সোমবার, ১৭ মে ২০২১, ০৪:২৫ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
কাল খুশির ঈদ পাথারিয়ায় ভাগ্নের ফিকলের আঘাতে মামা নিহত কাকাইলছেওয়ে সংঘর্ষের ঘটনায় হত্যা মামলা দায়ের ॥ আটক ৩৫ আউশকান্দির মেম্বার উস্তার প্রতারণার দায়ে ঈদ উদযাপন করছেন কারাগারেই রেড ক্রিসেন্ট হবিগঞ্জ ইউনিটের ৪শ পরিবারের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ পুরান মুন্সেফীতে মোতাচ্ছিরুল ইসলামকে সংবর্ধনা প্রদান ও ২ শতাধিক মানুষকে ঈদ উপহার বিতরণ শায়েস্তাগঞ্জ অজ্ঞাত গাড়ি চাপায় গ্যাস অফিসের কর্মচারী নিহত হবিগঞ্জ জেলা রিপোর্টার্স ইউনিটির আয়োজনে ইফতার ও দোয়া মাহফিল পশ্চিমভাগ গ্রামের আলহাজ্ব মশাহিদ আহমেদ খানের ইন্তেকাল ॥ শোক নবীগঞ্জে শাহ হেল্প ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে অসহায় দরিদ্রদের মাঝে কাপড় বিতরণ
বিএনপি নেতা ইলিয়াস আলী নিখোঁজের দুই বছর

বিএনপি নেতা ইলিয়াস আলী নিখোঁজের দুই বছর

এক্সপ্রেস রিপোর্ট ॥ বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক ও সিলেট জেলা বিএনপির সভাপতি সাবেক এমপি এম ইলিয়াস আলী ও তার গাড়িচালক আনসার আলী নিখোঁজের দুই বছর পূর্ণ হলো। ইলিয়াস জীবিত না মৃত এ নিয়ে গত দুই বছর থেকে আলোচনার ঝড় বইছে সিলেটের প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকে শুরু করে সারা দেশে। কিন্তু দুই বছর পেরিয়ে গেলেও ইলিয়াসের সন্ধান মেলেনি। সিলেটবাসীর বিশ্বাস, জনতার ইলিয়াস আবার জনতার কাছে ফিরে আসবেন। সাময়িকভাবে হয়তো তাকে বন্দি, আটক বা গুম করা হয়েছে। কিন্তু তিনি আবার ফিরে আসবেন।
২০১২ সালের ১৭ এপ্রিল রাতে নিজ বাসায় ফেরার পথে রাজধানী ঢাকার মহাখালী থেকে নিখোঁজ হন বিএনপির কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক এম ইলিয়াস আলী ও তার বিশ্বস্ত গাড়িচালক আনসার আলী। মধ্যরাতে মহাখালী এলাকা থেকে ইলিয়াস আলীর গাড়িটি উদ্ধার করে পুলিশ। সেই সময় থেকেই তারা নিখোঁজ রয়েছেন। ইলিয়াস নিখোঁজের পর সিলেটসহ দেশের সর্বত্র আন্দোলন ছড়িয়ে পড়লে রাজপথে নেমে আসেন দলের নেতাকর্মীসহ সর্বস্তরের মানুষ। ইলিয়াসের সন্ধানের দাবিতে উত্তাল হয়ে ওঠে সারা দেশ। এসব কর্মসূচিতে ৮ জন প্রাণ হারান।
নিখোঁজ ইলিয়াস আলীর পরিবার এখনও আশাবাদী তিনি আবার ফিরে আসবেন। সন্তানকে হারিয়ে নির্বাক ইলিয়াস আলীর মা সূর্যবান বিবি। তিনি পুত্র শোকে কাতর। অনেকটা শয্যাশায়ী অবস্থায় তিনি অপেক্ষার প্রহর গুনছেন তার প্রিয় পুত্রের জন্য।
