শনিবার, ৩০ মে ২০২০, ০৬:৪১ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
ভারতীয় নাগরিকের পিটুনীতে বাংলাদেশী খুন ॥ লাশের অপেক্ষায় স্বজনরা বানিয়াচংয়ের বিভিন্ন বাজারে সেনাবাহিনীর জনসচেতনতামূলক প্রচারাভিযান শ্রীমঙ্গলে ৬৭ টি মামলায় ৭৫ হাজার টাকা জরিমানা নবীগঞ্জে সরকারের অর্থ সহায়তার তালিকায় নারী কাউন্সিলরের পরিবারের ৬ সদস্যের নাম শচীন্দ্র লাল সরকারের সমাধীতে জেলা সিপিবি, উদীচী, কিবরিয়া ফাউন্ডেশন, সচেতন নাগরিক কমিটি ও মাতৃছায়া কেজি এন্ড হাইস্কুলের পুষ্পস্তবক অর্পন দৈনিক খোয়াই পত্রিকার সার্কুলেশন ম্যানেজার সাইফুলের পিতার ইন্তেকাল নবীগঞ্জে ভাতিজার হাতে চাচা খুন শ্রীমঙ্গলে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে শ্রীমঙ্গল পৌরসভার কাউন্সিলর আব্দুল আহাদের মৃত্যু বানিয়াচঙ্গের হাওর থেকে অজ্ঞাত মহিলার লাশ উদ্ধার হবিগঞ্জে জমি নিয়ে সংঘর্ষে নিহত ১
বাহুবলে মানবতাবাদী ইউএনও জসিম উদ্দিন

বাহুবলে মানবতাবাদী ইউএনও জসিম উদ্দিন

বাহুবল প্রতিনিধি ॥ বাহুবলে অনাহারী এক জননীসহ দুই সন্তানের পাশে দাঁড়ালেন বাহুবল উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ জসীম উদ্দিন। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের একটি স্ট্যাটাসের সূত্রে ওই বিধবার সন্ধান পেয়ে বাড়িতে হাজির হয়ে রান্না করা খাবার, একবস্তা চাউল ও নগদ চার হাজার টাকা তোলে দিয়ে মানবতা দেখিয়েছেন তিনি। সেই সাথে ওই বিধবার পরিবারকে সার্বিক সহযোগিতার মাধ্যমে পুনর্বাসনেরও আশ্বাস দিয়েছেন। পাশাপাশি ওই পরিবারটি পাশে দাড়ানোরও আহ্বান জানিয়েছেন সবাইকে। অনাহারী এই নারীর নাম জয়তুন নেছা (২৮)। তিনি বাহুবল সদর ইউনিয়নের কসবা করিমপুর গ্রামের মৃত মনিরুল ইসলাম (রুমেদ) এর স্ত্রী।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, জয়তুন নেছার স্বামী বাহুবল উপজেলার সদর ইউনিয়নের কসবা করিমপুর গ্রামের জামাল উদ্দিনের পুত্র মনিরুল ইসলাম (রুমেদ) ইটভাটা শ্রমিকের কাজ করতেন। গত বছর তার কিডনীতে পাথর ধরা পড়ে। হবিগঞ্জ শহরের একটি বেসরকারি ক্লিনিকে অপারেশনের মাধ্যমে পাথর অপসারণ করা হয়। এর পর থেকে তিনি শারীরিক দুর্বলতাসহ প্রচন্ড মাথা ব্যথায় ভোগতে থাকেন। এক পর্যায়ে রুমেদ প্রায় শয্যাশায়ী হয়ে যান। বন্ধ হয়ে যায় পারিবারিক আয়। দুই সন্তানসহ স্বামী-স্ত্রীর অনাহারে অর্ধাহারে দিন কাটতে থাকে। শরীরে অসুখের যন্ত্রণার চেয়ে অনাহারী স্ত্রী-সন্তানের মুখের দিকে তাকানো ছিল রুমেদের জন্য অধিকতর যন্ত্রণার। শেষ পর্যন্ত গত বছরের ১৫ ডিসেম্বর গলায় ফাঁস দিয়ে জীবন সংগ্রামের ইতি টানেন তিনি। তার অবর্তমানে সন্তানদের