রবিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২১, ০৫:৪৪ অপরাহ্ন

অতিরিক্ত ভাড়া ॥ শহরে রবিবার থেকে ইজিবাইক ও টমটমের বিরুদ্ধে অভিযান

অতিরিক্ত ভাড়া ॥ শহরে রবিবার থেকে ইজিবাইক ও টমটমের বিরুদ্ধে অভিযান

স্টাফ রিপোর্টার ॥ করোনা ভাইরাসের প্রভাবে গণপরিবহনে ৬০ শতাংশ ভাড়া বৃদ্ধির বিষয়টি বাতিল করেছে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআরটিএ)। আগামী ৩১ আগষ্ট পর্যন্ত বাসের দুই সিটের জায়গায় প্রতি সিটে একজন করে বসবে এবং বর্ধিত ভাড়া বলবৎ থাকবে। এরই ধারাবাহিকতায় সিলেট জেলার সকল রুটেও ভাড়ায় পরিবর্তন আনা হয়েছে। তবে হবিগঞ্জে এরকম কোনো সিদ্ধান্ত এখনো গৃহীত হয়নি বলে জানিয়েছেন হবিগঞ্জ মোটর মালিক গ্রুপের সাধারণ সম্পাদক শংখ শুভ্র রায়।
জানা যায়, করোনা ভাইরাসের উচ্চ সংক্রমণের মধ্যেও টমটমসহ গণপরিবহণে স্বাস্থ্যবিধি মানা হচ্ছে না। অতিরিক্ত যাত্রী নেয়া, স্প্রে ও মাস্ক ব্যবহার না করাসহ নানা অভিযোগ রয়েছে এসব গণপরিবহণের বিরুদ্ধে। ভ্রাম্যমান আদালতে টমটমসহ কিছু পরিবহণ মালিককে জরিমানা করা হলেও এখনো কেউ মানছে না স্বাস্থ্যবিধি। ফলে দিনে দিনে করোনার ঝুঁকি বেড়েই চলছে।
যাত্রীরা বলছেন, করোনার অজুহাতে হবিগঞ্জ জেলায় তড়িগড়ি করে টমটম, সিএনজিসহ গণপরিবহণের ভাড়া ডাবল করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। কিন্তু গতকাল বুধবার জাতীয়ভাবে ভাড়া কমানোর সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। কিন্তু হবিগঞ্জে টমটমসহ গণপরিবহণের ভাড়া কমানোর সিদ্ধান্ত না নেয়ায় প্রশ্ন তোলছেন ভুক্তভোগীরা। ভুক্তভোগী জনসাধারণ বলছেন, ভাড়া বাড়ানোর সময় তাড়াতাড়ি পদক্ষেপ নিলেও কমানোর সময় ধীরগতি কেন?
জানা যায়, প্রথম দিকে স্বাস্থ্য বিধি মেনে টমটমসহ পরিবহণ চালকরা যান চালালেও এখন স্বাস্থ্যবিধি মানা হচেছ না। অন্যদিকে সরকার গণপরিবহণের ভাড়া ৬০ শতাংশ বাড়িয়েছে এমন অযুহাতে শুরু হয় অনিয়ম। অভিযোগ উঠেছে অফিস, আদালতসহ গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনা খুলে দিলেও এতোদিন ৬০ শতাংশ গাড়ি ভাড়া কমানো হয়নি। ফলে অতিরিক্ত ভাড়ার চাপ পড়ছে সাধারণ মানুষের উপর। এর প্রেক্ষিতে গতকাল সরকার ৬০ শতাংশ ভাড়া বাতিলের সিদ্ধান্ত নিলো।
এদিকে হবিগঞ্জে করোনা ভাইরাসের শুরুতে সব ধরণের যানবাহন বন্ধ থাকলে প্রশাসন ও পৌরসভা টমটম মালিক সমিতির সাথে পরামর্শ করে টমটমের ভাড়া ১ জুন থেকে ৫ টাকার স্থলে ১০ টাকা করে। প্রত্যেক টমটমে ৩ জন করে যাত্রী নেয়ার কথা বলা হয়। হবিগঞ্জ শহরের স্ট্যান্ড থেকে সিএনজি গুলোতে যাত্রী ৩জন করে ৬০ শতাংশ ভাড়া নিলেও অন্যান্য এলাকার স্ট্যান্ড থেকে অতিরিক্ত যাত্রী ও ডাবল ভাড়া নেয়া হচ্ছে। তবে হবিগঞ্জ শহরের টমটমগুলোর অবস্থা ভয়াবহ। তারা কোন নিয়ম নীতির তোয়াক্কাই করছে না। মানছে না স্বাস্থ্যবিধি। ইচ্ছেমতো বোঝাই করে চললেও ভাড়া নিচ্ছে বর্ধিত হরে। আর অতিরিক্ত টমটমের কারণে রাস্তায় যানজট লেগেই আছে। ঘটছে প্রতিনিয়ত দুর্ঘটনা। বর্তমানে করোনা আতংক থাকলেও অধিকাংশ টমটমে তা পরিলক্ষিত হয়নি। আর ইজিবাইক এর ভাড়ার অবস্থা আরো ভয়াবহ। এত চড়রেই ২০ টাকা। একটু দুরত্বে গেলেতো ৩০/৪০ টাকা ছাড়া মানেই না চালকরা। এতে প্রায়ই দেখা যায় যাত্রী আর চালকের মাঝে ঝগড়া।
এছাড়া অপ্রাপ্ত বয়স্ক চালকদের বেপরোয়া চালানো, যাত্রীদের সাথে খারাপ ব্যবহার, নির্ধারিত ভাড়া চেয়ে অধিক ভাড়া দাবি করায় প্রায়ই শহরের রাস্তায় বাকবিতন্ডা লেগে যায়। এহেন পরিস্থিতিতে টমটমসহ অন্যান্য যানবাহনের ডাবল ভাড়া কমানোর দাবি তোলেছেন সচেতন মহল।
হবিগঞ্জ পৌরসভার মেয়র মিজানুর রহমান মিজান জানান, প্রত্যেক টমটম মালিককে বারবার সতর্ক করা হয়েছে। এরপরও যদি কেউ নিয়ম না মেনে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করেন তবে আগামী রবিবার থেকে টমটমের বিরুদ্ধে ঝটিকা অভিযান শুরু হবে এবং সরকারি নিয়মের সাথে একাত্মতা পোষণ করে আগামী ১ সেপ্টেম্বর থেকে আগের ভাড়া ৫ টাকা বহাল করা হবে।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2021 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com