শনিবার, ০৮ মে ২০২১, ০২:১৮ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
প্রসঙ্গ নিম্বর টাওয়ার ॥ ৫০ লাখ টাকা ঘুষ দাবি! নবীগঞ্জের ভূমি উপসহকারী কর্মকর্তা আবিদ আলী বরখাস্ত হবিগঞ্জে জমে উঠেছে ঈদ বাজার ॥ স্বাস্থ্যবিধি পালনে প্রশাসন কঠোর বাংলাদেশি-আমেরিকান দুই ভাই তীর্থ ও তন্ময়ের সাফল্য খোশ আমদেদ মাহে রমজান ॥ আজ ২৫ রমজান লোকড়ায় অর্থ সহায়তা বিতরণ করলেন এমপি আবু জাহির বানিয়াচংয়ের ঐতিহ্যবাহী ঠাকুরানী দিঘী রক্ষায় এলাকাবাসীর অভিযোগ ॥ ড্রেজার মেশিন জব্দ খালেদা জিয়ার সুস্থতা কামনায় জেলা যুবদলের দোয়া ও ইফতার মাহফিল বানিয়াচংয়ে অভ্যন্তরীণ বোরে ধান সংগ্রহের উদ্বোধন রিচি গ্রামে ট্রাক্টরের চাপায় স্কুল ছাত্র নিহত শায়েস্তাগঞ্জ নতুন ব্রীজে বাস উল্টে ১৫ জন যাত্রী আহত
বাহুবলের কলেজ ছাত্রকে কুপিয়ে ক্ষত-বিক্ষত করার ঘটনায় আটক শোয়েব চৌধুরী কারাগারে

বাহুবলের কলেজ ছাত্রকে কুপিয়ে ক্ষত-বিক্ষত করার ঘটনায় আটক শোয়েব চৌধুরী কারাগারে

স্টাফ রিপোর্টার ॥ বাহুবলের হামিদনগরে এক লন্ডন প্রবাসীর মার্কেট দখলে বাঁধা দেয়ায় হাসান চৌধুরী নামে এক কলেজ ছাত্রকে ছুরিকাঘাত ক্ষত-বিক্ষত করার ঘটনাকে কেন্দ্র করে আটকৃত শোয়েব চৌধুরীকে কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে। শোয়েব চৌধুরী ওই উপজেলার শইছা-শংকরপুর গ্রামের মরহুম কাইয়ূম চৌধুরীর ছেলে। গতকাল বেলা ২ টার দিকে বাহুবল থানা পুলিশ তাকে কারাগারে প্রেরণ করেছে। এ ঘটনায় আহত হাসানের পিতা আবুল সালেহ চৌধুরী বাদী হয়ে আটক শোয়েব চৌধুরী সহ কয়েকজনের বিরুদ্ধে বাহুবল থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। উল্লেখ্য, নবীগঞ্জ উপজেলা টুনাকান্দি গ্রামের বাসিন্দা লন্ডন প্রবাসী প্রাক্তন কমিউনিটি লিডার মরহুম হাজী মকসুদ আলী ১৯৭৮ সালে তার শ্বশুর বাহুবল শইছা-শংকরপুর গ্রামের মরহুম হাজী আব্দুস শহীদ চৌধুরী পরামর্শক্রমে বাহুবল উপজেলা সদরের হামিদনগরে জায়গা ক্রয় করে মার্কেট নির্মাণ করেন। মার্কেট নির্মানের পর তিনি দেখাশোনা করে আসছিলেন। ২০০৫ সালে হাজী মকসুদ আলী মারা যান। তার উত্তাধিকারী হিসেবে মার্কেটের মালিক হাজী মোবাশ্বির মোঃ মর্তুজ আলী পরবর্তীতে মার্কেটটি দেখাশোনা করে আসছিলেন। এক পর্যায়ে হাজী মর্তুজ আলী মার্কেটের ভাড়া উত্তোলনের জন্য তার খালাতো ভাই মুনশেদ আলীকে দায়িত্ব দেন। কিন্তু মার্কেটের ভাড়া উত্তোলন করতে গেলে তাকে বাঁধা প্রদান করেন মর্তুজ আলীর মামাতো ভাই শোয়েব চৌধুরী। এ নিয়ে শোয়েব চৌধুরী সাথে মুনশেদ আলীর বিরোধ সৃষ্টি হয়। এক পর্যায়ে শোয়েব চৌধুরী মুনশেদ আলীকে প্রাণনাশের হত্যারও হুমকি দেন এবং তার উপর হামলা চালায়। এতে মুনশেদ আলী হামলার স্বীকার হয়ে পরবর্তীতে আর মার্কেটের ভাড়া উত্তোলনে যাননি। এ সুযোগে শোয়েব চৌধুরী কিছু লোকের সহযোগিতা নিয়ে ২০১৩ সাল থেকে জোর পূর্বক ভাবে ওই মার্কেটের ভাড়া উত্তোলন করে আসছেন। সম্প্রতি মার্কেটের মালিক লন্ডন প্রবাসী মর্তুজ আলীর মেজ মামার ছেলে বাহুবল কলেজের একাদশ শ্রেণীর ছাত্র হাসান অন্যায়ের প্রতিবাদ করে শোয়েবের অবৈধ কাজে বাঁধা দেন। এ নিয়ে শোয়েবের সাথে হাসানের বিরোধ সৃষ্টি হয়। এই বিরোধের জের ধরে ৩ মাস পূর্বে হাসানের বাড়িতে গিয়ে তার মা-বাবাকে মারধোর করে আসে। এ বিষয়টি হাসানের মা-বাবা স্থানীয় মুরুব্বীয়ানদের অবগত করলে আরো বেপরোয়া হয়ে উঠে শোয়েব। এ প্রেক্ষিতে ৩ দিন পূর্বে শোয়েব দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে হাসানের বাড়িতে হামলা চালায়। এ সময় হাসানকে বাড়িতে না পেয়ে শোয়েব চৌধুরী হাসানের মাকে আবারও মারধোর করে। পরবর্তীতে হাসান বাহুবল থানায় গিয়ে শোয়েবের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগ দায়েরের খবর পেয়ে শোয়েব ক্ষিপ্ত হয়ে গতকাল রবিবার বিকেলে বাড়িতে যাওয়ার সময় হামিদনগর সিএনজি স্ট্যান্ড এলাকায় হাসানকে একা পেয়ে শোয়েব তার উপর ছুরিকাঘাত করতে থাকে। এ সময় স্থানীয় লোকজন এগিয়ে হাসানকে রক্ষা করে। পরে হাসানকে উদ্ধার করে হবিগঞ্জ জেলা সদর আধুনিক হাসপাতালে ভর্তি করে। এ বিষয়টি বাহুবল থানা পুলিশকে অবগত করা হলে এসআই অমল কুমার রায়ের নেতৃত্বে একদল পুলিশ অভিযান চালিয়ে শোয়েবকে তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান থেকে আটক করে। এ সময় শোয়েবের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান থেকে ছুরাটি উদ্ধার করা হয়। আটককৃত শোয়েবের বিরুদ্ধে অভিযোগসহ নানা অনিয়মের অভিযোগ করেছেন আহত হাসানের স্বজনরা। তারা শোয়েবের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নিয়ে মার্কেটটির প্রকৃত মালিক মরহুম হাজী মকসুদ আলীর সন্তান লন্ডন প্রবাসী মর্তুজ আলী কাছে হস্তান্তরের দাবি জানান।

 

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2021 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com