মঙ্গলবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৪:৪৬ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
গ্রীসে নিহত নবীগঞ্জের দু’ব্যক্তিকে শেষ বিদায় জানালো এলাকাবাসী চুনারুঘাটে রাস্তার কাঁদায় ধান রোপন করে প্রতিবাদ নবীগঞ্জে হত্যা মামলার ৭০ আসামীর জামিন নামঞ্জুর কারাগারে প্রেরণের নির্দেশ শহরের গাণিংপার্ক থেকে নতুন বিবাহিত যুবকের লাশ উদ্ধার বাঙ্গালীর আশার বাতিঘর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা-এমপি আবু জাহির হবিগঞ্জে নতুন করে ৫ জন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত শহরে নকল সোনা বিক্রেতা আটক আমার হবিগঞ্জের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জেলা কৃষক লীগের নব নির্বাচিত সভাপতি শরীফ উল্লাহকে শচীন্দ্র কলেজের রোভার স্কাউট গ্রুপের ফুলেল শুভেচ্ছা নবীগঞ্জে প্রবাসীর স্ত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ
ব্যবসায়ীক লেনদেন নিয়ে বিরোধ ॥ উত্তর সাঙ্গরে সংঘর্ষে আহত দেড়শতাধিক ॥ আটক ২২

ব্যবসায়ীক লেনদেন নিয়ে বিরোধ ॥ উত্তর সাঙ্গরে সংঘর্ষে আহত দেড়শতাধিক ॥ আটক ২২

আজিজুল ইসলাম সজীব ॥ বানিয়াচং উপজেলার উত্তর সাঙ্গর গ্রামে দু’পক্ষের সংঘর্ষে দেড় শতাধিক ব্যক্তি আহত হয়েছে। এর মধ্যে টেটা বৃদ্ধ প্রায় অর্ধশত। গুরুতর আহতদের সিলেট ও ঢাকা প্রেরণ করা হয়েছে। ব্যবসায়িক লেনদেনকে কেন্দ্র করে এ সংঘর্ষের সূত্রপাত বলে জানা গেছে। হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে এসেও দফায় দফায় সংঘর্ষে লিপ্ত হওয়ায় সদর মডেল থানা পুলিশ উভয় পক্ষের ৬ জনকে এবং ঘটনাস্থল থেকে বানিয়াচং থানা পুলিশ উভয় পক্ষের ১৬ জনকে আটক করেছে। সদর হাসপাতাল থেকে আটককৃতরা হচ্ছে আব্দুল হাকিম ফুল মিয়া, মোঃ দিলু মিয়া, মোঃ আফরোজ মিয়া, মোঃ সানু মিয়া, মোঃ লাউছ মিয়া ও মোঃ আব্দুল গণি।
সূত্রে জানা যায়, ব্যবসায়ীক লেনদেন নিয়ে উত্তর সাঙ্গর গ্রামের আব্দুল হাকিম ফুল মিয়া ও সাবেক পুলিশ কর্মকর্তা আব্দাল রাজার মধ্যে বিরোধ চলে আসছিল। এ নিয়ে প্রায় ২০ দিন আগে এলাকায় শালিস বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। শালিসে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানসহ এলাকার বিশিষ্টজনরা উপস্থিত ছিলেন। শালিসে আব্দুল হাকিম ফুল মিয়া ৩ লাখ টাকা আব্দাল রাজাকে প্রদানের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। গত বৃহস্পতিবার ওই টাকা পরিশোধ করার কথা বলে জানা যায়। কিন্তু নির্দিষ্ট সময়ে ফুল মিয়া টাকা পরিশোধ করেন নি। এ দিকে গত মঙ্গলবার আব্দাল রাজার ভাই নুরুল হক রাজাকে মারধর করে ফুল মিয়ার লোকজন। এ নিয়ে উভয় পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করে। গতকাল সন্ধ্যা ৬টার দিকে উভয় পক্ষ সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। খবর পেয়ে বানিয়াচং থানা ও সুজাতপুর ফাড়ির পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে বেশ ৭ রাউন্ড টিয়ারশেল নিক্ষেপ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। প্রায় ৩ ঘন্টা সংঘর্ষে উভয় পক্ষের দেড়শাধিক লোক আহত হয়। এর মধ্যে টেটা বিদ্ধ অনেক রয়েছে। উভয় আহতদের চিকিৎসার জন্য হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। কিন্তু চিকিৎসা নিতে এসেও উভয় পক্ষের লোকজন দফায় দফায় সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। এ সময় সদর থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে উভয় পক্ষের ৬ জনকে পুলিশ আটক করেছে। গুরুতর আহতদের হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এর মধ্যে আশংকাজনক অবস্থায় আজিজুল, সাইদুর, আলী মিয়া, সিরাজ মিয়া, বাবুল, তাজুল হোসেন, আকবর, হাদীস, তাজুল, এরশাদ মিয়া, আব্দুস সালাম, আদম আলী, মোহন মিয়া, শামসুল হক, মোতালিব, জয়নাল, জজ মিয়া, আলী মিয়া, নাজমুল, রাসেদ, তফসিরকে সিলেট ও ঢাকা মেডিকেলে প্রেরণ করা হয়েছে।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com