বৃহস্পতিবার, ০৯ এপ্রিল ২০২০, ০৯:২৬ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
ডাঃ ফাতেমা খানম দশ টাকা কেজির চাল হাতে দিয়ে লোকজনকে ঘরে থাকার আহবান জানালেন এমপি আবু জাহির নবীগঞ্জের বেসরকারি চিকিৎসকদের পিপিই প্রদান করলেন ডাঃ মুশফিক চৌধুরী মাধবপুরে করোনা সতর্কতা ॥ সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে সরানো হল বাজার মাধবপুরে পিস্তলের গুলি বের হয়ে এএসআই আহত বানিয়াচঙ্গে গ্রামবাসীর উদ্যোগে ৩০টি গ্রাম লকডাউন “আপনার সুরক্ষা আপনার হাতে” এ স্লোগান এখন চা শ্রমিকের ঘরে ঘরে শ্রীমঙ্গলে করোনা ভাইরাস বিস্তার রোধে লোকসমাগম কমাতে কাঁচা বাজার স্থানান্তর হবিগঞ্জের বিভিন্ন স্থানে জনসচেতনতা বৃদ্ধিতে প্রচার চালিয়ে যাচ্ছেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রবিউল ইসলাম বানিয়াচংয়ে আইন অমান্য করে ব্যাবসা প্রতিষ্টান খোলা রাখায় অর্থদন্ড
নদী ও খালে কারখানার দুষিত বর্জ্য ॥ পরিবেশগত বিপর্যয়

নদী ও খালে কারখানার দুষিত বর্জ্য ॥ পরিবেশগত বিপর্যয়

স্টাফ রিপোর্টার ॥ ২৩ সেপ্টেম্বর বিশ্ব নদী দিবস উপলক্ষে গতকাল খোয়াই, কুশিয়ারা, সুতাং, সোনাই ও সংশ্লিষ্ট খাল পরিদর্শন করেছেন বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন (বাপা) হবিগঞ্জের নেতৃবৃন্দ ও খোয়াই রিভার ওয়াটারকিপার। এ সময় তারা নদী ও তীরবর্তী এলাকার করুণ চিত্র প্রত্যক্ষ করেন। বিভিন্ন নদী থেকে নির্বিচারে বালু উত্তোলন ও শিল্পবর্জ্য দূষণের চিত্র পরিলক্ষণ করেন। গত ২২ ও ২৩ সেপ্টেম্বর ২ দিনব্যাপী এই কার্যক্রম পরিচালিত হয়। পরিদর্শনে তারা দেখতে পান এবং স্থানীয় জনগন জানান, প্রশাসনের নির্দেশ উপেক্ষা করে মারঃ লিঃ নামক কোম্পানিটি তাদের কার্যক্রম চালু রেখেছে ফলে এলাকায় মারাত্মক দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছে এবং সংশ্লিষ্ট এক্তিয়ারপুর খালটির বিভিন্ন স্থান ভেঙ্গে পড়ছে। এছাড়া রঘুনন্দন পাহার থেকে উৎপন্ন খড়কীর খালটি দূষণের মাত্রা ছাড়িয়েছে। এলাকার বাসিন্দা আব্দুল কাইয়ুম জানান, ’৮০ দশকের শুরু থেকে এই খালটি দূষিত হয়ে পরেছে। এলাকার একটি প্রভাবশালী পরিবার বিভিন্ন কারখানা চালু করে খড়কীর খালে অপরিশোধিত বর্জ্য ফেলে খালটিকে পুরোপুরি দূষিত করে রেখেছে অথচ দেখার কেউ নেই। স্থানীয় লোকজন জানান কৃষিকাজে সেচ ব্যবহার করতে পারছেননা। ফলে কৃষি উৎপাদন হ্রাস পেয়েছে।
বাপা হবিগঞ্জের সাধারণ সম্পাদক ও খোয়াই রিভার ওয়াটারকিপার তোফাজ্জল সোহেল বলেন, শিল্পবর্জ্য দূষণের ফলে মাধবপুর ও হবিগঞ্জের বিভিন্ন এলাকায় ব্যাপক মানবিক ও পরিবেশ বিপর্যয় সৃষ্টি হয়েছে। সুতাং নদী ও বিভিন্ন খালের মাধ্যমে কারখানার দুষিত বর্জ্য ছড়িয়ে পড়ার ফলে কৃষিকাজ, মৎস আহরণসহ বিভিন্ন পরিবেশগত বিপর্যয় সৃষ্টি হয়েছে। হাঁস-মুরগী ও গবাদিপশু মারা যাচ্ছে এবং খালসহ আশপাশের হাওড়গুলো মৎসশূন্য হয়ে পড়েছে। এছাড়াও চর্মরোগ, শ^াসকষ্টসহ বিভিন্ন জটিল স্বাস্থ্যগত সমস্যায় গ্রামবাসী আক্রান্ত হচ্ছেন। কুচকুচে কালো বিষাক্ত পানির পানির জন্য মানুষ চর্মরোগসহ নানান ধরনের রোগে আক্রান্ত হচ্ছেন। সুতাং নদী অনুরূপ দূষণে দূষিত হয়ে আছে কয়েক বছর ধরে। শিল্পবর্জ্য দূষণের কবল থেকে এলাকাবাসী মুক্তি চায়। এছাড়া খোয়াই, সোনাই, কুশিয়ারা নদী থেকে নির্বিচারে বালু উত্তোলন নদীগুলোকে ঝুঁকির মধ্যে ফেলে দিয়েছে।
পরিদর্শনে ছিলেন, বাপা সহ-সভাপতি তাহমিনা বেগম গিনি, সাধারণ সম্পাদক ও খোয়াই রিভার ওয়াটারকিপার তোফাজ্জল সোহেল, যুগ্ম সম্পাদক এস এস আল-আমিন সুমন, সদস্য মাসুক আহমেদ প্রমুখ।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com