শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪, ১০:৩৪ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম ::
বাউসা শাহ্ বাড়ি ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে ৮ শতাধিক অসহায় ও হতদরিদ্র পরিবারের মাঝে নতুন শাড়ি, লুঙ্গি ও থ্রি-পিস বিতরণ নাজিরপুরে কমিউনিটি ইনিশিয়েটিভ সোসাইটি’র উদ্যোগে ”নারীর ক্ষমতায়ন ও সক্ষমতা বৃদ্ধির প্রশিক্ষন” প্রদান শায়েস্তাগঞ্জে ১২০ পিস ইয়াবাসহ বিক্রেতা আটক নিউইয়র্কে বাহুবল এসোসিয়েশন অব ইউএসএ’র নয়া কমিটি গঠন ॥ সভাপতি দেলোয়ার সাধারণ সম্পাদক মকছুদ শহরে জলাবদ্ধতা ॥ থানা-সার্কিট হাউজসহ বিভিন্ন অফিসে পানি শিক্ষিকা রিবন রূপা দাশের মৃত্যুর রহস্য উদ্ঘাটন ও অভিযুক্তদের গ্রেফতারের দাবীতে মানববন্ধন ঈদে বাড়ী-বাড়ী বর্জ্য সংগ্রহ কার্যক্রমকে আরো জোরদার করতে হবিগঞ্জ পৌর কর্তৃপক্ষের মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হাসপাতালের প্রধান ফটকসহ ফুটপাতের দোকান উচ্ছেদ সিগন্যাল অমান্য করে ক্রসিংয়ে প্রবেশ ॥ লস্করপুরে ট্রেনের ধাক্কায় সিএনজি যাত্রী নিহত বানিয়াচং হাসপাতালে সরকারি নিয়ম ভঙ্গ করে রোগীদের কাছ থেকে অতিরিক্ত অর্থ আদায়

খোশ আমদেদ মাহে রমজান

  • আপডেট টাইম রবিবার, ২৬ মার্চ, ২০২৩
  • ১১২ বা পড়া হয়েছে

স্টাফ রিপোর্টার ॥ আজ ৩ রমজান। রমজান মাসে যারা পীড়িত, অতিবৃদ্ধ, যাদের দৈহিক ভীষণ দুর্বলতার কারণে সিয়াম পালন করা খুবই কষ্টদায়ক হয়ে যায়, যারা সফরে থাকার কারণে রমজানে সিয়াম পালন করতে পারে না তাদের জন্য কাযা, কাফফারা, ফিদইয়া ইত্যাদি বদলা ব্যবস্থা স্থির করে শরী’আতে সুনির্দিষ্ট বিধি-ব্যবস্থা রয়েছে। কুরআন মজীদে ইরশাদ হয়েছেঃ তোমাদের মধ্যে কেউ পীড়িত হলে বা সফরে থাকলে অন্য সময় সংখ্যা পূরণ করে নিতে হবে। এ (সিয়াম) যাদেরকে সাতিশয় কষ্ট দেয় তাদের কর্তব্য এর পরিবর্তে ফিদ্ইয়াণ্ডএকজন মিসকীনকে অন্নদান করা। যদি কেউ স্বতঃস্ফূর্তভাবে সৎ কাজ করে, তবে সেটা তার পক্ষে অধিকতর কল্যাণকর। (সূরা বাক্বারাঃ আয়াত ১৮৪)। তোমাদের মধ্যে যারা এই মাস (রমাদান মাস) পাবে তারা যেনো এই মাসে সিয়াম পালন করে। আর কেউ পীড়িত থাকলে কিম্বা সফরে থাকলে অন্য সময় এই সংখ্যা পূরণ করবে। আল্লাহ তোমাদের জন্য যেটা সহজ সেটাই চান এবং যা তোমাদের জন্য ক্লেশকর তা চান না এজন্য যে, তোমরা সংখ্যা পূরণ করবে। (সূরা বাক্বারা: আয়াত ১৮৫)।
এই দু’আ পাঠ শেষে মুনাজাত করা হয় ঃ আল্লাহুম্মা ইন্না নাসআলুকাল জান্নাতা ওয়া নাউযুবিকা মিনান্নারি ইয়া খালিকাল জান্নাতি ওয়ান্নারি বিরহমাতিকা ইয়া আযীযু ইয়া গাফফারু ইয়া কারীমু ইয়া সাত্তারু ইয়া রহীমু ইয়া জাব্বারু ইয়া খালিকু ইয়া বাররু। আল্লাহুম্মা আজিরনা মানিন্নারি ইয়া মুজীরু ইয়া মুজীরু ইয়া মুজীরু বিরহমাতিকা ইয়া আরহামার রহিমীন। তারাবীহর সালাত প্রসঙ্গে প্রিয় নবী হযরত মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলায়হি ওয়াসাল্লাম বলেছেনঃ যে ব্যক্তি ঈমানের সঙ্গে সওয়াব লাভের আশায় রমাদানে দন্ডায়মান হবে (অর্থাৎ তারাবীহর সালাত আদায় করবে) তার পূর্ববর্তী গোনাহসমূহ ক্ষমা করে দেয়া হবে। (বুখারী শরীফ)।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2013-2021 HabiganjExpress.Com
Design and Development BY ThemesBazar.Com