বুধবার, ০৪ অগাস্ট ২০২১, ০৪:২৬ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম ::
পাইকপাড়া বাইপাস সড়কে মোটর সাইকেল দুর্ঘটনায় যুবক নিহত শায়েস্তাগঞ্জে অগ্নিকান্ডে বসতঘর পুড়ে ছাই প্রয়োজনেই মিলবে আলেয়া-জাহির ফাউন্ডেশনের অক্সিজেন সিলিন্ডার বাহুবলে করোনায় আরো ১ জনের মৃত্যু ॥ জেলায় নতুন আরো ৩৮ জন আক্রান্ত লকডাউন ॥ জেলার ৫৪ জনকে ৩৭ হাজার ৭শ টাকা জরিমানা নবীগঞ্জ ও বাহুবল হাসপাতালে হবিগঞ্জ উন্নয়ন সংস্থার অক্সিজেন সিলিন্ডার প্রদান নবীগঞ্জে ১৪টি মামলায় ২০ হাজার টাকা অর্থদন্ড নবীগঞ্জে ৩৩ দিনে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ২৯০ জন প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসাবে হবিগঞ্জ পৌরসভার অর্থ সহায়তা বিতরণ জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর শাহাদাৎ বার্ষিকী পালনে নবীগঞ্জ উপজেলা প্রশাসনের প্রস্তুতি সভা অনুষ্টিত

