বৃহস্পতিবার, ১২ ডিসেম্বর ২০১৯, ০৮:১৮ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
হবিগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের ত্রি-বার্ষিক কাউন্সিল ॥ এমপি আবু জাহির সভাপতি আলমগীর চৌধুরী সম্পাদক হবিগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের সম্মেলনে ওবায়দুল কাদের এমপি ॥ আওয়ামীলীগে কোন দূষিত রক্ত থাকতে পারবে না সাতছড়ি উদ্যানে ঘুরতে গিয়ে গণ ধর্ষণের শিকার প্রেমিকা ॥ ৩ লম্পট আটক সর্বোচ্চ ভ্যাট পরিশোধকারী হিসেবে ক্রেস্ট ও সম্মাননা স্মারক পেলেন মেসার্স শরীফ এমপি আবু জাহিরের কৃতজ্ঞতা প্রকাশ নবীগঞ্জে সিএনজি স্ট্যান্ড নিয়ে সংঘর্ষে আহত ২৫ নবীগঞ্জে আনোয়ারখালী খাল পানি ব্যবস্থাপনা সমিতির নির্বাচনে প্রার্থীদের মনোনয়ন দাখিল নবীগঞ্জে জাতীয় পার্টির কর্মী সভায় দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে জাপা নেতা মুরাদ আহমদ বহিস্কার যুক্তরাষ্ট্রের নিউজার্সিতে বন্দুকধারীর গুলিতে পুলিশসহ নিহত ৬ ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের দরগা গেইটে ট্রাক চাপায় শিশু নিহত
জেলা আওয়ামীলীগের বর্ধিত সভায় আহমদ হোসেন ॥ আমাদের যাতে রাজপথে যেতে না হয় সে জন্য মিলেমিলে কাজ করতে হবে

জেলা আওয়ামীলীগের বর্ধিত সভায় আহমদ হোসেন ॥ আমাদের যাতে রাজপথে যেতে না হয় সে জন্য মিলেমিলে কাজ করতে হবে

স্টাফ রিপোর্টার ॥ বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন বলেছেন, বিএনপি হাহাকার পার্টি, চাটুকার ও সন্ত্রাসীদের দল। তারা পাকিস্তানপন্থী। বুয়েটে আবরার হত্যার পর দেড় মাসের মাথায় অভিযোগপত্র দেওয়া হয়েছে, এটি হলো শেখ হাসিনার সুশাসনের নমুনা। অপরদিকে বিএনপি’র সময়ে সনি হত্যাকান্ডের অভিযোগপত্র ও বিচার হয়নি, এটি হল বিএনপির দুঃশাসনের নমুনা। বিএনপি এখন চিঠি দেয় ভারতের সাথে সরকার কি কি চুক্তি করেছে তা জানার জন্য। এই চুক্তির বিষয়ে আমরা বিএনপিকে কিছু জানানোর প্রয়োজন মনে করিনা। আমরা জানাব জনগনকে। প্রধানমন্ত্রী সকল চুক্তি ও বিদেশ সফর নিয়ে প্রেস ব্রিফিং এই সব কিছু বলেন। ভারতে সাথে যে সকল চুক্তি হয়েছে তার সবকয়টি করেছেন শেখ হাসিনা। আর কয়েকটি চুক্তি করেছিলেন বঙ্গবন্ধু। খালেদা জিয়া যখন প্রধানমন্ত্রী হিসাবে ভারত সফর করে দেশে ফিরেছিলেন তখন সাংবাদিকরা গঙ্গা চুক্তির বিষয় জানতে চাইলে তিনি বলেছিলেন বিষয়টি তিনি ভুলে গিয়েছিলেন। তারা নিজেরা কিছু করতে পারে না। এখনও আওয়ামীলীগ এর দোষ বের করার চেষ্টা করে।
তিনি সোমবার হবিগঞ্জে জেলা শিল্পকলা একাডেমী অডিটোরিয়ামে জেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত বিশেষ বর্ধিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথা বলেন।
জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এডঃ মোঃ আবু জাহির এমপি‘র সভাপতিত্বে সভায় অন্যান্যের মাঝে বক্তৃতা করেন, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এডঃ আব্দুল মজিদ খান এমপি, গাজী মোঃ শাহনওয়াজ এমপি, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ডা. মুশফিক হুসেন চৌধুরী, আওয়ামীলীগ জাতীয় কমিটির সদস্য শহীদ উদ্দিন চৌধুরী, জেলা আওয়ামীলীগ সহ-সভাপতি এডঃ সিরাজুল হক চৌধুরী, আরব আলী, শেখ সামছুল হক, শরীফ উল্ল্যা, এডঃ আলমগীর চৌধুরী, মুকুল আচার্য্য, জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম-সাধারন সম্পাদক এডঃ সালেহ আহমদ, এডঃ লুৎফুর রহমান তালুকদার, মর্তুজা হাসান, সাংগঠনিক সম্পাদক মশিউর রহমান শামীম ও মর্তুজ আলী প্রমুক নেতৃবৃন্দ।
সভায় জেলা আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ সহ ১০টি সাংগঠনিক উপজেলা এবং ৭৮টি ইউনয়নের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকগণ উপস্থিত ছিলেন।
প্রধান অতিথির বক্তৃতায় আহমদ হোসেন বলেন, আওয়ামীলীগ পর পর তিনবার ক্ষমতায় আছে। আমাদেরকে আর যাতে রাজপথে যেতে না হয় তার জন্য মিলেমিলে কাজ করতে হবে। মনে রাখতে হবে বিএনপি-জামায়াত আবার ক্ষমতায় আসলে আমাদের লক্ষ লক্ষ নেতাকর্মীকে হত্যা করবে। তবে খালেদা আর প্রধানমন্ত্রী হতে পারবে না ইনশাল্লাহ। এই দেশের জন্য শেখ হাসিনার বিকল্প নেই।
তিনি সরকারের শুদ্ধি অভিযানের বিষয়ে বলেন, অনেকেই বলেন কম্বলের রুম বাছলে কম্বল খালি হয়ে যাবে। কিন্তু আমাদের কম্বলের রুম ঠিকই থাকবে। কারন আমরা কম্বলের ময়লা ওয়াশ করছি। আওয়ামীলীগে সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজ, জঙ্গীবাদ এর স্থান নেই।
তিনি জেলা আওয়ামীলীগের নির্ধারিত সম্মেলনের তারিখ ৬ ডিসেম্বর থেকে পরিবর্তন করে ১০ তারিখ পুর্ননির্ধারনের ঘোষনা দেন। জেলার সম্মেলনের পর সকল উপজেলা ও ইউনিয়নের কমিটি পূর্ণগঠন হবে বলে জানান। তিনি বলেন, সারা দেশের সকল জেলার মাঝে আওয়ামীলীগের নেতৃত্বের জন্য মডেল হল হবিগঞ্জ জেলা। এখানে সংগঠন চলে গণতান্ত্রিকভাবে। এখানকার নেতারা দল বান্ধব, সাংগঠনিক, সাহসী এবং নেতাকর্মীদেরকে ভালবাসেন।
বর্ধিত সভার শুরুতে দলের মরহুম নেতৃবৃন্দের স্মরণে এক মিনিট দাড়িয়ে নিরবতা পালন করা হয় এবং মোনাজাত করা হয়।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com