নিখোঁজ ইলিয়াসের স্ত্রী তাহসিনা রুশদী লুনা বলেন, দুই বছরেও কোনো সুসংবাদ পাইনি। তিনি বলেন, মহান আল্লাহর কাছে প্রতিদিন সাহায্য চাচ্ছি ইলিয়াসের জন্য। একমাত্র আল্লাহই পারেন ধৈর্যের প্রতিদান দিতে। তিনি বলেন, আমি আমার স্বামীকে যে কোনো মূল্যে ফেরত পেতে চাই। তাকে ফিরে পেতে যে কোনো ত্যাগ স্বীকারে আমি প্রস্তুত। শুধু আমি নই, আমার মেয়ে সাইয়ারা নাওয়াল তার বাবার জন্য ব্যাকুল। দীর্ঘ অপেক্ষার পর সে হতাশ। মাঝে মাঝে প্রশ্ন করে, মা অনেক দিনতো হয়ে গেল তারপরও বাবা ফিরছেন না কেন? এমন প্রশ্নের উত্তর আমি দিতে পারি না।
এদিকে ইলিয়াস আলী নিখোঁজ হওয়ার পর ২ বছর পূর্ণ হওয়ার একদিন আগে তাকে দলীয় পদ থেকে বাদ দেয়া হয়েছে। গত মঙ্গলবার রাতে দলীয় চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার নির্দেশে সিলেট জেলা বিএনপির সভাপতির পদ থেকে তাকে বাদ দিয়ে জেলা কমিটি ভেঙ্গে আহ্বায়ক কমিটি গঠন করা হয়। এছাড়া কেন্দ্রীয় বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদকের পদ থেকেও তাকে বাদ দেয়া হয়েছে বলে গুঞ্জন রয়েছে। এ পদে দায়িত্ব দেয়া হচ্ছে সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক ডা. সাখাওয়াত হোসেন জীবনকে। ইলিয়াস অনুসারী নেতাকর্মীদের ধারণা হয়তো ইলিয়াস আলীকে আর ফিরে পাওয়ার সম্ভাবনা নেই তাই তাকে দলের পদ থেকে সরিয়ে দেয়া হচ্ছে।
তবে ইলিয়াস নিখোঁজের দু’বছর পূর্তির একদিন আগে মঙ্গলবার রাতে ইলিয়াস পতœী তাহসিনা রুশদী লুনা অভিষিক্ত হলেন সিলেট বিএনপির রাজনীতিতে। পুরনো কমিটি ভেঙে দিয়ে নতুন কমিটিতে ১নং সদস্য করা হয়েছে লুনাকে।
লুনার রাজনীতিতে অভিষেকে উল্লসিত ইলিয়াস অনুসারীরা। যদিও তাদের দাবি ছিল লুনাকে আহ্বায়ক করে দলের কমিটি ঘোষণার।
জানা যায়, ইলিয়াস আলী নিখোঁজের পর প্রথম দিকে রাজনীতিতে নামার কোনো আগ্রহই ছিল না তাহসিনা রুশদী লুনার। পুত্র-কন্যা নিয়ে নিখোঁজ স্বামীর প্রতীক্ষায়ই তার সময় কাটছিল। কিন্তু ধীরে ধীরে ইলিয়াস অনুসারী নেতাকর্মীদের চাপে তিনি রাজনীতিতে সক্রিয় হওয়া শুরু করেন। সিলেট বিএনপি বা অঙ্গ সংগঠনের যে কোনো সিদ্ধান্তের ব্যাপারে তিনি কেন্দ্রীয় নেতাদের সুপারিশ করতেন। ইলিয়াস আলীর স্ত্রী হিসেবে তার সুপারিশ কেন্দ্র থেকে গুরুত্বসহকারে বিবেচনাও করা হতো। শেষ পর্যন্ত লুনাকে আহ্বায়ক কমিটির প্রথম সদস্য করে জেলা বিএনপির কমিটি ঘোষণা করেন খালেদা জিয়া। লুনাকে আহ্বায়ক না করে সদস্য করায় কিছুটা মনোক্ষুন্ন হয়েছেন ইলিয়াস অনুসারী সিলেটের নেতারা। তবে তারা মনে করছেন এই সদস্য পদ দিয়েই রাজনীতিতে লুনার আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু হয়েছে।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2021 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com