সাবেক সচিব রিচি গ্রামের সৈয়দ আতাউর রহমান আর নেই

  • আপডেট টাইম রবিবার, ২৬ এপ্রিল, ২০১৫
  • ৩৯৮ বা পড়া হয়েছে

স্টাফ রিপোর্টার ॥ হবিগঞ্জের কৃতি সন্তান সৈয়দ আতাউর রহমান ওরফে ফরিদ মিয়া আর নেই। গতকাল শনিবার ভোর সকাল ৭ টায় ঢাকা গুলশান ইউনাইটেড হাসপাতালে তিনি মারা যান। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৬০ বছর। তিনি স্ত্রী, ছেলে সৈয়দ রাফিন রহমান ও মেয়ে সৈয়দা রিসাত তানফি, ১ ভাই, ১ বোন সহ অসংখ্য আত্মীয় স্বজন গুনগ্রাহী রেখে গেছেন। তিনি দীর্ঘ ৭/৮ মাস যাবত শারীরিক অসুস্থতায় ভূগছিলেন। তার মৃত্যুর খবর শুনে ঢাকার আত্মীয় স্বজন, বন্ধু-বান্ধব, বিভিন্ন মন্ত্রনালয়ের সচিব, যুগ্ম-সচিব, উপ-সচিব, কর্মকর্তা-কর্মচারীরা এক নজর দেখার জন্য ছুটে আসেন ঢাকার ধানমন্ডির বাসায় এবং নিজ গ্রামের বাড়ি হবিগঞ্জ সদর উপজেলার রিচি গ্রামের সাহেব বাড়িতে অসংখ্য আত্মীয় স্বজনসহ হবিগঞ্জের প্রশাসন, কর্মকর্তা-কর্মচারী, সাংবাদিকরা ছুটে আসেন। গতকাল শনিবার বাদ জোহর ১ম জানাযার নামাজ ঢাকার ধানমন্ডি নিজ বাসার এলাকায় অনুষ্ঠিত হয়। পরে ২য় জানাযার নামাজ রাত ৯ টায় তর গ্রামের রিচি সাহেব বাড়ী জামে মসজিদের সামনে অনুষ্ঠিত হয়। পরে পারিবারিক কবরস্থানে তার পিতা মরহুম মাওলানা সৈয়দ আহম্মদ আলী ওরফে মধু মিয়া (রঃ) এর পাশে দাফন করা হয়।
উল্লেখ্য, হবিগঞ্জ সদর উপজেলার রিচি গ্রামের সাহেব বাড়ি মরহুম মৌলানা সৈয়দ আহম্মদ আলী ওরফে মধু মিয়া (রঃ) ও মরহুমা তাহিরুন্নেছা বেগমের ৩য় পুত্র সৈয়দ আতাউর রহমান ওরফে ফরিদ মিয়া। সৈয়দ আতাউর রহমান ১৯৮৪ সালে বি-বাড়িয়া জেলার নাসির নগর উপজেলার গুনিয়অউক গ্রামে জমিদার সাহেব বাড়ি মরহুম এ আর মঞ্জুর আলীর কন্যা বেগম ফাতেমা আক্তার এর সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন।
সৈয়দ আতাউর রহমান এর বর্ণাঢ্য জীবন
সৈয়দ আতাউর রহমান ওরফে ফরিদ মিয়া ১৯৫৩ সালে ৩০ সেপ্টেম্বর রিচি সাহেব বাড়ীতে জন্ম গ্রহণ করেন। তিনি রিচি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে পাঠশালা শেষ করে হবিগঞ্জ হাই স্কুলে ভর্তি হন। ১৯৬৫ সালে চট্টগ্রাম বিভাগের অধীনে ৮ম শ্রেণীতে বৃত্তি পরীক্ষায় ট্যালেন্টপুল সহ মেধা তালিকায় স্থান লাভ করেন। কুমিল্লা বোর্ডের অধিনে এসএসসি পরীক্ষায় মানবিক শাখায় প্রথম বিভাগে প্রথম স্থান অধিকার করেন। তিনিই হবিগঞ্জ হাই স্কুল থেকে মানবিক শাখা থেকে প্রথম এ সাফল্য অর্জন করেন। ১৯৭০ সালে সিলেট এমসি কলেজ হতে বিজ্ঞান বিভাগে ১ম বিভাগে পাশ করে ঢাকা ইউনিভার্সিটিতে অর্থনীতিতে বিএ অনার্সে ভর্তি হন। ১৯৭৪ সালে কৃতিত্বের সাথে বিএ (অনার্স) এবং ১৯৭৫ সালে এমএ পাশ করেন। ১৯৭৬-৭৮ সাল পর্যন্ত তিনি কর্মজীবনের প্রথম অগ্রণী ব্যাংক ও বিএডিসি-তে অফিসার এর দায়িত্ব পালন করেন। বিসিএস ক্যাডার (প্রশাসন) এ ১৯৭৯ সালে ১ মার্চ যোগদান করেন। প্রথম শ্রেনীর কর্মচারী হিসেবে সরকারি প্রশাসনিক চাকুরীতে যোগ দেওয়ার যোগ্যতা অর্জন করেন। তিনি উচ্চতর শিক্ষা ও প্রশিক্ষণের জন্য এবং বিভিন্ন সেমিনার-কনফারেন্সে যোগ দিতে জাপান, ইংল্যান্ড, আমেরিকা,  ফ্রান্স, মালয়েশিয়া, সিঙ্গাপুর, থাইল্যান্ড, ভারত, দুবাই সহ বিভিন্ন দেশ সফর করেন। ১৯৮০ সালে শ্রম ও জনশক্তি প্রতিমন্ত্রি মরহুম সৈয়দ মহিবুল হাসান এর একান্ত সচিব ছিলেন। ১৯৯৪ সালে রোহিঙ্গা শরণার্থী শিবিরের ক্যাম্প ইনচার্জ হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি মৎস্য ও পশু সম্পদ মন্ত্রী শতীশ চন্দ্রের একান্ত সচিব এর দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৮৮ সালে ডেপুটি সেক্রেটারী পদে পদোন্নতি লাভ করে সংযুক্ত আরব আমিরাতে বাংলাদেশ দূতাবাসের লেবার কাউন্সিলর পদে প্রায় ৪ বছর কর্মরত ছিলেন। ২০০৩ সালে অতিরিক্ত যুগ্ম সচিব পদে পদোন্নতি লাভ করে কৃষি মন্ত্রনালয়ে দায়িত্ব পালন করেন। পরে তিনি সচিব হিসেবে পদোন্নতি লাভ করে মৎস্য ও পশু সম্পদ দায়িত্ব পালন করেন। সর্বশেষ শিক্ষা মন্ত্রনালয় এ সচিবের দায়িত্ব পালন করে বিগত সরকারের আমলে অবসর গ্রহণ করেন। অবসর শেষে তিনি ঢাকার বিভিন্ন বেসরকারী সংস্থার উর্ধ্বতন প্রশাসনিক কর্মকর্তার দায়িত্ব পালন করেন। তিনি জালালাবাদ অফিসার্স এসোসিয়েশন-এর সহ-সভাপতি, অর্থনীতি সমিতির সদস্যসহ মৃত্যুর পূর্ব পর্যন্ত বিভিন্ন সমাজসেবামূলক কাজে জড়িত ছিলেন।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2013-2021 HabiganjExpress.Com
Design and Development BY ThemesBazar.Com