মঙ্গলবার, ০২ Jun ২০২০, ০৪:৫৭ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
এমপি আবু জাহির এর প্রচেষ্টায় হবিগঞ্জে হতে যাচ্ছে করোনা পরীক্ষার ল্যাব জেলা গোয়েন্দা পুলিশের অভিযানে বিপুল পরিমাণ ইয়াবাসহ ১ মাদক ব্যবসায়ী আটক নবীগঞ্জে মাসিক আইনশৃংঙ্খলা কমিটির সভা অনুষ্ঠিত লাখাইয়ে পরীক্ষায় ফেল করায় কিশোরী আত্মহত্যা করোনায় চুনারুঘাটে সেলুন ব্যবসায়ীরা দিশেহারা নবীগঞ্জে এসএসসি পরীক্ষায় পাশের হার ৭৯.৩১% জিপিএ-৫ পেয়েছে ৭৬ জন ভারতীয় নাগরিকদের হাতে নিহত বাংলাদেশীর লাশ ৬ দিন পর বিজিবির কাছে হস্তান্তর হবিগঞ্জে দুই গ্রামবাসির সংঘর্ষে আহত ৫০ নবীগঞ্জে পুলিশের হস্তক্ষেপে সংঘাত থেকে রক্ষা পেল গ্রামবাসী বানিয়াচঙ্গে কিশোরীকে ধর্ষণের চেষ্টা ॥ লম্পট গ্রেফতার
মাধবপুরে সাহেদা খুনের সাথে জড়িত হারুন গ্রেপ্তার ॥ আদালতে স্বীকারোক্তি

মাধবপুরে সাহেদা খুনের সাথে জড়িত হারুন গ্রেপ্তার ॥ আদালতে স্বীকারোক্তি

মোঃ রিফাত উদ্দিন, মাধবপুর থেকে ॥ মাধবপুর উপজেলার খড়কি গ্রামের সাহেদা খুনের ঘটনায় সাহেদার ভাই আব্দুল মান্নান বাদি হয়ে শনিবার রাতে মাধবপুর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। ওই মামলায় হারুন মিয়া (৩০) নামে এক ব্যাক্তিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। রবিবার সকালে পুলিশ খড়কি গ্রাম থেকে তাকে গ্রেফতার করে। সে ওই গ্রামের আহাদ মিয়া ছেলে। রবিবার হারুনকে আদালতে হাজির করা হলে সে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি প্রদান করে। হবিগঞ্জ সিনিয়র জুডিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট তৌহিদুল ইসলামের আদালতের হারুন হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে জবানবন্দি প্রদান করে। পরে বিচারক তাকে জেল-হাজতে প্রেরন করেন।
মামলায় উল্লেখ করা হয়, গত ২৫ জানুয়ারী সাহেদা তার প্রতিবেশী কয়েকজন মহিলাকে নিয়ে পার্শ¦বর্তী নাসিরনগর উপজেলার খান্দুরা দরবার শরীফের ওরসে যান। ২৬ জানুয়ারী সকালে সাহেদার সঙ্গীরা ফিরে এলেও সাহেদা ফিরে আসেনি। সাহেদার ভাই আব্দুল মান্নান ওরস থেকে ফিরে আসা মহিলাদের কাছে সাহেদার খোজ খবর জানতে চাইলে তারা জানান ২৫ জানুয়ারী মধ্যরাতে হারুন ফোন করে সাহেদাকে ওরসের কাফেলা থেকে বের করে নেয়। এরপর থেকে সাহেদার সঙ্গে তাদের যোগাযোগ হয়নি।
পরদিন ২৬ জানুয়ারী খড়কি ও ছাতিয়াইনের মধ্যবর্তী স্থানে বগজান নদীতে সাহেদার লাশ ভাসতে দেখে স্থানীয় লোকজন খবর দিলে তার ভাই এটি সাহেদার লাশ হিসাবে শনাক্ত করে।
এর দেড় মাস আগে একই গ্রামের ইউনুছ মিয়ার ছেলে আহাম্মদ এর সঙ্গে হবিগঞ্জ কাজী অফিসে সাহেদার বিয়ে হয়। বিয়েতে যৌতুক বাবদ সাহেদা ২৯ হাজার ৬শ টাকা দেয় আহাম্মদকে। এস.আই আবুল কাশেম জানান, গ্রেফতারকৃত হারুন মিয়ার নিকট থেকে হত্যাকান্ড সম্পর্কে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাওয়া গেছে। হবিগঞ্জের বিচারিক আদালতে হারুন হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছে। তদন্তের স্বার্থে এখন সব বলা যাচ্ছে না।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com