বুধবার, ২৮ অক্টোবর ২০২০, ০৪:৪৩ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
নবীগঞ্জে নিখোঁজের ৪ দিনের মাথায় ধান ক্ষেতে অটোরিকশা চালক এর লাশ সকলকে সাহস যোগানো এমপি আবু জাহির নিজেই করোনায় আক্রান্ত ॥ আজ হেলিকপ্টারযোগে সিএমএইচে নেয়া হচ্ছে শহরে ডাকাত গ্রেফতার করতে গিয়ে পুলিশ হামলার শিকার নবীগঞ্জে ইউনিয়ন চেয়রম্যান ও মেম্বারের বিরুদ্ধে নারী নির্যাতন মামলা নিয়ে এলাকায় ধ্রুমজাল আজ জেলা আইনজীবি সহকারী সমিতির নির্বাচন ৪২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে হবিগঞ্জ জেলা যুবদলের বিশাল শো-ডাউন নবীগঞ্জ পৌর নির্বাচন : ৩ নং ওয়ার্ডে আলোচনায় ওহি দেওয়ান চৌধুরী নবীগঞ্জের আলোচিত জ্যোৎস্না হত্যা মামলায় আরো ২ জনের স্বাক্ষ্য গ্রহণ রাসূল (সাঃ) কে নিয়ে ব্যঙ্গ চিত্র করার প্রতিবাদে নবীগঞ্জে লতিফিয়া সমাজ কল্যাণ পরিষদের বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ নবীগঞ্জে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ডের ১০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন
হবিগঞ্জে যুবদলের ১৮ সাংগঠনিক ইউনিটের কমিটি গঠন প্রক্রিয়া শুরু ॥ সাধারণ সম্পাদকের বিরুদ্ধে অর্থ বাণিজ্যের অভিযোগ

হবিগঞ্জে যুবদলের ১৮ সাংগঠনিক ইউনিটের কমিটি গঠন প্রক্রিয়া শুরু ॥ সাধারণ সম্পাদকের বিরুদ্ধে অর্থ বাণিজ্যের অভিযোগ

স্টাফ রিপোর্টার ॥ হবিগঞ্জ জেলা যুবদলের আওতাধিন ১৮ সাংগঠনিক ইউনিটের কমিটি গঠন প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। উক্ত কমিটির ইউনিট প্রধান সহ বিভিন্ন পদ পাওয়ার জন্য একদিকে নেতারা শুরু করেছেন জেলা পর্যায়ের নেতাদের নিকট বিশেষ করে সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক সাংগঠনিক সম্পদকের নিকট ধর্ণা দেওয়া শুরু করেছেন। নেতা হওয়া বা পদ পাবার সুযোগকে কাজে লাগিয়ে কোন কোন নেতা নিজের আখের গোছানোর ধান্ধায় নেমেছেন। কিন্তু একক ভাবে হজম করলেও পদ প্রার্থীর প্রত্যাশা পুরন করতে না পারায় এ নিয়ে শুরু হয়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে লেখা লেখি। বিশেষ করে জেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক জালাল আহমেদকে ফেসবুকসহ একাধিক মিডিয়াতেও এ নিয়ে ফলাও করে সংবাদ প্রকাশ পেয়েছে। এ নিয়ে জেলা ব্যাপী শুরু হয়েছে আলোচনা সমালোচনার ঝড়। ইতিমধ্যে যুবদলের তৃনমুল পর্যায়ে প্রচার চলছে যিনি যত টাকা দেবেন তিনি তত বড় নেতা হতে পারবেন। সেখানে চলছে পদ দেয়ার নামে বাণিজ্য। টাকা দিয়ে কেউ কেউ নেতা হতে যাচ্ছেন। এটাই নাকি হবিগঞ্জ যুবদলের বর্তমান সেক্রেটারির কৌশল। এ কারণে দলটির নিবেদিতপ্রাণ নেতাকর্মীরা হতাশ। এ সুযোগে অযোগ্যরা টাকার বিনিময়ে যুবদলের বড় নেতা হতে পারেন। অপর দিকে অর্থে বিনিময়ে নেতা তৈরী হলে দলের ত্যাগী ও তৃনমুল পর্যায়ে বিরূপ প্রতিক্রিয়া দেখা দেয়। শুরু হয় গ্রুপিং।
