বৃহস্পতিবার, ২৭ জানুয়ারী ২০২২, ০২:৫০ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম ::
সাবেক অর্থমন্ত্রী শাহ এএমএস কিবরিয়ার হত্যাকান্ড ॥ ১৭ বছরেও সম্পন্ন হয়নি বিচার কার্যক্রম ৬ বছরে স্বাক্ষ্য হয়েছে ৪৪ জনের বানিয়াচংয়ে নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান ও সদস্যদের শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবিগঞ্জে নতুন করে আরো ৭১ জন করোনায় আক্রান্ত ৫ পলাতক আসামিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ সদর হাসপাতালে নবজাতক চুরির ঘটনায় এক পিতার মামলায় অপর পিতা কারাগারে হবিগঞ্জে হঠাৎ বৃষ্টিতে শীতের তীব্রতা বেড়েছে পাইকপাড়ায় মর্ডান বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষ ॥ আহত ১০ চুনারুঘাটে গাঁজাসহ চোরাকারবারি ছাত্তার আটক ॥ ৯টি গরু উদ্ধার মক্রমপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের কমিটি অনুমোদন ॥ কাজী বাশার সভাপতি, শেখ আরিফ সাধারণ সম্পাদক মনোনীত বানিয়াচংয়ে মাস্ক পরিধানে প্রশাসনের পক্ষে সচেতনতামূলক অভিযান

নবীগঞ্জের ১৩টি ইউনিয়নের ১৩৩ কেন্দ্রে আজ ভোট মাঠে রয়েছেন ম্যাজিষ্ট্রেট ও আইনশৃংখলা বাহিনী

