শনিবার, ০৮ মে ২০২১, ০৪:১৯ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
প্রসঙ্গ নিম্বর টাওয়ার ॥ ৫০ লাখ টাকা ঘুষ দাবি! নবীগঞ্জের ভূমি উপসহকারী কর্মকর্তা আবিদ আলী বরখাস্ত হবিগঞ্জে জমে উঠেছে ঈদ বাজার ॥ স্বাস্থ্যবিধি পালনে প্রশাসন কঠোর বাংলাদেশি-আমেরিকান দুই ভাই তীর্থ ও তন্ময়ের সাফল্য খোশ আমদেদ মাহে রমজান ॥ আজ ২৫ রমজান লোকড়ায় অর্থ সহায়তা বিতরণ করলেন এমপি আবু জাহির বানিয়াচংয়ের ঐতিহ্যবাহী ঠাকুরানী দিঘী রক্ষায় এলাকাবাসীর অভিযোগ ॥ ড্রেজার মেশিন জব্দ খালেদা জিয়ার সুস্থতা কামনায় জেলা যুবদলের দোয়া ও ইফতার মাহফিল বানিয়াচংয়ে অভ্যন্তরীণ বোরে ধান সংগ্রহের উদ্বোধন রিচি গ্রামে ট্রাক্টরের চাপায় স্কুল ছাত্র নিহত শায়েস্তাগঞ্জ নতুন ব্রীজে বাস উল্টে ১৫ জন যাত্রী আহত
ঠিকাদারের বিরুদ্ধে সুতাং বাজারের পুরাতন ব্রীজের রাড বিক্রির অভিযোগ ॥ ট্রাক বোঝাই রড আটক

ঠিকাদারের বিরুদ্ধে সুতাং বাজারের পুরাতন ব্রীজের রাড বিক্রির অভিযোগ ॥ ট্রাক বোঝাই রড আটক

জালাল উদ্দিন রুমী, শায়েস্তাগঞ্জ থেকে ॥ উপজেলার সুতাং বাজারের প্রাণ কেন্দ্রে অবস্থিত সুতাং ব্রিজ নির্মাণাধীন থাকা ঠিকাদারের বিরুদ্ধে ভেঙ্গে ফেলা পুরাতন ব্রিজের সব রড বিক্রি করে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে। শনিবার (১৭ এপ্রিল) সন্ধ্যার পর প্রায় ৭টন রড বিক্রির সময় রডসহ একটি ট্রাক আটক করেছে শায়েস্তাগঞ্জ থানা পুলিশ।
বিষয়টি নিয়ে এলাকায় বেশ ধুম্রজালের সৃষ্টি হয়েছে। চলছে ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনা।
ঠিকাদার গোলাম ফারুক জানান, ‘তিনি ঢাকা থেকে একটি প্রতিষ্ঠানের সাথে চুক্তি করে বুলডোজার এনেছেন। চুক্তি অনুযায়ী যারা ব্রিজ ভেঙ্গে দেবে তারাই অবশিষ্ট ইট, পাথর ও রড নিয়ে যাবে। এছাড়াও তাদের সাথে অবশিষ্ট চুক্তির টাকা তো আছেই।’
হবিগঞ্জ এলজিইডি অফিস থেকে পুরাতন রডের দুই লক্ষ বিরানব্বই হাজার টাকার একটি এস্টিমেট দেয়া হয়েছিল। কিন্তু ঠিকাদার গোলাম ফারুক উচ্ছিষ্ট মালামাল নিলামে না তুলে লুকিয়ে বিক্রি করে ফেলছেন বলে অভিযোগ উঠেছে।
জানা গেছে, শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলার সুতাং বাজার ঘেষা সুতাং নদীতে অবস্থিত সুতাং ব্রিজটি বিগত প্রায় দশ বছর ধরেই ছিল ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায়। গত বছর পৌনে ৫ কোটি টাকার টেন্ডারে সুতাং নদীর ব্রিজের নির্মাণ কাজ শুরু হলে করোনার প্রভাবে তা থমকে যায়। যদিও চলতি বছরের শুরু থেকে ব্রিজ ভাঙ্গার কাজ শুরু হয়।
প্রথমে ধীরগতিতে ব্রিজ ভাঙা শুরু হলেও এ বিষয়ে একাধিক সংবাদ প্রকাশের পর নির্মাণ কাজে গতি ফেরে। প্রথমে ঠিকাদার শ্রমিক দিয়ে হাঁতুড়ির সাহায্যে ব্রিজ ভাঙ্গার কাজ শুরু করেন। মাস দেড়েক এভাবে কাজ করার পর ঢাকা থেকে বুলডোজার এনে ব্রিজ পুরোপুরি ভাঙ্গার কাজ শেষ করেছেন। এ অবস্থায় এলাকার সাধারণ মানুষের চলাচলের জন্য ডায়াগেশন করা হয়েছে।
মোটামুটি ভাল গতিতে কাজ চলতে না চলতেই ঠিকাদারের বিরুদ্ধে উঠলো পুরাতন ব্রিজের রড বিক্রি করার অভিযোগ।
এ বিষয়ে প্রকল্পের (এসও) উপ সহকারি প্রকৌশলী মো. মাজেদুল ইসলাম জানান, ‘ঠিকাদার কিভাবে ব্রিজের মালামাল নিলামে না তুলে নিজেই বিক্রি করেছেন, সেটা আমার বোধগম্য নয়। আমরা ব্রিজের রডের একটি ইস্টিমেট ঠিকাদারকে বুঝিয়ে দিয়েছি। এ ব্যাপারে অনিয়ম হলে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ ব্যবস্থা গ্রহন করবে।’
তবে স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন সমবায় অধিদপ্তর (এলজিইডি) শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলার প্রকৌশলী মো. ফারুকের সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলে তাঁর নাম্বার বন্ধ পাওয়া যায়।
এ বিষয়ে শায়েস্তাগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা অজয় চন্দ্র দেব বলেন- ‘স্থানীয় লোকজনের অভিযোগের প্রেক্ষিতে সুতাং পুরাতন ব্রিজের রড বোঝাই ট্রাক আটক করে থানায় নিয়ে আসি। প্রকল্পের ঠিকাদার ও প্রকৌশলীকে বলা হয়েছে কাগজপত্র নিয়ে আসতে। তারা বলছে রবিবার কাগজপত্র নিয়ে আসবে।’

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2021 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com