বুধবার, ১৭ Jul ২০১৯, ১২:৩৮ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
মাধবপুরে ১৯ মাদক মামলার আসামী আকবর কারাগারে মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অফিসে পিস্তল টেকিয়ে মোটর সাইকেল ছিনতাইয়ের ঘটনায় মামলা আদালতেও নিরাপত্তা জোরদার নবীগঞ্জে বন্যাাশ্রয়কেন্দ্রসহ ১৬টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্লাবিত বন্ধ ঘোষণা, ত্রাণ বিতরণ বন্যা কবলিত এলাকা পরিদর্শনে নবীগঞ্জে আসছেন দুই মন্ত্রী ক্যান্সার আক্রান্তদের মাঝে চিকিৎসা সহায়তার চেক বিতরণ করলেন এমপি আবু জাহির পৌর কর্মকর্তাদের অবস্থানের কারণে নাগরিক সেবা বন্ধ নবীগঞ্জে ছাত্রদল নেতা রায়েছ চৌধুরীরমুক্তির দাবীতে বিক্ষোভ মিছিল নবীগঞ্জে খালিক মঞ্জিলের স্বত্ত্বাধিকারীবেলাল চৌধুরীকে বিদায় সংবর্ধনা বানিয়াচং থেকে চোরাই মোটরসাইকেল সহ যুবক আটক
হবিগঞ্জ অগ্রদূত পরিবহনের বেপরোয়া গতি ॥ নরসিংদীতে কেড়ে নিল মহিলা ও শিশুসহ ১৩ প্রাণ

হবিগঞ্জ অগ্রদূত পরিবহনের বেপরোয়া গতি ॥ নরসিংদীতে কেড়ে নিল মহিলা ও শিশুসহ ১৩ প্রাণ

স্টাফ রিপোর্টার ॥ হবিগঞ্জ অগ্রদূত পরিবহনের বেপরোয়া গতির একটি বাস কেড়ে নিয়েছে ৪টি পরিবারের ১৩জনের প্রাণ। এসময় আহত হয়েছেন আরো ৯ জন। গতকাল রোববার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের বেলাবো দড়িকান্দি নামক স্থানে হতাহতের ঘটনাটি ঘটে। নিহতরা সবাই মাইক্রোবাসের যাত্রী।
এ ঘটনায় জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। ঘাতক বাসচালকের বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন পুলিশ।
Picture-2 (12)

16684401_1816344992022975_2219314998681888000_n

16711906_1816344955356312_8858160264641292440_n

16729077_1816345018689639_6634321904698250595_nনিহতরা হলেন-নিকলী উপজেলার ছাতিরচর ইউনিয়নের হাওড় এলাকার ছাতিরচর গ্রামের মানিক মিয়া (৫৫), তার স্ত্রী মাফিয়া খাতুন (৪৫), শিশু পুত্র অন্তর আলম (১২), মো. হাসান (৪০), তার স্ত্রী হালিমা খাতুন (৩০), পুত্র ইসান (১০), হালিমার বোন ঝুমা খাতুন (১৫), সাধনা খাতুন (৪০), হিরা মিয়া (৪৫), নাজমুল (৩০) ও মাইক্রোবাসের ড্রাইভার মো. সাঈদ (৫০)। এছাড়া ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পর আহত শরমিন (১৮) মারা গেছেন। আহতদের মধ্যে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে শিশু রাব্বি (১), ফিরুজা বেগম (৩৫), তার ছেলে মারুফ (৭)। পুলিশ ও এলাকাবাসী জানিয়েছে, সকালে ঢাকার কামরাঙ্গী চর থেকে ১৪ জন যাত্রী নিয়ে কিশোরগঞ্জের নিকলী থানার ছাতীর চর গ্রামে যাচ্ছিল একটি মাইক্রোবাস। মাইক্রোবাসটি ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের বেলাবো দড়িকান্দি বাজারে পৌঁছুলে বিপরীতদিক থেকে আসা আগ্রদূত পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাস অপর একটি সিএনজিচালিত অটোরিকশাকে ওভারটেক করার সময় মাইক্রোবাসের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এসময় মাইক্রোবাসটি দুমড়ে-মুচড়ে যায়। এতে ঘটনাস্থালেই ১৩ জন মারা যান। পরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পর একজন মারা যান।
দুর্ঘটনার খবর পেয়ে পুলিশ, দমকল বাহিনী ও স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে ভৈরবসহ আসপাশের হাসপাতালে পাঠায়। দুর্ঘটনার পর ঢাকা-সিলেট মসহাসড়কে যানচলাচল বন্ধ হয়ে যায়। প্রায় এক ঘণ্টা পর দুর্ঘটনা কবলিত যানবাহন সরিয়ে নিলে যানচলাচল স্বাভাবিক হয়। খবর পেয়ে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট (এডিএম) মো. মোজ্জাম্মেল হক ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা উম্মে হাবিবা, বেলাবো থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাসহ প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন ব্যক্তিরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।
প্রতক্ষ্যদর্শী ও স্থানীয় চেয়ারম্যান মোসলেহ উদ্দিন খান জানান, অগ্রদূত পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাস (ঢাকা-মেট্রো-ব-১১-৬৫৬৮) অপর একটি সিএনজিচালিত অটোরিকশাকে ওভারটেক করার সময় নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে মাইক্রোবাসটির (ঢাকা-মেট্রো-ছ-১১-৮৬৫১) ওপর উঠিয়ে দেয়। এতে মাইক্রোবাসের ১৩ যাত্রী মারা যান। ভৈরব হাইওয়ে থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিজানুর রহমান বলেন, নিহতের স্বজনদের আবেদনের প্রেক্ষিতে দুপুরে ১৩ জনের মরদেহ ময়না তদন্ত ছাড়াই স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। বাস ও মাইক্রোবাসটিকে আটক করা হয়েছে। তবে বাসের চালক ও তার সহকারী পালিয়েছেন। এ ঘটনায় বেলাবো থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। নরসিংদীর অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মোজাম্মেল হক বলেন, দুর্ঘটনার কারণ অনুসন্ধান করা হচ্ছে। জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ইতোমধ্যেই একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। প্রাথমিক পর্যায়ে নিহতদের মরদেহ দাফন-কাফনের জন্য জনপ্রতি পাঁচ হাজার টাকা করে আর্থিক সহায়তা দেয়া হয়েছে।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com