মঙ্গলবার, ২৮ জুন ২০২২, ০৭:৫৯ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম ::
লাখাইয়ে ২ ডাকাতকে আটক করে পুলিশে দিয়েছে জনতা মাধবপুরে ৪০ লাখ টাকার ভারতীয় চুলসহ গ্রেপ্তার ২ শায়েস্তাগঞ্জে রেলের জায়গা দখলের অভিযোগে সাবেক কাউন্সিলরসহ ৩ জন আটক নবীগঞ্জে বন্যার্তদের পাশে হবিগঞ্জের পুলিশ সুপার এসএম মুরাদ আলি হবিগঞ্জ প্রেসক্লাবের অর্ধবার্ষিক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত নবীগঞ্জের বন্যার্ত পরিবারের মধ্যে যুক্তরাজ্য বিএনপি নেতা তানহা চৌধুরী তালহা’র পক্ষ থেকে ত্রান সামগ্রী বিতরণ অব্যাহত হবিগঞ্জ পৌরসভার ৭নং ওয়ার্ডে বন্যা দুর্গতদের মাঝে মেয়রের চাল বিতরণ নবীগঞ্জ পৌরসভায় বন্যায় আশ্রয় কেন্দ্র গুলোতে নগদ অর্থ বিতরণ নবীগঞ্জে রাজরানী সুভাসীনি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে বন্যার্তদের মাঝে খাদ্য বিতরণ মাধবপুরে দুর্ঘটনায় হাডল্যান্ড সিরামিক কর্মকর্তা নিহত

রিচি ইউনিয়নের সচিবের বিরুদ্ধে সেবা প্রদানে জনগণকে হয়রানী ও দায়িত্বে অবহেলা অভিযোগ

  • আপডেট টাইম বুধবার, ১৮ মে, ২০২২
  • ১৭ বা পড়া হয়েছে

স্টাফ রিপোর্টার ॥ হবিগঞ্জ সদর উপজেলার রিচি ইউনিয়ন পরিষদের সচিব মোছাঃ জেসমিন আক্তারের বিরুদ্ধে জন্ম নিবন্ধনসহ সেবা প্রদানে জনগণকে হয়রানী ও দায়িত্বে অবহেলা অভিযোগ উঠেছে। এ ব্যাপারে জেলা প্রশাসকের নিকট অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। রিচি ইউনিয়নের সুলতান মামুদপুর গ্রামের একেএম ফজলুল হক কুতুব গত ১৬ মে অভিযোগটি দায়ের করেন।
অভিযোগে বলা হয়, তিনি তার স্ত্রী, সন্তান, ভাই, ভাতিজি, ভাইয়ের স্ত্রীর জন্ম নিবন্ধন সংশোধনের জন্য রিচি ইউনিয়ন পরিষদের সচিব মোছাঃ জেসমিন আক্তারের নিকট গত ১০ মার্চ পৃথক ১০টি আবেদন করেন। এর বিপরীতে কাগজপত্র দাখিল করলে ইউপি সচিব ৬টি আবেদন অন লাইনে গৃহিত হওয়ায় গত ১৫ মার্চ মোবাইলে ৬টি ম্যাসেজ আসে। বাকী ৪টি আবেদনের কোন ম্যাসেজ অদ্যাবধি তিনি পাননি। আবেদনগুলো উপজেলা নির্বাহী অফিসার নিকট প্রেরণ করা হয়নি। এতে তার স্কুল পড়–য়া ছেলে, ভাতিজি এবং ভাতিজির ছেলে-মেয়েদের বিভিন্ন শিক্ষা কার্যক্রমে ব্যাঘাত সৃষ্টি হচ্ছে।
আবেদনে তিনি বলেন তার ভাই রিচি ইউনিয়নের দুই বারের নির্বাচিত চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা মরহুম মোঃ আতাউর রহমান নিম্বর মারা যাবার পর মৃত্যু নিবন্ধন করার জন্য সচিব জেসমিন আক্তার প্রদত্ত ১৯৫৪৩৬৩৪৭৬০০৭৫৬৫ নম্বর জন্মসনদ দাখিল করেন। কিন্তু সচিব মৃত্যু নিবন্ধনে উল্লেখিত জন্ম সনদ নাম্বারের পরিবর্তে অন্য একটি ভুল জন্মসনদ নাম্বার মৃত্যু নিবন্ধন সনদে উল্লেখ করেন। পরবর্তীতে সচিবের পরামর্শে সংশোধনের জন্য আবেদন করা হয়। এর পর দীর্ঘদিন অতিবাহিত হলেও জন্ম নিবন্ধন ও মৃত্যু নিবন্ধন সংশোধনের কোন পদক্ষেপ না নিয়ে সচিব একের পর এক জটিলতা সৃষ্টি করছেন। ফলে মুক্তিযোদ্ধা ভাতাসহ সকল কার্যক্রম চালু করা সম্ভব হচ্ছেনা।
এ ব্যাপারে অভিযোগকারী একেএম ফজলুল হক কুতুব প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য জেলা প্রশাসকের সুদৃষ্টি কামনা করেন।
অভিযোগের কপি মুক্তিযোদ্ধা মন্ত্রণালয়, দুর্নীতি দমন কমিশনসহ বিভিন্ন দপ্তরে প্রদান করা হয়েছে।

 

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2013-2021 HabiganjExpress.Com
Design and Development BY ThemesBazar.Com