দলীয় সূত্র জানায়, হবিগঞ্জ জেলার বিভিন্ন উপজেলা-পৌর যুবদলের কমিটি গঠন নিয়ে পদ বানিজ্য, কমিটি বানিজ্য, কমিটি কিংবা পদের বিনিময়ে লাখ লাখ টাকা নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে জেলা যুবদলের বর্তমান সাধারণ সম্পাদক জালাল আহমেদ এর বিরুদ্ধে। এমনই অভিযোগ এনে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিচ্ছেন অনেকে। পদ দেয়ার নামে অর্থ বানিজ্যের বিষয়টি ভাইরাল হওয়ায় সমালোচনার ঝড় উঠছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।
গরষড়হ কযধহ (মিলন খাঁন) লিখেছেন, হবিগঞ্জ জেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক জালাল আহমদ প্রথমত আমাকে জেলা যুবদলের সদস্য বানানোর কথা দিয়েও রাখেননি এবং পরে বানিয়াচং উপজেলা যুবদলের সভাপতি বানিয়ে দেওয়ার কথা বলে ৬০ হাজার টাকা নিয়েছেন এবং এর বাহিরেও বিগত দুই বছরে বিভিন্ন রকম আর্থিক সহযোগিতা করেছি। এখন বলতেছেন উনি আমাকে সভাপতি অথবা আহ্বায়ক কোনোটাই দেওয়া সম্ভব নয়, তিনি আরো লিখেছেন দলে এই রকম ——- থাকলে দলের দূর্নাম হওয়া ছাড়া সুনাম অর্জন করা সম্ভব না। উনি যে এত বড় একজন নীরব বাটপার আমার বুঝতে দেরি হয়ে গেল কেন্দ্রীয় যুবদলের কাছে বিচার চাই।
ঐধংহঁষ ঐড়শ ইধঢ়ঢ়র (হাসনুল হক বাপ্পী) লিখেছেন, বাহুবল উপজেলা যুবদলের পদ দেওয়ার কথা বলে দুবাই প্রবাসী সোহেলের কাছ থেকে সাধারণ সম্পাদক জালাল ৩৫ হাজার টাকা আত্মসাৎ ব্যাপারটা লজ্জাজনক।
জালাল এর অপকর্ম নামে আইডি থেকে লেখা হয়েছে, পৃথিবীর সব সম্পর্কগুলো হেরে যায় টাকার কাঁছে।
এই জালাল — টাকার বিনিময়ে সবকিছুই করতে পারে। যুবদলের এই কমিটিতে ৪৮ জন কর্মীর কাঁছ থেকে প্রায় ১৮ লক্ষ টাকা আত্মাসাৎ করেছে সে।
নেতা কর্মীদের অভিযোগ, বিভিন্ন থানা ও পৌর কমিটিতে অনেকেই আসতে পারে টাকার বিনিময়ে। দলের ত্যাগী ও পরীক্ষিত নেতাকর্মীদের বাদ দিয়ে এসব ‘মানি নেতা’র আবির্ভাব ঘটলে মনোবল হারিয়ে ফেলবে তৃণমূলের নেতাকর্মীরা।
নেতাকর্মীরা আরো মনে করেন, জেলার বিভিন্ন থানা কমিটি কিংবা পৌর কমিটি ঘোষণার আগেই অনেকই ঢাক ডোল পিটিয়ে স্পষ্টভাবেই বলছেন তারা নেতৃত্বে আসছেন। তাদের দাবীর মনোবল একটাই হচ্ছে টাকা লেনদেন।
এবিষয়ে জানতে চেয়ে জেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক জালাল আহমদ এর মোবাইল ফোনে বার বার চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি।
এব্যাপারে জেলা যুবদলের সভাপতি মিয়া মোহাম্মদ ইলিয়াছ এর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, ফেসবুকে অনেকই অনেক কিছু লেখেন। তবে বিষয়টি সত্য কি-না খতিয়ে দেখা হচ্ছে। তিনি আরো বলেন, টাকার বিনিময়ে যুবদলে স্থান পাওয়ার সুযোগ নেই। পরীক্ষিত ও ত্যাগীদের দিয়ে প্রতিটি ইউনিট কমিটি গঠন করা হবে।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com