শনিবার, ৩১ অক্টোবর ২০২০, ১০:১৭ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
পিআইবি’র উদ্যোগে হবিগঞ্জ প্রেসক্লাবে ৩ ধাপে ৮দিন ব্যাপী সাংবাদিক কর্মশালা শুরু নবীগঞ্জ ও বানিয়াচঙ্গে এক দিনে বিষপানে ২ জনের আত্মহত্যা নবীগঞ্জে জগলু হত্যাকান্ড ॥ ২৫ বছর পর ১ জনের যাবজ্জীবন কারাদন্ড মুসলিম উম্মা’র বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করেছে ফ্রান্সÑমাওঃ আবু ছালেহ্ ছাদী হবিগঞ্জে নতুন করে ৩ জন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হবিগঞ্জ বিজ্ঞান মেলায় ২য় ও ৩য় স্থান অর্জন করেছে উদ্ভাবনী বিজ্ঞান ক্লাব শায়েস্তাগঞ্জে স্কুলছাত্রীর বিয়ের আয়োজন পুলিশ দেখে হয়ে গেল মিলাদ অনুষ্ঠান চুনারুঘাটে বাথরুমের পানির বালতিতে পড়ে শিশুর মৃত্যু হবিগঞ্জে ঈদে মিলাদুন্নবী (দ:) কনফারেন্স সমাপ্ত ৮ মাস পর খুলছে চুনারুঘাটের সাতছড়ি জাতীয় উদ্যান
নবীগঞ্জে এরা বরাক নদীর জাইকার প্রকল্প কমিটি গঠনে অনিয়মের অভিযোগ

নবীগঞ্জে এরা বরাক নদীর জাইকার প্রকল্প কমিটি গঠনে অনিয়মের অভিযোগ

নবীগঞ্জ প্রতিনিধি ॥ নবীগঞ্জ উপজেলার জাইকা প্রকল্পের এরা বরাক নদী পানি নিস্কাশন সমবায় সমিতি গঠনে অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। প্রশাসনের কাছে এলাকাবাসী লিখিত অভিযোগ প্রদান করেছে। সমবায় অফিস ও প্রকৌশল অফিস একে অপরের প্রতি ঠেলাঠেলি করছে। কেউ দায়িত্ব নিয়ে কথা বলছে না। এতে বিভ্রান্তিতে পড়েছে এলাকাবাসী। অবশেষে হতাশা গ্রস্থ এলাকাবাসী স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রীর কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। জানা যায়, নবীগঞ্জ উপজেলার আউশকান্দি ইউনিয়নে এরা বরাক নদী শাসন এলাকায় জাপানিজ প্রকল্প সংস্থা জাইকা কাজ করার জন্য স্থানীয় চেয়ারম্যান মুহিবুর রহমান হারুন কে দায়িত্ব প্রদান করা হয়। নদীর তীরবর্তী এলাকার গ্রামের বাসিন্দাদের নিয়ে একটি সমিতি গঠনের জন্য। কিন্তু চেয়ারম্যান তার আপন বড় ভাই হাজী আতাউর রহমানকে সভাপতি করে একটি কমিটি গঠন করেন। বিষয়টি এলাকায় জানাজানি হলে জনসাধারনের মধ্যে তীব্র প্রতিক্রিয়া দেখা দেয়। নদীর পাড়ের বাসিন্দা দক্ষিন দৌলতপুর, আমুকোনা, উমরপুর, বেতাপুর, উত্তর দৌলতপুর, সিট ফরিদপুর, মিঠাপুর, আউশকান্দি, আলমপুর, আজলপুর নোয়াহাটি, ফরিদপুর, কেশবচর, মিনাজপুর আংশিক, জালালপুর গ্রামের লোকজন হবিগঞ্জ জেলা প্রশাসক, নির্বাহী প্রকৌশলী এলজিইডি হবিগঞ্জ ও সমবায় অফিসে লিখিত অভিযোগ করেন। বিষয়টি নিয়ে এলাকার জনসাধারনের মধ্যে তীব্র প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে। এবিষয়ে জাইকা প্রকল্পের হবিগঞ্জ অফিসের প্রধান নাজমুল ইসলাম বলেন, আমরা কিছু করার নেই বিষয়টি এলজিইডির নির্বাহী প্রকৌশলী অফিস নিয়ন্ত্রণ করে। তারা এ বিষয়ে ব্যবস্থা নিবেন। হবিগঞ্জ এলজিইডির প্রকৌশলী মাজহার ইবনে মোবারক বলেন, আমাদের কাছে অভিযোগ এসেছে বিষয়টি আমরা দেখবো। এখনো অর্থ আসে নাই। তবে সমিতির বিষয়টি দেখবে সমবায় অফিস। যেহেতু অভিযোগ উঠেছে তা খতিয়ে দেখা হবে। নবীগঞ্জ উপজেলা সমবায় কর্মকর্তা হাফিজুল ইসলাম জানান, আমরা সমিতি গঠনের বিষয়ে কিছু জানিনা। চেয়ারম্যান সাহেব দাওয়াত করেছিলেন তাই আমরা গিয়ে ছিলাম। এখনোও সমিতির অনুমোদন হয়নি। এটা এলজিইডি প্রকৌশলী অফিস বিষয়টি দেখবেন। তারা সমিতির নামে অর্থ ছাড় দেবেন। এখানে আমাদের কিছু করার নেই। এব্যাপারে ইউপি চেয়ারম্যান মুহিবুর রহমান হারুন বলেন, এব্যাপারে আমার কোন বক্তব্য নেই।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com