বুধবার, ২৫ মে ২০২২, ০৩:০৮ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম ::
মানবপাচার মামলায় নবীগঞ্জের সোহেলকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব হবিগঞ্জে জাঁকজমকপূর্ণভাবে চ্যানেল টোয়েন্টিফোরের দশম বর্ষপূর্তি উদযাপন নবীগঞ্জে বন্যায় ৩টি গ্রাম প্লাবিত পানিবন্দি আড়াইশ পরিবার শহরতলীর সুলতান মাহমুদপুরে শালিস বৈঠকে দু’পক্ষের সংঘর্ষে আহত ১২ আজমিরীগঞ্জে ভেজাল নারিকেল তেল বিক্রি ॥ ১০ হাজার টাকা জরিমানা শচীন্দ্র কলেজে ডাঃ শুভ্রজিৎ রায়ের ফ্রি ডেন্টাল ক্যাম্প নবীগঞ্জ উপজেলার শ্রেষ্ঠ প্রধান শিক্ষক আঃ ছালাম, শ্রেণী শিক্ষক প্রিয়তোষ জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারকদের সাথে আইনজীবী সমিতির নির্বাহী কমিটির বৈঠক হবিগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদককে পৌর আওয়ামী লীগের ফুলেল শুভেচ্ছা চুনারুঘাটে লাইসেন্সবিহীন করাত কলে অভিযান ॥ ২ জনকে কারাদন্ড

মাধবপুরের গোবিন্দপুর স: উচ্চ বিদ্যালয়ে নিয়ম বহির্ভূতভাবে ছাত্র ভর্তির অভিযোগ

  • আপডেট টাইম মঙ্গলবার, ১৮ জানুয়ারী, ২০২২
  • ৩৪ বা পড়া হয়েছে

স্টাফ রিপোর্টার ॥ মাধবপুরের গোবিন্দপুর সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ে ৬ষ্ট শ্রেণীতে টাকার বিনিময়ে নিয়ম বহির্ভূতভাবে ছাত্র ভর্তির অভিযোগ উঠেছে। এ ব্যাপারে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালকের বরাবরে লিখিত অভিযোগ করেছেন সাবিহা বিনতে রৌশী নামে এক ছাত্রী।
অভিযোগে প্রকাশ, ২০২১ সালে সরকারের সিদ্ধান্তমতে দেশের সকল সরকারী বিদ্যালয়ে লটারীর মাধ্যমে শিক্ষার্থী ভর্তি করা হয়। কিন্তু গোবিন্দপুর সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক টাকার বিনিময়ে সরকারের নিয়মনীতি উপেক্ষা করে লটারীর মাধ্যমে বিজয়ীদের তালিকার বাইরে কয়েকজন শিক্ষার্থীকে ৬ষ্ট শ্রেণীতে ভর্তি করেন। অভিযোগে উল্ল্যেখ করা হয় ভর্তি হওয়া শরীফুল সিদ্দিকী, উন্মে আযমন, সায়েমা জান্নাত, ফাতিহা জাহানসহ বেশ কয়েকজন শিক্ষার্থীর নাম লটারীর মাধ্যমে নির্বাচিত মেধা তালিকায় ছিলনা। অথচ অর্থের বিনিময়ে তাদেরকে ৬ষ্ট শ্রেণীতে ভর্তি করা হয়েছে। তাদের দুর্নীতি প্রকাশ পাওয়ার ভয়ে ভর্তির পর থেকে ক্লাসে নিয়মবহির্ভূতদের রোল কলও করা হয়না। ভর্তি রেজিস্টার ও লটারীতে নির্বাচিতদের তালিকা যাচাই করলে এ অভিযোগের সত্যতা পাওয়া যাবে। লটারীতে নির্বাচিত তালিকা বা অপেক্ষমান তালিকাতেও যাদের নাম নাই তাদেরকে কিভাবে ভর্তি করা হলো বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য অভিযোগে উল্ল্যেখ করা হয়। এ ব্যাপারে গোবিন্দপুর সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোহাম্মদ এনামুল হক জানান, লটারীর মাধ্যমে যারা নির্বাচিত হয়েছিল তাদের মধ্যে অনেকেই ভর্তি হয়নি। পরে আমরা অপেক্ষমান তালিকা থেকে ধারাবাহিকভাবে ৩ বার শিক্ষার্থীদের ভর্তি করেছি। এর বাইরে আমরা কোন শিক্ষার্থী ভর্তি করিনি। এছাড়া ভর্তি বোর্ডের সভাপতি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা। উনার মাধ্যমেই সকল শিক্ষার্থীদের ভর্তি করা হয়েছে। আমরা কোন অর্থ বিনিময় বা স্বজনপ্রীতির আশ্রয় নিয়ে কোন শিক্ষার্থী ভর্তি করিনি।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2013-2021 HabiganjExpress.Com
Design and Development BY ThemesBazar.Com