মঙ্গলবার, ০৯ অগাস্ট ২০২২, ০৫:২২ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম ::
পবিত্র আশুরা আজ বঙ্গমাতা ছিলেন বঙ্গবন্ধুর রাজনৈতিক সহযোদ্ধা-এমপি আবু জাহির বানিয়াচঙ্গে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থদের তথ্য প্রেরণে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অনিয়ম ও স্বজনপ্রীতির অভিযোগ ॥ তালিকায় রয়েছে একই পরিবারের ৪ জন আছে মিঠামইন ও অষ্টগ্রাম উপজেলার লোক ক্যান্সারসহ বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত ৯ জনের মাঝে অনুদানের চেক বিতরণ দুর্দিনে বঙ্গবন্ধুকে অনুপ্রেরণা দিয়েছেন বঙ্গমাতা-মিজানুর রহমান শামীম জালালাবাদ এসোসিয়েশনের পুনর্বাসন কার্যক্রমে ১০ লাখ টাকা অনুদান দিয়েছেন সায়হাম গ্রুপের পরিচালক সৈয়দ ইশতিয়াক ও সৈয়দ শাফকাত হবিগঞ্জ-১ আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী দুলাল আহমদ তালুকদার নিজামপুর ইউনিয়ন জাতীয় পার্টির আহ্বায়ক কমিটি অনুমোদন ॥ আহ্বায়ক আসগর আলী, যুগ্ম আহ্বায়ক ফরিদ মিয়া থানা পুলিশের নাম ভাঙ্গিয়ে সোর্স ও দালালদের অপকর্ম জ্বালানি তেল ও সারের দাম কমানোর দাবিতে হবিগঞ্জে বাসদের বিক্ষোভ

চুনারুঘাটের বাসুল্লা বাজারে তান্ডব বেধড়ক মারধর ॥ ভাংচুর-লুটপাট

  • আপডেট টাইম শনিবার, ৬ আগস্ট, ২০২২
  • ৪ বা পড়া হয়েছে

চুনারুঘাট প্রতিনিধি ॥ চুনারুঘাট উপজেলার বাসুল্লা বাজারে সন্ত্রাসী তান্ডব চালিয়ে বেধড়ক মারধর, ভাংচুর ও লুটপাট করেছে পার্শ্ববর্তী কৃঞ্চনগর গ্রামের নজরুল ইসলাম এর নেতৃত্বে একদল হামলাকারী।
৪ আগস্ট বৃহস্পতিবার রাত আটটায় এ হামলা, ভাংচুর ও লুটপাটের ঘটনা ঘটে।
হামলাকারীদের দা এর কোপে গুরুতর আহত হয়েছেন আজাদ মুন্সি (৪০) ও মাহিন মুন্সি (২০) নামের ২ ব্যবসায়ী। তাদেরকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। হামলাকারীরা অন্তত ৫ টি দোকান ভাংচুর ও কাজল মিয়া নামের ডাচ বাংলা ব্যাংকের এজেন্ট ব্যাংকিং ব্যবসায়ীর ২৫ লক্ষ টাকা লুটপাট করে নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে।
বাজারের ব্যবসায়ী ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় চুল কাটতে এসে সিরিয়ালে থাকা বাসুল্লা গ্রামের কাজল মিয়া নামের এক ব্যক্তিকে সেলুন থেকে বের করে মারধর করতে থাকে কৃঞ্চনগর গ্রামের মৃত তাজুল ইসলামের পুত্র আফজল মিয়া (২০)। মারামারি আটকাতে যান পাশের ওয়ার্কশপ ব্যবসায়ী আজাদ মুন্সি। আফজল আঘাত আজাদ মুন্সিকেও করে। এতে তাদের মধ্যে হাতাহাতি হয়।
আফজল আঘাত পেয়ে তার আপন চাচা বাসুল্লা বাজারের এজেন্ট ব্যাংকিং ব্যবসায়ী কাজল মিয়ার কাছে গিয়ে নালিশ করে।
কাজল মিয়া আফজলকে অন্যায় করেছে বললে সে বাজার থেকে চলে যায়।
রাত ৮টার দিকে তার চাচা নজরুল সহ ১০/১২ জনের এক দল লোক রামদা সহ বিভিন্ন দেশীয় অস্ত্র নিয়ে এসে আজাদ মুন্সি ও মাহিন মুন্সির উপর হামলা চালিয়ে তাদেরকে গুরুতর আহত করে। হামলায় শিকার আরও কয়েকজন দৌড়ে পালিয়ে যান।
এরপর কাজল মিয়ার এজেন্ট ব্যাংকে গিয়ে হামলা চালায়। কাজল মিয়া পালিয়ে নিজের অপর ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বিকাশ এর সাটার আটকে নিজেকে রক্ষা করেন। হামলাকারীরা কাজলকে না পেয়ে তার ডাচ্ বাংলা ব্যাংক এজেন্ট শাখায় ভাংচুর ও লুটপাট করে।
হামলাকারীরা একটি এজেন্ট ব্যাংক, একটি সেলুন, একটি বিকাশের দোকান, একটি ওয়ার্কশপ সহ মোট ৫ টি দোকান ভাংচুর করে।
পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে। জড়িত নজরুল ইসলাম (৪০) ও তার পুত্র আলমগীরকে আটক করে।
শুক্রবার সকালে ব্যবসায়ীরা প্রতিবাদ সমাবেশ করে বাকী হামলাকারীদের গ্রেফতারের দাবী জানান। স্থানীয় ইউপি সদস্য ছালেক ও চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলী ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2013-2021 HabiganjExpress.Com
Design and Development BY ThemesBazar.Com