রবিবার, ২০ অক্টোবর ২০১৯, ০২:২৩ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
চুনারুঘাট সীমান্তের মাদক সম্রাট দুলন গ্রেফতার ॥ এলাকায় উল্লাস, মিষ্টি বিতরণ শহরের চাঞ্চাল্যকর মা ও মেয়েকে হত্যার দায়ে তাজুল গ্রেফতার হবিগঞ্জে কনফারেন্সে ড. বোরহান উদ্দিন ॥ ভারত উপমহাদেশে আ’লা হযরত ছিলেন আশির্বাদ স্বরূপ বাহুবলে দুই ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে চালক ও হেলপার নিহত খেলাধূলার উন্নয়নে আন্তরিকতা অব্যাহত থাকবে-এমপি আবু জাহির বাহুবলে ৭ কেজি গাঁজাসহ দুই মাদক ব্যবসায়ী গ্রেপ্তার বাংলাদেশ পুস্তক প্রকাশক ও বিক্রেতা সমিতি হবিগঞ্জ জেলা শাখার বার্ষিক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত ঈদে মিলাদুন্নবী (দঃ) উপলক্ষে বিশেষ পরামর্শ সভা অনুষ্টিত বানিয়াচঙ্গের এক গৃহবধূ সাপের কামড়ে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে বাইপাস সড়কে অবৈধভাবে আবারো জায়গা দখল চলছে
বানিয়াচংয়ে ভিখারীনির অপ্রাপ্ত বয়স্ক কন্যাকে পাশবিক নির্যাতন

বানিয়াচংয়ে ভিখারীনির অপ্রাপ্ত বয়স্ক কন্যাকে পাশবিক নির্যাতন

বানিয়াচং প্রতিনিধি ॥ বানিয়াচংয়ে এক ভিখারীনির অপ্রাপ্ত বয়স্ক সুন্দরী কন্যাকে কৌশলে প্রেমের ফাঁদে ফেলে পাশবিক নির্যাতন করেছে এক লম্পট। তালাবন্ধ ঘরে বন্দি রেখে টানা দুই সপ্তাহ কিশোরীকে পাশবিক নির্যাতন করে দত্তপাড়া মহল্লার অরুন সরকার (৩৫) নামের এক লম্পট। অবশেষে মঙ্গলবার বিকালে অরুনের এক বন্ধুর সহযোগিতায় বন্দিদশা থেকে গোপনে পালিয়ে আসে কিশোরী। বিদ্যাভূষণপাড়ার কিশোরীর মা বিরজা সরকার ন্যায় বিচার পাওয়ার আশায় সমাজপতির দ্বারে দ্বারে ঘুরছেন। মঙ্গলবার সরজমিনে গেলে স্থানীয়রা জানালেন, বিরজা সরকার স্বামী পরিত্যক্ত। কোনো সময় গৃহকর্মী ও কখনও ভিক্ষা করে সংসার চালান। জন্মনিবন্ধন ঘেঁটে দেখা গেছে, কিশোরীর বয়স ১৪ বছর। তার শরীরের লীলাফুলা জখমের চিহৃ দেখলে যে কেউর চোখে পানি ঝড়বে।
অভিযোগ, বুরুজপাড়ার সুমন নাম পরিচয় ব্যবহার করে মোবাইল ফোনে পরিচয় গড়ে তোলে অরুণ সরকার। কিছুদিন ফোনে কথা বলার এক পর্যায়ে সখ্যতা গড়ে উঠে। অরুনের অনুরোধে সাড়া দিয়ে ১১ জুন সন্ধ্যার দিকে বাড়ির সামনে রাস্তার পাশে দেখা করতে যায় কিশোরী। তখন দেখে দত্তপাড়ার অরুণ সরকার দাঁড়িয়ে আছে। তার সাথে ছিলেন অরুনের বন্ধু একই গ্রামের অভিনাশ সরকার। এ সময় কিশোরী মুখ ফিরিয়ে চলে যেতে চাইলে অরুন ও তার বন্ধু অভিনাশ কিশোরীকে ফুসলিয়ে ইজিবাইকে তুলে নিয়ে এক বাড়িতে রাত্রিযাপন করে। কয়েকদিন হবিগঞ্জ শহরের এক বাসায় থাকার পর অরুন তার বাড়িতে নিয়ে আসে। তালাবন্ধ ঘরে কিশোরীকে আটকে রাখে। কারণে-অকারণে পাশবিক ও শারীরিক নির্যাতন চালিয়েছে। অরুনের বাড়িতে নিয়ে আসার পর কিশোরী দেখে তার আরেকজন স্ত্রী রয়েছে।
মঙ্গলবার অরুনের বন্ধু অভিনাশের সহায়তায় বন্দিদশা থেকে পোপনে পালিয়ে আসে কিশোরী। তার শরীরে নির্যাতনের চিহৃ রয়েছে। মঙ্গলবার বিকালে হাসপাতালের জরুরী বিভাগে চিকিৎসা নিয়েছে। তবে অর্থের অভাবে ঠিকমত তার চিকিৎসা করতে পারছেন না ভিখারীনি বিরজা সরকার। তিনি জানান, মেয়েকে জোরপূর্বক তুলে নিয়ে গেলেও আর্থিক অস্বচ্ছলতার কারণে আইনের আশ্রয় নেননি। মেয়েকে নির্যাতনের বিচার চেয়ে সমাজপতিদের দ্বারে দ্বারে ঘুরছেন।
মঙ্গলবার উত্তর-পশ্চিম ইউনিয়ন পরিষদ সাবেক চেয়ারম্যান হায়দারুজ্জামান খান ধন মিয়ার কাছে গিয়ে তার অপ্রাপ্ত বয়স্ক মেয়েকে নির্যাতনের কথা বলেছেন। ধন মিয়া থানা পুলিশে যাওয়ার পরামর্শ দেন।
এদিকে বুধবার দুপুরে কিশোরীকে সঙ্গে নিয়ে থানায় যান কিশোরীর মা ও তার কাকী। ওসি মোজাম্মেল হক থানার কাজে বিথঙ্গল ফাঁড়িতে ছিলেন। এ সময় থানার ডিউটি অফিসার এসআই কানন দাশের কাছে গেলে তাদেরকে থানার গেইটের সামনে এক মোহরার কাছে পাঠান অভিযোগপত্র লেখার জন্য। দরখাস্ত লেখার মজুরি দেওয়ার মতো সার্মত্য ছিল না কিশোরীর মায়ের। এ সময় সঙ্গে থাকা তার এক কাকীর কাছ থেকে ২৫০ টাকা কর্জ নিয়ে মোহরার মাধ্যমে দরখাস্ত লেখান তারা।
বানিয়াচং থানার ডিউটি অফিসার এসআই কাকন দাশ জানান, এ প্রসঙ্গে অরুন সরকারসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ পাওয়া গেছে।
অভিযুক্ত অরুন সরকারের সঙ্গে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করলে তিনি এ প্রতিনিধিকে জানান, জোর করে নয়, প্রেমের টানে এসেছে। পরে ধর্মীয় রীতি অনুযায়ী কিশোরীকে বিয়ে করেছেন। ইউপি সদস্যসহ পাড়ার মরুব্বিরা বিয়ে পড়ানোর সময় ছিলেন। এ ব্যাপারে ওসি মোজ্জাম্মেল হক জানান, অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com