সোমবার, ১০ মে ২০২১, ০১:০২ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
আজ পবিত্র শব-ই-কদর নয় সহশ্রাধিক মানুষের মাঝে সরকারি সহায়তা বিতরণে এমপি আবু জাহির নবীগঞ্জে জাহির হত্যার মামলা ॥ ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করতে আসামীদের গোপন বৈঠক ‘হৃদ্যতা হবিগঞ্জ’র দরিদ্রদের মাঝে অর্থ সহায়তা বিতরণ শহরের শায়েস্তানগরে তুচ্ছ ঘটনায় যুবককে ছুরিকাঘাত নবীগঞ্জ উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাধারণ সম্পদক উজ্জ্বল সরদারকে আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা উপ কমিটির সদস্য মনোনীত নবীগঞ্জের বিশিষ্ট মুরুব্বী ওয়াহিদ চৌধুরী আর নেই সুশীল সমাজ, এতিম ও শিক্ষার্থীদের সম্মানে নবীগঞ্জ প্রেসক্লাবের উদ্যোগে ইফতার ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত আজমিরীগঞ্জে ছুরিকাঘাতে নাড়ি-ভুড়ি বের হয়ে গেছে নবীগঞ্জে নুরানী মার্কেটে মহিলা ক্রেতাকে মারধোর ও শ্লীলতাহানির অভিযোগ ॥ এলাকায় উত্তেজনা
স্বাস্থ্যবিধি না মেনে টমটমের অতিরিক্ত ভাড়া আদায়

স্বাস্থ্যবিধি না মেনে টমটমের অতিরিক্ত ভাড়া আদায়

স্টাফ রিপোর্টার ॥ হবিগঞ্জ শহরবাসীর কাছে দিন দিন অসহনীয় দূর্ভোগের কারণ হয়ে উঠছে গরিবের গণপরিবহন খ্যাত টমটম। বিশেষ করে টমটমের ভাড়া নিয়ে ভোগান্তির মাত্রা দিন দিন দীর্ঘ থেকে দীর্ঘতর হচ্ছে। পরিস্থিতি এমন হয়ে দাঁড়িয়েছে যে, তাদের নিয়ন্ত্রণে আনা প্রায় অসম্ভব হয়ে পড়ছে। এ ছাড়া বর্তমানে তাদের নিয়ন্ত্রণে নেই কোনো সমিতি। যাচ্ছেতাইভাবে ভাড়া নির্ধারণ করে তা জনসাধারণের উপর চাপিয়ে দেয়া যেন অনেকটা রেওয়াজে পরিণত হয়েছে তাদের কাছে। সরকারি ঘোষণার দ্বিতীয় দিন শুক্রবার ভাড়া নিয়ে প্রায় দুই শতাধিক যাত্রীদের সাথে টমটম চালকদের বাকবিতন্ডা ও হাতাহাতির ঘটনা ঘটেছে। এক কথায় পৌর এলাকার ভেতরে চলাচলকারী মানুষ সবচেয়ে অসহায় হয়ে পড়ছেন টমটম চালকদের কাছে। শহরবাসীর কাছে টমটমের এই অব্যবস্থাপনা এখন দুঃসহনীয় পর্যায়ে পৌঁছেছে। স্বল্প কিংবা বেশি দূরত্বেই হোক কোথাও যাওয়ার জন্য টমটমে উঠতে গেলেই নাগরিকদের এক বিব্রতকর পরিস্থিতিতে পড়তে হচ্ছে। একেতো অতিরিক্ত ভাড়া নেয়া হচ্ছে তার উপর আবার পৌরসভার অনুমোদন ব্যতীত অসংখ্য টমটম চলাচল করায় যানজট লেগেই আছে শহরে। এ অবস্থায় মানুষজনের ভোগান্তির কোনো সীমা-পরিসীমা নেই।
জানা যায়, বর্তমানে সারাবিশ্বের ন্যায় বাংলাদেশে চলছে করোনা মহামারি। আর এ সুযোগ নিচ্ছে হবিগঞ্জ শহরে চলাচলত টমটম মালিক ও চালকরা। করোনা মোকাবিলায় দেশব্যাপী গণপরিবহনের ভাড়া আগামী ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত ৬০ শতাংশ বৃদ্ধি করে সরকার। চালকের পাশের দুই পাশে ফাঁকা রাখা, অর্ধেক যাত্রী বহনসহ স্বাস্থ্যবিধি মেনে গণপরিবহন চালাতে বলা হয়। এজন্য ভাড়াও বাড়িয়ে দেয়া