সোমবার, ২৬ জুলাই ২০২১, ০৮:০৫ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম ::
রাত পোহালেই পবিত্র ঈদুল আজহা স্বাস্থ্যবিধি মেনে মসজিদে জামাত নবীগঞ্জে ইউপি চেয়ারম্যানসহ ৩ জনের বিরুদ্ধে গণধর্ষণের অভিযোগ এনে মামলা মাধবপুরে আরো একজনের মৃত্যু জেলায় নতুন করে ৪০ জন করোনায় ভাইরাসে আক্রান্ত মাধবপুরের পিয়াইম গ্রামে সংঘর্ষে ২৫ জন আহত লায়ন্স ক্লাব অব হবিগঞ্জের ঈদখাদ্য সামগ্রী বিতরণে এমপি আবু জাহির পইলে মানসিক রোগী বড় বোনের আঘাতে ছোট বোন নিহত হবিগঞ্জ জেলা বিএনপির উদ্যোগে করোনা হেলপ সেল এর উদ্বোধন ফ্রেন্ডস সোসাইটি হবিগঞ্জের অক্সিজেন সিলিন্ডার সেবা কার্যক্রমের উদ্বোধন ও মাস্ক বিতরণ নবীগঞ্জের বাউসা ইউনিয়নবাসীকে ছাদিকুর রহমান শিশু’র ঈদ শুভেচ্ছা সুস্থ হয়েই অস্বচ্চল মানুষের মাঝে সহায়তা দিলেন এমপি আবু জাহির

মাধবপুরে স্বামীকে নির্মমভাবে খুনের বর্ণনা দিলে ঘাতক স্ত্রী ॥ পর পুরুষের সাথে অনৈতিক কাজে বাধা দেয়ায় শ্বাসরোদ্ধ করে হত্যা

  • আপডেট টাইম বুধবার, ২৮ অক্টোবর, ২০১৫
  • ২৭৮ বা পড়া হয়েছে

রিফাত উদ্দিন, মাধবপুর থেকে ॥ মাধবপুরে নূরুল ইসলাম হত্যা’র দায় স্বীকার করে স্ত্রী আম্বিয়া খাতুন আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তি মূলক জবানবন্দি দিয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার বিকালে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এস.আই আব্দুল আউয়াল হবিগঞ্জের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট কৌশিক আহম্মদের আদালতে হাজির করলে ঘাতক আম্বিয়া খুনের ঘটনা বর্ণনা দিয়ে জবানবন্দি দেন। মাধবপুর থানা’র পরিদর্শক (তদন্ত) কে এম আজমিরুজামান এর সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। আদালতে ঘাতক আম্বিয়া ও দু’সাক্ষির বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়-জেলার চুনারুঘাট উপজেলার হল হলিয়া গ্রামের মৃত আব্দুর রাজ্জাকের ছেলে নূরুল ইসলাম (৩২) ১ম স্ত্রী মারা যাওয়ার পর প্রায় ১০ বছর আগে ওই উপজেলার সাদবপুর গ্রামের আম্বিয়া খাতুনকে বিয়ে করেন। ১ মাস আগে আম্বিয়া স্বামীর সঙ্গে ঝগড়া করে মাধবপুর উপজেলার নোয়াপাড়াস্থ একটি পোশাক কারখানায় চাকুরী নেয়। কারখানার পাশে ইটাখোলা গ্রামের নূর মিয়ার বাড়ী ভাড়া নিয়ে আম্বিয়া কয়েকজন নারী শ্রমিককে নিয়ে বসবাস করতো। সেখানেই অপর দু’ভাড়াটে রিক্সা চালক ফারুক মিয়া ও রঙ্গু মিয়ার সঙ্গে আম্বিয়া পরকিয়ায় জড়িয়ে পড়ে। গত রোববার সন্ধ্যায় আম্বিয়ার স্বামী নুরুল ইসলাম নোয়াপাড়ায় তার ভাড়া বাসায় জাতীয় পরিচয় পত্র নিতে এসে রাত্রি যাপন করে। কিন্তু আম্বিয়া স্বামীর সঙ্গে না থেকে সহকর্মী শাহেনা, শাবেনা, রেজিয়া ও সালেহাকে নিয়ে পাশের একটি কক্ষে ঘুমাতে যায়। গভীর রাতে আম্বিয়া চুপিসারে প্রেমিক রিক্সা চালক ফারুক মিয়ার সঙ্গে অনৈতিক কাজে লিপ্ত হয়। স্বচক্ষে এ ঘটনা নুরুল ইসলাম দেখে সুর-চিৎকার করে ফারুক ও আম্বিয়ার সঙ্গে ঝগড়ায় জড়িয়ে পড়ে। এক পর্যায়ে আম্বিয়া, ফারুক ও রঙ্গু মিয়া কৌশলে নুরুল ইসলামকে ঘরে ঢুকিয়ে গলায় ওড়না পেচিয়ে শ্বাসরোধে হত্যা করে। ভোর ৪টার দিকে শাহেনা, শাবেনা পার্শ্ববর্তী ঘরে গিয়ে দেখতে পায় নুরুল ইসলামের মৃত দেহ মেঝেতে পড়ে আছে। তারা আম্বিয়ার কাছে নুরুল ইসলাম মারা যাবার কারন জানতে চাইলে রিক্সা চালক ঘাতক ফারুক ও রঙ্গু মিয়া তাদের এ ব্যাপারে কোন কথা না বলার জন্য হুমকী প্রদান করে। পরে ফারুক মিয়ার রিক্সায় লাশ তুলে অন্যান্যদের সহযোগিতায় ঘর থেকে বের হবার পর প্রভাত হয়ে পড়লে তড়িগড়ি করে বাড়ীর পশ্চিমে অর্ধ কিলোমিটার দুরে নোয়াপাড়া-খড়কি রাস্তার পাশে ধান ক্ষেতে ফেলে রাখে। সোমবার সকালে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2013-2021 HabiganjExpress.Com
Design and Development BY ThemesBazar.Com