শনিবার, ৩০ মে ২০২০, ১০:৫৫ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
ভারতীয় নাগরিকের পিটুনীতে বাংলাদেশী খুন ॥ লাশের অপেক্ষায় স্বজনরা বানিয়াচংয়ের বিভিন্ন বাজারে সেনাবাহিনীর জনসচেতনতামূলক প্রচারাভিযান শ্রীমঙ্গলে ৬৭ টি মামলায় ৭৫ হাজার টাকা জরিমানা নবীগঞ্জে সরকারের অর্থ সহায়তার তালিকায় নারী কাউন্সিলরের পরিবারের ৬ সদস্যের নাম শচীন্দ্র লাল সরকারের সমাধীতে জেলা সিপিবি, উদীচী, কিবরিয়া ফাউন্ডেশন, সচেতন নাগরিক কমিটি ও মাতৃছায়া কেজি এন্ড হাইস্কুলের পুষ্পস্তবক অর্পন দৈনিক খোয়াই পত্রিকার সার্কুলেশন ম্যানেজার সাইফুলের পিতার ইন্তেকাল নবীগঞ্জে ভাতিজার হাতে চাচা খুন শ্রীমঙ্গলে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে শ্রীমঙ্গল পৌরসভার কাউন্সিলর আব্দুল আহাদের মৃত্যু বানিয়াচঙ্গের হাওর থেকে অজ্ঞাত মহিলার লাশ উদ্ধার হবিগঞ্জে জমি নিয়ে সংঘর্ষে নিহত ১
হত্যার ঘটনায় ২৭ জনের বিরুদ্ধে মামলা ॥ নবীগঞ্জের কানাইপুর পুরুষশুন্য

হত্যার ঘটনায় ২৭ জনের বিরুদ্ধে মামলা ॥ নবীগঞ্জের কানাইপুর পুরুষশুন্য

নবীগঞ্জ প্রতিনিধি ॥ নবীগঞ্জের কানাইপুর গ্রামে দু’দলের সংঘর্ষে হতাহাতের ঘটনায় আতঙ্কের জনপদে পরিণত হয়েছে গ্রামটি। পুরষশুন্য বাড়িঘরে চলছে লুটপাট। হত্যা মামলায় আসামী করা হবে এমন ভয় দেখিয়ে টাকা আদায় করা হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। দীর্ঘদিন ধরে গ্রামে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দুটি পক্ষের মধ্যে চরম বিরোধ চলে আসছিল। এক পক্ষের নেতৃত্বে রয়েছেন সাবেক মেম্বার ফরজ আলী ও আব্দুল বারিক এবং অপর পক্ষে রয়েছেন সাবেক মেম্বার ইসমত আলী। উভয় পক্ষের মধ্যে একাধিক মামলা মোকদ্দমাও রয়েছে। সম্প্রতি আব্দুল বারিকের লোকজন ফরজ আলী মেম্বারের মেয়ে’কে মারপিট করলে ফরজ আলী মেম্বারের পক্ষ ত্যাগ করে বারিকের লোকজন। ফলে তিন ভাগে বিভক্ত হয়ে গ্রামের পরিবেশ উত্তপ্ত হয়ে উঠে। এদিকে গতকাল রাতে নিহত সবুর আলীর মা আজিজুন নেছা বাদী হয়ে ২৭ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাতনামা আরো ৮/১০জনের বিরুদ্ধে নবীগঞ্জ থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন।
এরই মধ্যে গত শুক্রবার গ্রামের মসজিদের জমি বর্গা দেয়াকে কেন্দ্র করে ফরজ আলী মেম্বার ও আব্দুল বারিকের লোকজনের মধ্যে বাকবিতন্ডা সৃষ্টি হয়। এক পর্যায়ে উভয় পক্ষ সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এতে ৪ জন আহত হয়। এ ঘটনার জের ধরে পরদিন শনিবার সকাল ৮টার দিকে ফরজ আলী মেম্বার ও আব্দুল বারিকের পক্ষের লোকজন দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। সংঘর্ষ চলাকালে উভয় পক্ষের ২০/২৫টি বাড়িঘর ভাংচুর এবং পুলিশসহ অন্তত ৪০ জন আহত হয়। পরে আরও অতিরিক্ত পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আসে। আহতদের মধ্যে আব্দুল বারিকের পক্ষের সবুর আলী (২২) কে নিয়ে হাসপাতাল আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। মুহুর্তের মধ্যে পাল্টে যায় এলাকার দৃশ্যপট। ফরজ আলী মেম্বার পক্ষের লোকজন গ্রাম ছাড়েন। পুলিশ অভিযান চালিয়ে ২ জনকে আটক করে নিয়ে আসেন।
এদিকে পুরুষশুন্য ফরজ আলীর বাড়িঘরসহ তার পক্ষের বেশ ক’টি বাড়িঘর লুটপাট করেন প্রতিপক্ষের লোকজন। এতে প্রায় ১০/১৫ লাখ টাকার মালামাল লুটপাটের অভিযোগ রয়েছে। আতংক ছড়িয়ে পড়ে গোটা গ্রামে। এদিকে আব্দুল বারিক ও তার পক্ষের লোকজন নিরীহ সাধারণ মানুষকে চাঁদা দিতে বলেন। অন্যথায় তাদেরকেও হত্যা মামলায় আসামী দেয়ার ভয় দেখানো হয় বলেও অভিযোগ রয়েছে। গতকাল রোববার বিকেলে এ রির্পোট লেখা পর্যন্ত কোন মামলা দায়ের করার খবর পাওয়া যায়নি।
এ ব্যাপারে ফরজ আলী মেম্বারের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, আব্দুল বারিক তার লোকজন নিয়ে তার বাড়িতে হামলা ও ভাংচুর করে। ভয়ে তিনি বাড়িঘর ছেড়ে পালিয়ে যান। তিনি বলেন, তাকে ফাঁসাতে গিয়ে বারিকের ছেলে ও ভাইয়েরা সবুরকে হত্যা করেছে এবং তার বাড়িঘর লুটপাট করেছে। অপরদিকে আব্দুল বারিক বলেন, ফরজ আলী মেম্বার ও তার লোকজন তার চাচাতো ভাই সবুর আলীকে হত্যা করেছে। এ ব্যাপারে তিনি আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সহযোগিতা কামনা করেন।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com