হয়। কিন্তু এইসব শর্ত থাকলেও তা মানছে না হবিগঞ্জ শহরে চলাচলরত টমটম চালকরা। তারা মাস্ক পড়ছে না, গাড়িতেও রাখছে না হ্যান্ড সেনিটাইজারসহ ভাইরাস প্রতিরোধী সরঞ্জাম। যাত্রীও পরিবহন করা হচ্ছে পূর্বের মতোই। অথচ ভাড়া নেওয়া হচ্ছে দিগুন। দুইদিন আগেও শহরে টমটমে চলাচলের ক্ষেত্রে ভাড়া যেখানে ছিল ৫ টাকা সরকারি ঘোষণার অজুহাত দেখিয়ে এখন টমটমে উঠলেই দিতে হচ্ছে ১০/১৫ টাকা। এক্ষেত্রে তাদের কাছে সড়কের দূরত্ব যেনো কোনো ব্যাপারই না। এ নিয়ে চালকদের সাথে যাত্রীদের বাকবিতন্ডাসহ হাতাহাতির ঘটনাও ঘটছে। অবাক করা বিষয় হচেছ যাত্রীরা স্বাস্থ্যবিধির কথা চালকদের বললেও তা মানার ব্যাপারে তারা চরম উদাসীন। বিশেষ করে মাস্ক পড়তে তাদের বড়ই অনীহা। আবার কেউ পরলেও তা থুতনিতে ঝুলে থাকে। জানা যায়, করোনার কারণে গত বছরের ১ জুন থেকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে গণপরিবহন চালু করার নির্দেশনা দেওয়া হয়। এরপর গত বছরের ১ সেপ্টেম্বর থেকে আগের ভাড়া বহাল রাখার সিদ্ধান্ত হলেও সকল গণপরিবহণ আগের ভাড়ায় ফিরে যায়, তবে ফিরেনি হবিগঞ্জের সড়কে চলা-অবৈধ টমটম চালক মালিকরা। আগে শহরের ভেতর উঠানামা যেখানে ৫ টাকা ছিল সেখানে কথিত টমটম সমিতি সড়কের সীমানা ঠিক করে দিয়ে মনগড়া ভাড়া নিতে থাকে। এ বিষয়ে জেলা প্রশাসক ইশরাত জাহান বলেন, করোনা মহামারীর কারণে ভাড়া ৬০ শতাংশ বাড়ানো হয়েছে। এ ক্ষেত্রে হবিগঞ্জ শহরে পূর্বের ভাড়া ৫ টাকা হলে আগামী ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত যাত্রীদের দিতে হবে ১০ টাকা। যাত্রীদের স্বাস্থ্যবিধির কথা চিন্তা করে গতকাল শুক্রবার সরকারি ছুটি থাকার পরও কিছু কিছু স্থানে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হয়েছে। যে সকল চালকরা অতিরিক্ত ভাড়া ও যাত্রী বহন করেছে তাদেরকে অর্থদ- দেয়া হয়েছে। তাদের অভিযান নিয়মিত চলবে। তবে জেলা প্রশাসক জানান, সরকারি ঘোষণা অনুযায়ী ভাড়া বাড়ানো হয়েছে, পরবর্তী নির্দেশনা এলে সে অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে।
এ বিষয়ে মেয়র আতাউর রহমান সেলিম বলেন, পৌর শহরের ভেতর চলাচলে টমটমের ভাড়া ৫ টাকা। মহামারী করোনার কারণে সাময়িক সময়ের জন্য ডাবল ভাড়া করা হয়েছে। সে অনুযায়ী যাত্রীরা ১০ টাকা ভাড়া দেবেন। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, টমটমের অনুমতি দিয়েছে পৌরসভা, জনস্বার্থে ভাড়াও নির্ধারণ করে দেবে পৌরসভা, কোনো সমিতি নয়। আগামী ১৫ এপ্রিল সরকার যদি ভাড়া কমানোর নির্দেশনা দেয় তবে আগের ৫ টাকা ভাড়াই বহাল রাখা হবে। তবে কেউ যদি ভাড়া ১০ টাকার স্থলে ১৫ টাকা চায় তাকে প্রশাসনের কাছে হস্তান্তরের পরামর্শ দেন তিনি।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2021 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com