-ছাত্রীর হাজিরা বাড়ানোর চাপ দিলে শ্রেণী কক্ষে ছাত্র-ছাত্রীর বসার স্থান দেয়া সম্ভব হবে না। পর্যাপ্ত শ্রেণী কক্ষ থাকলে বিদ্যালয় প্রদত্ত বেতনে শিক্ষক নিয়ে শ্রেণী কার্যক্রম চালানো যেত বলে তিনি অভিমত ব্যক্ত করেন। আবুল খায়ের উচ্চ বিদ্যালয়ে ১০টি শ্রেণী কক্ষ, ১টি শিক্ষক মিলনায়তন, ১টি লাইব্রেরী কক্ষ ও একটি বিজ্ঞানাগার আছে। বিদ্যুতের অভাবে মাল্টিমিডিয়া শ্রেণী কার্যক্রম চালানো সম্ভব হচ্ছে না। সংসদ সদস্য এডভোকেট আব্দুল মজিদ খান এর প্রচেষ্ঠায় বিদ্যুতের খুটি স্থাপন হলেও তার টানা এবং সংযোগ এখনও বাকী আছে। জানা যায়, চলতি বছর বিদ্যালয়ে কলেজ শাখা চালু করার উদ্দেশ্যে যাবতীয় কাগজ পত্রসহ সিলেট শিক্ষা বোর্ডে আবেদন করা হয়েছে এবং কলেজ শাখার জন্য তিন কক্ষ বিশিষ্ট একটি ৯০ ফুট লম্বা ঘর নির্মাণ এর কাজ প্রায় শেষ হয়েছে। এই ঘর নির্মাণে স্থানীয় জনসাধারণের সাহায্য এবং বিদ্যালয়ের তহবিল হতে অর্থ ব্যয় করা হয়েছে। মাটি ভরাটের জন্য সংসদ সদস্যও ১ লাখ টাকার অনুদান দেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন। উল্লেখ্য, মাত্র ৪১ জন ছাত্রছাত্রী নিয়ে বক্তারপুর আবুল খায়ের উচ্চ বিদ্যালয়ের যাত্রা শুরু করে ১৯৮৯ সালের ১ জানুয়ারী। ১৯৯৪ সালে নিম্ন মাধ্যমিক, ১৯৯৫ সালে ৯ম শ্রেণী, ১৯৯৬ সালে ১০ম শ্রেণী, এবং ১৯৯৭ সালে এসএসসি পরীক্ষার অনুমতি লাভ করে। তাছাড়া ১৯৯৫ সালে নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয় হিসাবে এবং ১৯৯৭ সালে মাধ্যমিক বিদ্যালয় হিসাবে এমপিও ভুক্ত হয়।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com