মঙ্গলবার, ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২০, ০৩:১৮ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
করোনা ভাইরাস ॥ চীন ফেরত শিক্ষার্থী নিয়ে হবিগঞ্জে স্বাস্থ্য বিভাগের লুকোচুরি চাঁদাবাজির কারণে থমকে গেছে গুঙ্গিয়াজুরী হাওরে ৪০ হাজার মন ধান উৎপাদন ্॥ কৃষকদের ৪ কোটি টাকা ক্ষতির আশংকা ৯ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে জ্বিনের বাদশা ! ॥ সর্বস্ব খুইয়ে ওই ব্যক্তি পাগল প্রায় ॥ আতঙ্ক গ্রস্থ পরিবার বহুলায় প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ভবন নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করেছেন এমপি আবু জাহির শহরের বদরুন্নেছা (প্রাঃ) হাসপাতালের মালিক দাবিদার বদরুন্নেছার বিরুদ্ধে এন্তার অভিযোগ নবীগঞ্জে স্বাস্থ্য সহকারী ও স্বাস্থ্য পরিদর্শক এসোসিয়েশনের কেন্দ্রীয় দাবী আদায়ের লক্ষ্যে হাম-রুবেলা ক্যাম্পেইনের প্রশিক্ষন বর্জন হবিগঞ্জ শহরে কিশোরকে ছুরিকাঘাত করেছে যুবতী কালিয়ারভাঙ্গা ইউনিয়নে গণফোরামের ৫ নং পুরানগাঁও ওয়ার্ড কমিটি গঠিত বাহুবলে জেলা প্রশাসক কামরুল হাসান ॥ অমর একুশে বইমেলা মহান ভাষা আন্দোলনের স্মৃতিকে জাগ্রত রাখছে শায়েস্তাগঞ্জ জিয়াখাল রেল ব্রীজটি হুমকির মুখে
হবিগঞ্জ সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠ উদ্ধারের দাবীতে সাংবাদিক সম্মেলন

হবিগঞ্জ সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠ উদ্ধারের দাবীতে সাংবাদিক সম্মেলন

স্টাফ রিপোর্টার ॥ হবিগঞ্জ সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠ (নিউফিল্ড) উদ্ধারের দাবী জানানো হয়েছে। রোজ বাংলাদেশের চেয়ারম্যান হারুন চৌধুরী চুনু গতকাল হবিগঞ্জে প্রেসক্লাবে আয়োজিত সাংবাদিক সম্মেলনে এ দাবী জানান।
লিখিত বক্তব্যে হারুন চৌধুরী চুনু বলেন, হবিগঞ্জ সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ে নিজস্ব মাঠ নিউফিল্ডে অন্যায়ভাবে তৈরী করা হয়েছে কিবরিয়া মিলনায়তন। প্রায় ২৫ বৎসর পর সম্প্রতি ওই এলাকায় গেলে তা প্রত্যক্ষ করি। তিনি বলেন, মাঠের জন্য তার বাবা মরহুম আব্দুল মালেক চৌধুরী (মালেক স্যার, তখনকার হবিগঞ্জ সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের দায়িত্বে ছিলেন)। মরহুম আব্দুল আলিম স্যার, জনাব নূরুন্নবী স্যার জেল খেটেছিলেন। মাঠ দখল নিয়ে ছাত্র ও আনসারদের সংঘর্ষ হয়। আনসারদের ছোঁড়া ইটপাটকেলে মালিক স্যার মাথায় আঘাতপ্রাপ্ত হন। এ সময় আমি সহ আমার সহপাঠি এডভোকেট খন্দকার তোরাব আলী, এডভোকেট মনসুর উদ্দিন আহমেদ ইকবাল, আবু ছালেহ মোঃ শিবলী, এডভোকেট আব্দুন নূর খান, মরহুম আব্দুল মতিন খান, আবুল হাসিম সহ আরও অনেকে কলেজ থেকে ছুটে গিয়ে আনসারদের হাত থেকে স্কুলের ছাত্রদের রক্ষা করতে এগিয়ে যাই। ওই দিনই আমার বাবা, মরহুম আলীম স্যার এবং নূরুন্নবী স্যারকে পুলিশ এসে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে গেছে। তখন সামরিক শাসন চলছিল। এর প্রতিবাদে পূর্ব পাকিস্তানের সমস্ত স্কুল কলেজের ছাত্রদের মাঝে প্রতিবাদের ঝড় ছড়িয়ে পড়ে। এর পরও শিক্ষকদের বিরুদ্ধে সামরিক কোর্টে তাঁদের একতরফা রায় হয়ে যায়। শুধুমাত্র আলীম স্যারকে বার্ধ্যক্যের কারণে ছেড়ে দেয়া হয়। মালেক স্যার এবং নূরুন্নবী স্যারকে ১ বৎসর করে সশ্রম কারাদণ্ডে দন্ডিত করা হয়।
তিনি বলেন, যে মাঠের জন্য শিক্ষকরা জেল খেটেছেন, সেই মাঠ দখল করে কিছু বিবেকহীনদের প্ররোচনায় অন্যায় ভাবে এখানে মিলনায়তন করা হয়েছে। আমরা যারা উক্ত স্কুলের ছাত্র তারা আজ অবধি এ ব্যাপারটা মেনে নিতে পারছিনা। কিছু সংখ্যক চাটুকারের কারণে আজ স্কুলের মাঠটি বেদখল হয়ে গেল। আমি প্রায় ২৫/৩০বৎসর যাবত দেশের বাহিরে থাকি। আমি প্রয়োজনে এ মাঠটি জীবন দিয়ে হলেও পুনরুদ্ধার করে ছাড়ব ইন্শাল্লাহ্।
সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, হবিগঞ্জ সরকারী উচ্চ বিদ্যায়ের প্রাক্তণ প্রধান শিক্ষক অরবিন্দু ভট্টাচার্য্য, প্রফেসার ইকরামুল ওয়াদুদ, এডঃ তোরাব আলী খন্দকার, সমাজ সেবক আব্দুল হাসিব চৌধুরী, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী এম এ রাজ্জাক।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com