রবিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২১, ০৬:২৪ পূর্বাহ্ন

সাতছড়ির গহীন অরন্যে অস্ত্রের সন্ধানে বিজিবির অভিযান ॥ গোলা বারুদ উদ্ধার

সাতছড়ির গহীন অরন্যে অস্ত্রের সন্ধানে বিজিবির অভিযান ॥ গোলা বারুদ উদ্ধার

আজিজুল ইসলাম সজীব ॥ চুনারুঘাট উপজেলার সাতছড়ি গহনি অরণ্যে বর্ডারগার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) অভিযান চালিয়ে বিপুল পরিমান গুলাবারুদ উদ্ধার করেছে বলে জানা গেছে। গতকাল গভীর রাতে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত বিজিবির একটি দল উদ্যানের ভেতরে অভিযান চালাচ্ছে। মঙ্গলবার বিকেল থেকে সাতছড়ি জাতীয় উদ্যানের গহীন অরণ্যে অভিযান চালায় বিজিবি’র সদস্যরা। আজ বুধবার সকালে বিজিবির পক্ষ থেকে প্রেস ব্রিফিং করা হবে।
প্রত্যক্ষদর্শী জানায়, ৭/৮টি গাড়িতে করে বিজিবি’র একটি দল বিকেলে সাতছড়ি জাতীয় উদ্যানে অবস্থান নেয়। তারা সন্ধ্যার পর উদ্যানের প্রধান সড়ক থেকে প্রায় ১ কিলোমিটার ভেতরে গহীন জঙ্গলে প্রবেশ করে। সেখানে কাউকে প্রবেশ করতে দেয়া হচ্ছে না।
৫৫ বিজিবি’র কোম্পানী কমান্ডার লে. কর্ণেল সামিউন্নবী চৌধুরী জানান, গহীন জঙ্গলে গোলাবারুদ রয়েছে এমন গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে অভিযান চালানো হয়। বিপুল পরিমান গোলাবারুদের সন্ধান পাওয়া গেছে। এ বিষয়ে বুধবার সকাল ১০টায় সাতছড়ি জাতীয় উদ্যানে সংবাদ সম্মেলন করা হবে।
সাতছড়ি জাতীয় উদ্যানের রেঞ্জ কর্মকর্তা মাহমুদ হাসান জানান, মঙ্গলবার বিজিবির একটি টিম গহীন অরণ্যে খোঁড়াখুঁড়ি কাজ করছে। তবে কি কারণে তারা খোঁড়াখুঁড়ি করছে তা জানতে চাইলে এ বিষয়ে তারা কোন উত্তর দেয়নি। কি বিষয়ে অভিযান করছে তা কাউকে জানায়নি। অভিযান স্থলেও কাউকে যেতে দেয়া হচ্ছেনা।
উল্লেখ্য, ২০১৪ সালের ১ জুন থেকে ১৭ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত তিন দফায় অভিযান চালিয়ে সেখান থেকে ৩৩৪টি কামান বিধ্বংসী রকেট, ২৯৬টি রকেট চার্জার, একটি রকেট লঞ্চার, ১৬টি মেশিনগান, একটি বেটাগান, ছয়টি এসএলআর, একটি অটোরাইফেল, পাঁচটি মেশিনগানের অতিরিক্ত খালি ব্যারেল, প্রায় ১৬ হাজার রাউন্ড বুলেটসহ বিপুল পরিমাণ গোলাবারুদ উদ্ধার করে র‌্যাব।
এরপর আবারো ওই বছরের ১৬ অক্টোবর থেকে চতুর্থ দফার প্রথম পর্যায়ে উদ্যানের গহিন অরণ্যে মাটি খুঁড়ে তিনটি মেশিনগান, চারটি ব্যারেল, আটটি ম্যাগাজিন, ২৫০গুলির ধারণ ক্ষমতা সম্পন্ন আটটি বেল্ট ও উচ্চ ক্ষমতা সম্পন্ন একটি রেডিও উদ্ধার করা হয়। পরে ১৭ অক্টোবর দুপুরে এসএমজি ও এলএমজির ৮ হাজার ৩৬০ রাউন্ড, ত্রি নট ত্রি রাইফেলের ১৫২ রাউন্ড, পিস্তলের ৫১৭ রাউন্ড, মেশিনগানের ৪২৫ রাউন্ডসহ মোট ৯ হাজার ৪৫৪ রাউন্ড বুলেট উদ্ধার করা হয়।
৫ম দফায় ২০১৮ সালের ২ ফেব্রুয়ারি সাতছড়িতে অভিযান পরিচালনা করে ১০টি হাই এক্সক্লুসিভ ৪০ এমএম অ্যান্টি-ট্যাংক রকেট উদ্ধার করা হয়। সবশেষ ৬ষ্ট দফায় ২০১৯ সালের ২৪ নভেম্বর সাতছড়ি জাতীয় উদ্যান থেকে ১৩টি রকেট লঞ্চারের শেলসহ বেশকিছু বিস্ফোরক উদ্ধার করা হয়।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2021 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com