  • আপডেট টাইম রবিবার, ২৮ নভেম্বর, ২০২১
  • ২৬ বা পড়া হয়েছে

এটিএম সালাম, নবীগঞ্জ থেকে ॥ আজ ভোট। উপজেলার ১৩টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন আজ রবিবার (২৮ নভেম্বর) সকাল ৮ ঘটিকা থেকে এক যোগে ভোট গ্রহন শুরু হয়েছে। বিরতিহীনভাবে চলছে বিকাল ৪ ঘটিকা পর্যন্ত। শনিবার সকাল থেকে উপজেলার ১৩৩টি ভোট কেন্দ্রে নির্বাচনী সরঞ্জামাদি নিয়ে কেন্দ্রে পৌছেছেন প্রিজাইটিং অফিসার, পোলিং অফিসার, পুলিশ ও আনসার বাহিনী। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক লাইভে এসে উপজেলা নির্বাহী অফিসার শেখ মহি উদ্দিন জানান, নবীগঞ্জ উপজেলার ১৩টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন সার্বিক তদারকি করবেন হবিগঞ্জের ২ জন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক। এক্সিকিটিভ ম্যাজিস্ট্রেট রয়েছেন ১১ জন। ৪ দল জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট, ৬ প্লাটুন বি.জি.বি (১২০ জন), ৬ দল র‌্যাব (৬০) জন, ১৩ দল মোবাইল টিম (প্রতি ইউনিয়নে ১টি করে মোবাইল টিম), ৪ দল স্ট্রাইকিং ফোর্স পুলিশ, প্রতি কেন্দ্রে নিরাপত্তার জন্য ৪ জন পুলিশ সদস্য (অস্ত্রসহ ২ জন), ১৭ জন আনসার সদস্য (অস্ত্রসহ ২ জন) দায়িত্ব পালন করবেন। মাঠে থাকবেন মেডিকেল টিম, ফায়ার সার্ভিস ও জরুরী বিদ্যুৎ টিম। তিনি নির্বাচন অবাধ নিরপেক্ষ ও সুষ্টভাবে সম্পন্ন করতে সকলের সহযোগিতার আহ্বান জানান। কোন প্রকার অপ্রীতিকর ঘটনা বিহীন উৎসব মুখোড় পরিবেশে শুরু হয়েছে ভোট। তৃতীয় ধাপে অনুষ্ঠিতব্য ২৮ নভেম্বর নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে হাড্ডা হাড্ডি লড়াই হবে আওয়ামীলীগ বনাম বিদ্রোহী প্রার্থীদের মধ্যে। দু’টি ইউনিয়নে সুবিধাজনক অবস্থানে রয়েছেন বিএনপির সমর্থিত চেয়ারম্যান প্রার্থী। নবীগঞ্জ উপজেলায় ১৩টি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান পদের বিপরীতে ৬২ জন, সংরক্ষিত আসনের ৩৯টি পদের বিপরীতে ১৭৭ জন এবং ১১৭টি সাধারণ সদস্য পদের বিপরীতে ৪৮২ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। দু’একটি বিচ্ছিন্ন ঘটনা ব্যতিত শান্তি শৃংখলা বজায় রয়েছে নির্বাচনী এলাকা। নির্বাচন অবাধ, নিরপেক্ষ ও সুষ্টভাবে সম্পন্ন করতে বদ্ধপরিকর প্রশাসন। শুক্রবার রাত ১২ টা থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে নির্বাচনী প্রচারনা বন্ধ রয়েছে। নির্বাচনে ১৩৩টি কেন্দ্রের মধ্যে ৫০টি কেন্দ্র ঝুকিঁপূর্ণ বলে উল্লেখ্য করেছেন নির্বাচন কমিশন। ১৩৩টি কেন্দ্রে ১৩৩ জন প্রিজাইটিং অফিসার এবং ১৩২১ জন পোলিং অফিসার দায়িত্ব পালন করবেন। নির্বাচন অবাধ, নিরপেক্ষ ও সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে আইনশৃংখলা বাহিনীর পাশাপাশি মিডিয়ার কর্মীরা পর্যবেক্ষনে রয়েছেন। শেষ মুহুর্তের প্রচারনায় উপজেলার কোথাও কোন অপ্রীতিকর ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি। শুক্রবার (২৬ নভেম্বর) রাত ১২ টায় আনুষ্ঠানিকভাবে প্রচারনা বন্ধ থাকবে বলে জানিয়েছেন নির্বাচন অফিসার দেবশ্রী দাস পার্লি। তবে নির্বাচনে কালো টাকা ছড়াছড়ির খবর পাওয়া গেছে।
সুত্রে জানা গেছে, উপজেলার ১৩টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে মোট ভোটার ২ লাখ ৩৭ হাজার ২৭৭ জন। এরমধ্যে পুরুষ ভোটার ১ লাখ ১৮ হাজার ৫৫০ জন। নারী ভোটার ১ লাখ ১৮ হাজার ৬৭৭ জন। নির্বাচনে মোট ভোট কেন্দ্র ১৩৩টি। ভোট কক্ষ মোট ৬২৯টি। এরমধ্যে স্থায়ী ভোট কেন্দ্র ৫৭৫টি, অস্থায়ী কক্ষ ৫৪টি। গত ২ নভেম্বর উপজেলার ১৩টি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান, সদস্য ও সংরক্ষিত সদস্য পদে প্রার্থীরা মনোনয়নপত্র দাখিল করেন। যাচাই বাচাই শেষে ১২ নভেম্বর প্রার্থীদের মাঝে প্রতীক বরাদ্ধ দেয়া হয়। নির্বাচনে বিএনপি আনুষ্ঠানিকভাবে অংশ গ্রহন না করলেও দলীয় লোকজন চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। উপজেলার সর্বত্র নির্বাচনী হাওয়ার শেষ মুহুর্তে কে হাসঁবেন বিজয়ের হাসিঁ সেটাই এখন দেখার অপেক্ষার পালা। প্রার্থীদের নির্ঘুম প্রচারনায় মুখরিত হয়ে উঠেছিল হাট, বাজার, দোকানপাট, হোটেল রেস্তোরাসহ উপজেলার জনপদ। উপজেলার ১৩টি ইউনিয়নেরই আওয়ামীলীগ বনাম বিদ্রোহী প্রার্থীদের মধ্যে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এখানে দু’একটি ইউনিয়নে বিএনপির প্রার্থীরা রয়েছেন সুবিধা জনক অবস্থানে। তবে এবারের নির্বাচনে নীতি আদর্শ ভুলে গিয়ে টাকার খেলায় মাতম ভোটাররা।
কয়েক জন ভোটারদের সাথে আলাপ কালে জানা যায়, কাঠাল পাতা (টাকা) যিনি দিবেন তাকে তারা ভোট দিতে আগ্রহী। এদিকে রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা মনে করে এবারের নির্বাচনে বেশীরভাগ ইউনিয়নে নৌকার ভরাডুবি হতে পারে। ওই সব ইউনিয়নে বিদ্রোহী ও বিএনপির প্রার্থীদের জয়ের সম্ভাবনা রয়েছে। নবীগঞ্জ উপজেলা নির্বাচন ও রির্টানিং কর্মকর্তা দ্রেবশ্রী দাশ পার্লি জানান, উপজেলার ১৩টি ইউনিয়নের নির্বাচন অবাধ, নিরপেক্ষ ও সুষ্ঠু ভাবে সম্পন্ন করতে বদ্ধপরিকর। তিনি উপজেলায় ৫০টি কেন্দ্রকে ঝুকিঁপূর্ণ বলে সনাক্ত করা হয়েছে বলে জানান। আজ নির্বাচনী মাঠে এক্সিকিটিভ ম্যাজিস্ট্রেট, জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট এর নেতৃত্বে পর্যাপ্ত পরিমানের বিজিবি, র‌্যাব, পুলিশসহ আইন শৃংখলা বাহিনী রয়েছে। এদিকে নির্বাচনে পর্যবেক্ষন কার্ড নিয়ে ক্ষুব্ধ নবীগঞ্জ প্রেসক্লাব। যাদেরকে মিডিয়া জগতে বিচরণ করতে দেখা যায়নি এবং অনেক ভুয়া অনলাইন পোর্টালের পরিচয়দানকারী সংবাদকর্মীদের মাঝে দেয়া হয়েছে পর্যবেক্ষন কার্ড।

 

 

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2013-2021 HabiganjExpress.Com
Design and Development BY ThemesBazar.Com