মঙ্গলবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১২:১৬ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
নবীগঞ্জের নদী খোকোদের তালিকা প্রকাশ ॥ শীঘ্রই উচ্ছেদ অভিযান মাধবপুরে ছোট ভাইয়ের পিটুনীতে বড় ভাই খুন এমপি আবু জাহিরের প্রচেষ্টায় হবিগঞ্জ সদর ও শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলার সকল প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শহীদ মিনার নির্মাণ ॥ আজ এক যোগে উদ্বোধন নবীগঞ্জে সন্ত্রাসী মুছা ১০ দিনেও অধরা কর আদায়ের উপর নির্ভর করে পৌরসভার উন্নয়ন-মেয়র ছাবির চৌধুরী নবীগঞ্জে নারী প্রতারক গ্রেপ্তার মানুষ বাঁচে তার কর্মে, বয়সের মধ্যে নয়-মিলাদ গাজী এমপি নবীগঞ্জে সাবেক ইউপি সদস্যের দাফন সম্পন্ন ॥ শোক প্রকাশ ‘হবিগঞ্জের মানুষ অসাম্প্রদায়িক চেতনায় বিশ্বাসী-মেয়র মিজান দুর্নীতি আর লুটপাটের মহাসাগরে নিমজ্জিত আওয়ামীলীগের পতন হবেই- জিকে গউছ
হবিগঞ্জে সাংবাদিক জীবনকে আটক করে নির্যাতন ॥ মোমবাতি জ্বালিয়ে পায়ূপথে ছ্যাকা

হবিগঞ্জে সাংবাদিক জীবনকে আটক করে নির্যাতন ॥ মোমবাতি জ্বালিয়ে পায়ূপথে ছ্যাকা

স্টাফ রিপোর্টার ॥ হবিগঞ্জে মিথ্যা অভিযোগে ইউকে ভিত্তিক চ্যানেল এস এর হবিগঞ্জ প্রতিনিধি সিরাজুল ইসলাম জীবনকে বেধড়ক মারপিট করেছে পুলিশ। সেই সাথে মোমবাতি জ্বালিয়ে তার পায়ূপথে ছ্যাকা দেয়া হয়েছে। এ ঘটনার প্রতিবাদে গতকাল শুক্রবার বিকেলে হবিগঞ্জ সদর মডেল থানার সামনে বিক্ষোভ করেছে জেলায় কর্মরত সকল সাংবাদিকগণ। সিরাজুল ইসলাম জীবনের বোন পারভীন আক্তার জানান, বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত ২টার দিকে তাদের ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানে গিয়ে ধাক্কা দেয় পুলিশ। এ সময় ভেতরে থাকা জীবনের ছোট ভাই আজিজুল ইসলাম দোকানের সাটার খুলে দেয়। পুলিশ ভেতরে ঢুকেই তাদের হাতে থাকা একটি প্যাকেট দেখিয়ে মাদকসেবী হিসেবে তাকে আটক করে। খবর পেয়ে পার্শ্ববর্তী বাসা থেকে জীবনসহ পরিবারের অন্যান্যরা ছুটে এসে বিষয়টি চ্যালেঞ্জ করলে তাদের সাথে বাকবিতন্ডা হয়। এক পর্যায়ে তাদেরকে মারধর করে পুলিশ। চিৎকার শুনে আশপাশের লোকজন ছুটে এলে অতিরিক্ত পুলিশ এসে তাদেরকে থানায় নিয়ে আসে। এরপর চোঁখ বেঁধে তাদেরকে বেধড়ক মারপিট করা হয়।
আদালত প্রাঙ্গণে জীবন জানান, তাদের চোঁখ বেঁধে একনাগাড়ে মারধর করা হয়েছে। এক পর্যায়ে পায়খানার রাস্তায় মোমবাতি দিয়ে ছ্যাকা দেয়। এমনকি মোমবাতির ঝলন্ত গলিত পদার্থ তার পায়খানার রাস্তার মধ্যে ঢুকিয়ে দেয় পুলিশ। পরে তাকে সদর আধুনিক হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়। সেখানে তার আঘাতের কারণ লেখা হয় গণপিটুনি। নির্যাতনের শিকার সিরাজুল ইসলাম জীবন আদালত প্রাঙ্গণে বলেন, সদর থানার পুলিশ কোন কারন ছাড়া তাকে ও তার ভাইদেরকে আটক করে থানায় নিয়ে নির্যাতন করে। তবে পুলিশের দাবি, মাদক বিরোধী অভিযানের অংশ হিসেবে তারা ওই দোকানে অভিযান চালিয়েছিল। সেখান থেকে ১০ পিস ইয়াবাসহ আজিজুলকে গ্রেফতার করা হলে জীবন তাতে বাঁধা দেন। নির্যাতনের অভিযোগ অস্বীকার করে পুলিশ।
এদিকে, এ খবর ছড়িয়ে পড়লে গতকাল শুক্রবার দুপুর আড়াইটায় হবিগঞ্জ প্রেসক্লাবে জরুরি বৈঠকে বসেন সাংবাদিকরা। এ সময় তারা অবিলম্বে জীবনের মুক্তি ও এ ঘটনার সাথে সম্পৃক্ত পুলিশ সদস্যদের শাস্তি দাবি করেন। পরে বিকেলে সদর মডেল থানার সামনে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করে সাংবাদিকরা। এ সময় মূল সড়কে বেশ কিছু সময় যান চলাচাল বন্ধ থাকে।
এদিকে এ ঘটনার প্রতিবাদে রাত সাড়ে ১০টায় সাংবাদিকরা আন্দোলনের পরবর্তী কর্মসূচি ঘোষণার জন্য প্রেসক্লাবে বৈঠকে মিলিত হন। মধ্যরাত পর্যন্ত বৈঠক চলাকালে হবিগঞ্জ পুলিশের উর্ধতন কর্তৃপক্ষের অনুরোধে আন্দোলনের কর্মসূচি স্থগিত করা হয়।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com