সোমবার, ৩০ নভেম্বর ২০২০, ০৮:২৬ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
বানিয়াচংয়ে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে ব্যবসায়ীদের স্বপ্ন পুড়ে ছাই ॥ ক্ষতি প্রায় ৩ কোটি টাকা ॥ এমপি মজিদ খানের পরিদর্শন নবীগঞ্জে আ.লীগ নেতাসহ ৫ জনকে কুপিয়ে ক্ষতবিক্ষত হবিগঞ্জে ডিসির আশ্বাসে বাস চলাচল স্বাভাবিক এমপি আবু জাহিরকে তাক লাগানো সংবর্ধনা দিল গোপায়া ইউনিয়নবাসী ব্যবসায়ীদের সর্বোচ্চ নিরাপত্ত্বা দেয়ার আহবান জানালেন মোতাচ্ছিরুল ইসলাম ব্যাংকার্স এসোসিয়েশনের নয়া কমিটি মর্তুজ আলী সভাপতি, আব্দুল্লাহ সম্পাদক মৎস্যজীবী লীগের স্বীকৃতিপ্রাপ্তির বর্ষপূর্তি উদযাপন ॥ তাজুল ইসলামকে ¯œানঘাট ইউনিয়নে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী দেয়ার দাবি আজমিরীগঞ্জে সরকারী ভূমিতে দোকান ঘর নির্মানের চেষ্টা ॥ প্রশাসনের নির্দেশে কাজ বন্ধ মাধবপুরে বাহাদুর হত্যা মামলা অবশেষে পিআইবিতে হস্তান্তর মেয়র প্রার্থী নিলাদ্রী টিটু’র সমর্থনে ৬নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভা
লাখাইয়ে প্রবাসী হত্যা মামলায় ॥ দুইজনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

লাখাইয়ে প্রবাসী হত্যা মামলায় ॥ দুইজনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

স্টাফ রিপোর্টার ॥ লাখাইয়ে প্রবাসী হত্যা মামলায় দুইজনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। সেই সঙ্গে তাদের ১০ হাজার টাকা করে জরিমানা, অনাদায়ে আরো দুই বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। গতকাল বুধবার বিকাল ৪টার দিকে অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ এস এম নাসিম রেজা এ রায় দেন। একই সাথে ১৩ জনকে খালাস প্রদান করা হয়। রাষ্ট্রপক্ষের মামলা পরিচালনা করেন অতিরিক্ত পিপি আব্দুল আহাদ ফারুক ও সালেহ উদ্দিন আহমেদ। আসামী পক্ষের ছিলেন এডঃ হাবিবুর রহমান ও কামরুল হাসান। দণ্ডপ্রাপ্তরা লাখাই উপজেলার সুবিদপুর গ্রামের আব্দুল করিমের পুত্র আজিজুল হক (৫০) ও একই গ্রামের ফকির চানের পুত্র ফারুক মিয়া (৫৫)। রায় প্রদানকালে আসামী আদালতে উপস্থিত ছিল। পরে তাদেরকে কারাগারে প্রেরণ করা হয়। অভিযোগ প্রমাণ না হওয়ায় মামলার বাকি ১৩ আসামিকে বেকসুর খালাস দেওয়া হয়েছে।
তারা হল ওই গ্রামের রমজান মিয়া, আয়াত আলী, এমদাদুল হক, সাইফুল ইসলাম, আমিন মিয়া, জাকারিয়া মিয়া, শাফুজুল মিয়া ছাবু, মারুফ মিয়া চৌধুরী, হিরা মিয়া চৌধুরী, আইজুল মিয়া চৌধুরী, ফাইজুল মিয়া চৌধুরী, জাফরান মিয়া চৌধুরী ও আলমাছ মিয়া চৌধুরী।
মামলার বিবরণে জানা যায়, ২০১৫ সালের ৭ মার্চ দুপুর ১২টার দিকে ওই গ্রামের হাওরে মাসকলাই ক্ষেতে প্রবাসী কাছম আলী তার দুই কন্যাকে নিয়ে কাজ করছিল। এ সময় পূর্ব শত্র“তার জের ধরে আসামিরা গিয়ে দেশি অস্ত্র দিয়ে তাকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করেন। এক পর্যায়ে আসামীরা কাছম আলীকে ফিকল দিয়ে আঘাত করে।
স্থানীয় লোকজন কাছম আলীকে উদ্ধার করে হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। সেখানে তার অবস্থার অবনতি হলে সাথে সাথে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ৯ মার্চ কাছম আলী মারা যায়। এ ঘটনায় নিহতের স্ত্রী ফহিমা বেগম বাদী হয়ে ১৫ জনকে আসামি করে ১৭ মার্চ লাখাই থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। একই বছরের ১৭ আগস্ট লাখাই থানার তৎকালীন ওসি মোজাম্মেল হক ১৫ জনকে অভিযুক্ত করে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। পরে আসামীদেরকে ধরে গ্রেফতার করে পুলিশ কারাগারে প্রেরণ করে। আসামীরা উচ্চ আদালত থেকে জামিন লাভ করে। কিন্তু এই মামলার অন্যতম আসামী আলমাচ মিয়া মখা পলাতক থাকায় মামলাটি নিষ্পত্তি হতে দেরি হয়। অবশেষে বিচারের প্রস্তুত হয়ে মামলাটি অতিরিক্ত দায়রা জজ আদালতে আসলে ১২ জন সাক্ষীর স্বাক্ষ্যগ্রহন শেষে আদালত এ দন্ডাদেশ দেন।
মামলার বাদী ফাহিমা আক্তার জানান, তিনি ন্যায় বিচার পাননি। উচ্চ আদালতে ন্যায় বিচারের জন্য তিনি আপিল করবেন। অপরদিকে আসামীরা জানায়, তারাও এ ব্যাপারে আপিল করবেন।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com