সোমবার, ০১ Jun ২০২০, ১১:৫১ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
এমপি আবু জাহির এর প্রচেষ্টায় হবিগঞ্জে হতে যাচ্ছে করোনা পরীক্ষার ল্যাব জেলা গোয়েন্দা পুলিশের অভিযানে বিপুল পরিমাণ ইয়াবাসহ ১ মাদক ব্যবসায়ী আটক নবীগঞ্জে মাসিক আইনশৃংঙ্খলা কমিটির সভা অনুষ্ঠিত লাখাইয়ে পরীক্ষায় ফেল করায় কিশোরী আত্মহত্যা করোনায় চুনারুঘাটে সেলুন ব্যবসায়ীরা দিশেহারা নবীগঞ্জে এসএসসি পরীক্ষায় পাশের হার ৭৯.৩১% জিপিএ-৫ পেয়েছে ৭৬ জন ভারতীয় নাগরিকদের হাতে নিহত বাংলাদেশীর লাশ ৬ দিন পর বিজিবির কাছে হস্তান্তর হবিগঞ্জে দুই গ্রামবাসির সংঘর্ষে আহত ৫০ নবীগঞ্জে পুলিশের হস্তক্ষেপে সংঘাত থেকে রক্ষা পেল গ্রামবাসী বানিয়াচঙ্গে কিশোরীকে ধর্ষণের চেষ্টা ॥ লম্পট গ্রেফতার
লাখাই যুবদলের কমিটিতে ত্যাগী নেতাকর্মীরা বাদ পড়ায় ক্ষোভ

লাখাই যুবদলের কমিটিতে ত্যাগী নেতাকর্মীরা বাদ পড়ায় ক্ষোভ

স্টাফ রিপোর্টার ॥ লাখাই উপজেলা যুবদলের নবগঠিত আহবায়ক কমিটিতে স্থান না পেয়ে তৃণমূল নেতাকর্মী ও শুভাকাংখিদের মাঝে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। এ কমিটিকে জেলা যুবদল অনুমোদন দিয়েছে। সম্প্রতি লাখাই উপজেলা যুবদলের মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটি বিলুপ্ত করে একটি আহবায়ক কমিটি গঠন করা হয়। জেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক ও সাংগঠনিক সম্পাদকের সুপারিশের ভিত্তিতে গত ২২ আগস্ট জেলা যুবদলের সভাপতি এ কমিটি অনুমোদন দেন। ৩১ সদস্য এ কমিটিতে উপজেলার অনেক ত্যাগী কর্মী স্থান না পেয়ে বঞ্চিত হয়েছেন। যে ক্ষোভ অনেকে নিরবেই সহ্য করে নিয়েছেন। এ দিকে উপজেলা যুবদলের নতুন আহবায়ক কমিটি গঠনের পর নিয়মতান্ত্রিক ভাবে উপজেলার ৬টি ইউনিয়নের কমিটি বিলুপ্ত ঘোষনা করা হয়। যদিও বামৈয়ে অনুষ্টিত যুবদলে এ সভায় অনেকেই উপস্থিত ছিলেন না। এছাড়া ৬টি ইউনিয়নের সদ্য বিলুপ্ত ৭১ সদস্য সাবেক কমিটির অনেক ত্যাগী কর্মী রয়েছেন যারা বিগত দিনে আন্দোলন সংগ্রামে গুরুত্বপূর্ন ভূমিকা পালন করে থাকেন। এ রকম কর্মীরা সদস্য পদ থেকে বঞ্চিত হওয়ায় এলাকায় সমালোচনার ঝড় ওঠেছে। ইউনিয়ন ভিত্তিক লাখাইয়ে ৫জন, মুড়াকরিতে ৩জন, মুড়িয়াউকে ৬জন, বামৈয়ে ১৩জন, করাবে ২জন ও বুল্লা ইউনিয়নে ২জন এ কমিটিতে সদস্যপদ লাভ করেছেন। সদস্য নির্বাচনের ক্ষেত্রে এ ধরনের বৈষম্য থাকায় আগামী সরকার বিরোধী আন্দোলন সংগ্রামে বাদ পরা কর্মীরা দায়িত্ব পালন করতে নিরুৎসাহিত হতে পারেন বলে অনেকেই মন্তব্য করেন। এছাড়া যুবদলের এ কমিটি আন্দোলন সংগামে কতটুকু ভূমিকা পালন করতে পারবে তা-ও ভাবার বিষয় বলে শুভাকাংখি সমর্থকরা মনে করেন। নামপ্রকাশে অনিচ্ছুক অনেক নেতা কর্মী এ প্রতিবেদককে জানান কমিটিতে স্থান পাওয়া অনেকেই নিজ এলাকায় না থেকে ঢাকাও দেশের বিভিন্ন স্থানে অবস্থান নিয়ে ব্যবসা বাণিজ্য করছেন। তাদেরকে আদৌ দলের কোন কর্মসূচীতে দেখা যায়নি। লাখাই উপজেলার রাজনীতির কেন্দ্রবিন্দু হিসেবে পরিচিত বুল্লাবাজার একটি গুরুত্বপূর্ণ স্থান। যেখানে সিংহগ্রাম, বুল্লা, মনতৈল, রাঢ়িশাল, করাব ও গুনিপুরসহ ওই এলাকার কর্মীরা হরতাল পিকেটিংয়ে দায়িত্ব পালন করেন। যেকারনে সদস্য বিবেচনায় এ এলাকার কর্মীদের অন্যান্য এলাকা হতে বেশি সদস্য স্থান পাওয়া প্রয়োজন ছিল বলে মনে করেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা। এদিকে মুড়াকরিও লাখাই বটতলা এলাকায় যুবদলের রাজনীতিতে সম্পৃক্ত অনেক কর্মী রয়েছেন যারা কমিটিতে স্থান পেলে যুবদলের কার্যক্রম চাঙ্গা হত বলে এমন ধারনা অনেকেরই। উপজেলার বামৈ ইউনিয়নের বামৈ বড় বাজার ও কালাউক সদর ভাদিকারা রাস্তার পয়েন্ট গুরুত্বপূর্ণ হলেও সদস্য নির্বাচনের ক্ষেত্রে অন্যান্য গুরুত্বপূর্ন এলাকা থেকে এই ইউনিয়নের ১৩জন সদস্য কমিটিতে স্থান পান। প্রসঙ্গত উপজেলা যুবদলের আহবায়ক বামৈ ইউনিয়নের হওয়ায় তিনি তার ইউনিয়নের সদস্য ছাড়াও এ কমিটিতে পছন্দের লোককে সদস্য পদে অন্তর্ভুক্ত করেন। এ ব্যাপারে না প্রকাশ না করার শর্তে উপজেলা যুবদলের একজন যুগ্ম আহবায়ক জানান, কমিটিতে সদস্য পদ লাভ করা অনেকেই এলাকায় থাকেন না। তারা দেশের বিভিন্ন স্থানে অবস্থান নিয়ে ব্যবসা বাণিজ্য করছে। অমাবস্যার চাঁদের মত মাঝে মধ্যে দেখা গেলেও হরতাল পিকেটিংয়ে তাদেরকে কখনো দেখা যায়নি। এ ছাড়া বুল্লা বাজার একটি গুরুত্বপূর্ণ স্থান হিসেবে ওই অঞ্চলের বেশি সদস্য কমিটিতে অন্তর্ভূক্ত করা প্রয়োজন ছিল বলে তিনি এ মন্তব্যও করেন। যে কারনে বাদ পড়া বঞ্চিত ত্যাগী নেতা কর্মীসহ তৃণমূল নেতাকর্মীদের মাঝে চরম ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com