বৃহস্পতিবার, ২৮ মে ২০২০, ০৫:০১ পূর্বাহ্ন

সাতছড়ি জাতীয় উদ্যানে অপরাধ প্রবণতা বৃদ্ধি ॥ পর্যটকদের নিরাপত্তা নিয়ে উদ্বেগ

সাতছড়ি জাতীয় উদ্যানে অপরাধ প্রবণতা বৃদ্ধি ॥ পর্যটকদের নিরাপত্তা নিয়ে উদ্বেগ

চুনারুঘাট প্রতিনিধি ॥ বিনোদন পার্ক চুনারুঘাট সাতছড়ি জাতীয় উদ্যানে অপরাধ প্রবণতা বৃদ্ধি পেয়েছে। উদ্যানে বেড়াতে আসা পর্যটকদের নিরাপত্তা নিয়ে দেখা দিয়েছে উদ্বেগ। পাহাড় ঘেরা এ উদ্যানে প্রাকৃতিক সৌন্দর্য্য দেখতে আসা পর্যকটদের জান-মালের নিরাপত্তা বিধানে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী ও উদ্যান কর্তৃপক্ষের যে ব্যবস্থা রয়েছে তা অপর্যাপ্ত। এ কারণে প্রায় প্রতিদিনই ঘটছে নানা অপ্রীতিকর ঘটনা। ঈদের দিন থেকে এ পর্যন্ত সাতছড়িতে ১টি খুন ও ৩টি ধর্ষণের ঘটনা সংঘটিত হওয়ার পর সাতছড়িতে সৌন্দর্য্য পিপাসুদের ভিড় অনেক কমে গেছে। ২০০৫ সালে বনবিভাগের সহায়তায় সাতছড়ি সংরক্ষিত বনকে জাতীয় উদ্যানে রূপান্তরিত করে নিসর্গ নামের একটি এনজিও। উদ্যানটিকে পর্যটক কেন্দ্র হিসেবে গড়ে তুলতে ওই এনজিও খরচ করেছে কোটি কোটি টাকা। স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের সমন্বয়ে গঠন করা হয় ‘সহ-ব্যবস্থাপনা কমিটি’। সাতছড়িকে নিয়ে মিডিয়াতে ব্যাপক প্রচারের সুবাদে তাতে পর্যটকদের ঢল নামে। এ সুযোগে অপরাধীরা মাথাচাড়া দিয়ে উঠে। অভিযোগ সাতছড়ি জাতীয় উদ্যানের বিভিন্ন দায়িত্বে থাকা অসাধু কিছু ব্যক্তিদের সাথে আঁতাত করে অপরাধীরা তাদের অপকর্ম চালিয়ে যাচ্ছে। ফলে সম্ভাবনাময় সাতছড়ি জাতীয় উদ্যানের ভবিষ্যত নিয়ে সচেতন মহলে দেখা দিয়েছে উদ্বেগ। পবিত্র ঈদুল ফিতরের পর সাতছড়ির গহীন জঙ্গলে স্বপন তন্তবায় (২০) নামে এক যুবকের মরদেহ পাওয়া যায়। ওইদিনই বাহুবলের এক তরুণী তার বান্ধবীকে নিয়ে সাতছড়িতে বেড়াতে এসে ধর্ষণের শিকার হন। পরের মঙ্গলবার শ্লীলতাহানীর শিকার হয় হবিগঞ্জের ২০ বছর বয়সের আরেক তরুণী। এর আগে এ ধরনের বহু অপরাধ সাতছড়িতে সংঘটিত হয়েছে।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com