মঙ্গলবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০১:৪৩ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
নবীগঞ্জের নদী খোকোদের তালিকা প্রকাশ ॥ শীঘ্রই উচ্ছেদ অভিযান মাধবপুরে ছোট ভাইয়ের পিটুনীতে বড় ভাই খুন এমপি আবু জাহিরের প্রচেষ্টায় হবিগঞ্জ সদর ও শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলার সকল প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শহীদ মিনার নির্মাণ ॥ আজ এক যোগে উদ্বোধন নবীগঞ্জে সন্ত্রাসী মুছা ১০ দিনেও অধরা কর আদায়ের উপর নির্ভর করে পৌরসভার উন্নয়ন-মেয়র ছাবির চৌধুরী নবীগঞ্জে নারী প্রতারক গ্রেপ্তার মানুষ বাঁচে তার কর্মে, বয়সের মধ্যে নয়-মিলাদ গাজী এমপি নবীগঞ্জে সাবেক ইউপি সদস্যের দাফন সম্পন্ন ॥ শোক প্রকাশ ‘হবিগঞ্জের মানুষ অসাম্প্রদায়িক চেতনায় বিশ্বাসী-মেয়র মিজান দুর্নীতি আর লুটপাটের মহাসাগরে নিমজ্জিত আওয়ামীলীগের পতন হবেই- জিকে গউছ
দ্রুত বিচার আইনে মামলায় ॥ পানিউমদার সাবেক চেয়ারম্যান রহমানসহ ৩ জনের ২ বছর দণ্ড

দ্রুত বিচার আইনে মামলায় ॥ পানিউমদার সাবেক চেয়ারম্যান রহমানসহ ৩ জনের ২ বছর দণ্ড

স্টাফ রিপোর্টার ॥ নবীগঞ্জের পানিউমদা ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান নোয়াগাও গ্রামের আব্দুর রহমান সহ ৩ জনকে ২ বছরের সস্ত্রম কারাদণ্ড ও ৫ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো ৩ বছরের দন্ড প্রদান করা হয়েছে। অপর দণ্ডপ্রাপ্তরা হচ্ছেন একই গ্রামের দু’সহোদর মোঃ রুহুল আমিন (৩৫) ও ইউসুফ আলী (৪৫)। খাগাউড়া গ্রামের বাসিন্দা রইছগঞ্জ বাজারের ব্যবসায়ী নুরাজ মিয়ার দোকান ভাংচুর ও লুটপাটের অভিযোগে দায়েরকৃত দ্রুত বিচার আইনে মামলায় দোষী সাব্যস্থ করে তাদের এ দণ্ড প্রদান করা হয়। চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট মোঃ সুলায়মান মিয়া গতকাল সোমবার এ রায় প্রদান করেন। মামলার বিবরণে জানা যায়, নির্বাচনকে সামনে রেখে প্রচার প্রচারণা শুরু হয়। ঘটনার কয়েকদিন পূর্বে বাদীর দোকানে বসে জনৈক চেয়ারম্যান প্রার্থী নির্বাচনী প্রচার করেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে উঠেন পানিউমদা ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান নোয়াগাও গ্রামের বাসিন্দা আব্দুর রহমান। তিনি কয়েকজনকে নিয়ে দোকানে এসে তার দোকানে বসে কেউ যাতে নির্বাচনী প্রচার করতে না পারে সে জন্য নুরাজ মিয়াকে শাসিয়ে যান। এর প্রতিবাদ করায় তাকে হুমকী প্রদান করা হয়। এর জের ধরে সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুর রহমানের নেতৃত্বে আসামীরা ২০১৫ সনের ২৯ নভেম্বর সকাল ১১ টার দিকে নুরাজ মিয়ার দোকান ঘেরাও করে। খবর পেয়ে নুরাজ মিয়া দোকানে আসলে আসামীরা তাকে ধাওয়া করলে তিনি দৌড়ে পালিয়ে যান। পরে সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুর রহমান এর নির্দেশে আসামীরা তার দোকানে হামলা, ভাংচুর ও লুটপাট করে বলে আরজিতে উল্লেখ করা হয়। এতে প্রায় ১ লাখ ২০ হাজার টাকা ক্ষতি হয়। এ সময় আসামীরা একটি রঙ্গিন টিভি ও ১০ ড্রাম তেল চুরি করে নিয়ে যায়। যার মুল্য ১ লাখ ৫৪ হাজার টাকা। ঘটনার খবর পেয়ে গোপলার বাজার ও পুটিজুরী ফাড়ি পুলিশ ঘটনাস্থলে আসলে আসামীরা পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় পরদিন দোকান মালিক নুরাজ মিয়া বাদী হয়ে সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুর রহমানকে প্রধান আসামী করে ১৫ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আরো ৪০/৫০জনকে অভিযুক্ত করে নবীগঞ্জ থানায় দ্রুত বিচার আইনে একটি মামলা দায়ের করেন।
মামলাটি বাদী পক্ষে পরিচালনা করেন এডঃ ফয়জুল বশির চৌধুরী সুজন। আসামী পক্ষে ছিলেন এডঃ চৌধুরী আশরাফুল বারী নোমান।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com