দায় বর্তায় অল্পবয়সী বিধবা জয়তুন নেছা (২৮) ঘাড়ে। আয়ের কোন উৎস না থাকায় রক্ষণশীল এ বিধবা আশপাশের মানুষের সহায়তায় এক ছেলে ও এক মেয়ে নিয়ে অনাহারে-অর্ধাহারে দিন কাটাতে থাকেন। মেয়ে নাজিরা আক্তার তৃতীয় শ্রেণি আর ছেলে রায়হান মিয়া শিশু শ্রেণিতে লেখাপড়া করে কসবাকরিমপুর গ্রামে প্রতিষ্ঠিত ফয়জাবাদ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে। ভাই-বোন প্রায়ই অনাহারে বিদ্যালয়ে হাজির হতো। ভাই-বোনের অনাহারী থাকার বিষয়টি উপলব্ধি করেন বিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষিকাদের। দুই শিশুর কাছ থেকে বিষয়টি জানার পর শিক্ষক-শিক্ষিকাদের বিবেকে নাড়া দেয়। তার দুপুরের খাবারের একাংশ ওই অনাহারী শিশুদের মুখে তোলে দিতেন। বিদ্যালয়ের শিক্ষিকা মনিকা দেব জেনি বিষয়টি একদিন তার ছোট ভাই শুভ্র দেব অভিকে জানান। বিস্তারিত শুনে বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়–য়া তরুণ অভির মনকে নাড়া দেয়। সে একদিন ওই বিদ্যালয়ে গিয়ে শিশুদের সাথে কথা বলে এবং এ ব্যাপারে সে তার নিজের এবং তার পরিচালিত ‘পার্লামেন্ট অব বাহুবল’ নামক ফেসবুক গ্র“পে একটি স্ট্যাটাস পোস্ট করে। স্ট্যাটাসটি বাহুবল উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ জসীম উদ্দিন-এর নজরে আসে। গতকাল ছুটে যান বিধবা জয়তুন নেছার বাড়িতে। সাথে নিয়ে যান রান্না করা খাবার এবং একবস্তা চাউল। তিনি রান্না করা খাবার চাউলসহ নগদ চার হাজার টাকা তোলে দেন জয়তুন নেছা ও তার সন্তানদের হাতে।
এ সময় অন্যান্যের মাঝে উপস্থিত ছিলেন ফয়জাবাদ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মনিকা দেব জেনী, বাহুবল মডেল প্রেসক্লাবের অর্থ ও দপ্তর সম্পাদক মনিরুল ইসলাম শামিম ও বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র শুভ্র দেব অভি প্রমুখ। ইউএনও মোঃ জসীম উদ্দিন এর মহানুভবতায় উপস্থিত সবাইকে মুগ্ধ করেছে।
এ ব্যাপারে ফেসবুক স্ট্যাটাসে মোঃ জসীম উদ্দিন বলেন, তিনবেলা খেতে পায় না স্বামীহারা অসহায় গরীব অন্তঃসত্ত্বা জয়তুন্নেচ্ছা। দুই সন্তানসহ তার সংসার অকূল সাগরে ভাসছে। এই খবর ফেসবুকের মাধ্যমে জানতে পেরে আমার হৃদয় কেঁদে উঠে। নির্ঘুম রাত কাটে এ অসহায় পরিবারটির কথা ভেবে। ফেসবুকেই উপজেলা প্রশাসন ও ব্যক্তিগতভাবে পরিবারটির পাশে দাঁড়ানোর আশ্বাস দেই এবং সবাইকে সহযোগিতার হাত বাড়ানোর আহবান জানাই। বৃহস্পতিবার দুপুরে এক বস্তা চাল, টিফিনবাটিতে এক বেলার রান্না করা খাবার ও নগদ চার হাজার টাকা নিয়ে মানবতার টানে বিধবার বাড়িতে হাজির হই।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com