বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০১:৩২ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম ::
নবীগঞ্জ শহর রণক্ষেত্র ॥ পুলিশ সাংবাদিকসহ আহত অর্ধ শতাধিক ॥ দোকান ও মোটর সাইকেল ভাংচুর তুচ্ছ ঘটনা নিয়ে বন্ধুত্বে ফাটল ॥ থুথু ফেলার জের ॥ নবীগঞ্জে জনসম্মুখে কলেজ ছাত্র তাহসিনকে ছুরিকাঘাতে হত্যা নবীগঞ্জ পৌরসভার উদ্যোগে একুশে বইমেলা ২য় দিন অতিবাহিত নারীদের খেলাধূলায় এমপি আবু জাহির এর অনুদান আজমিরীগঞ্জে বাঁধ সংস্কারে ধীর গতি ॥ কৃষকদের শঙ্কা আর ক্ষোভ হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালের চিকিৎসা কার্যক্রম দেখে উদ্বেগ প্রকাশ করলেন মানবাধিকার চেয়ারম্যান কামাল উদ্দিন শায়েস্তাগঞ্জে হপবিস’র বার্ষিক সাধারণ সভায় ॥ বোর্ডের সভাপতি মিজানুর রহমান চকদার সচিব এমদাদুল ইসলাম সোহেল বানিয়াচংয়ে মাসিক আইন-শৃংখলা কমিটির সভা অনুষ্ঠিত আইন-শৃংখলার উন্নয়নে সকলকে এক সাথে কাজ করতে হবে-এমপি রুয়েল হবিগঞ্জে শিশু-কিশোর চিত্রাংকন প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ রাষ্ট্রপতির পুলিশ পদক পেলেন হবিগঞ্জের কৃতি সন্তান এসপি নূরুল আমীন

শহরে পেঁয়াজ-রসুন মজুদ করে রাখায় ২ আড়তদারকে জরিমানা

  • আপডেট টাইম মঙ্গলবার, ১২ ডিসেম্বর, ২০২৩
  • ৪৩ বা পড়া হয়েছে

স্টাফ রিপোর্টার ॥ মজুদ করে রাখা পেঁয়াজ-রসুনের রশিদ দেখাতে না পারায় হবিগঞ্জ শহরে দুই আড়তকে জরিমানা করেছে প্রশাসন। গতকাল সোমবার (১১ ডিসেম্বর) দুপুরে হবিগঞ্জ শহরের চাষি বাজারে অভিযান পরিচালনা করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মুনমুন নাহার। তিনি বলেন, চাষি বাজারে একজন বড় আড়তদার ও একজন ছোট আড়তদারকে জরিমানা করা হয়েছে। এ সময় ভোক্তা অধিকার আইনে মোট ১৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।
মুনমুন নাহার আরও বলেন, চাষি বাজারে গিয়ে দেখা যায়, একটি আড়তে বেশকিছু রসুন মজুদ করে রাখা। কিন্তু আড়তদারের কাছে কোনো রসিদ নেই। এজন্য তাকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।
একইভাবে রসিদ ছাড়া পেঁয়াজ মজুদ করে রাখার অপরাধে অপর আড়তদারকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। তবে ব্যবসায়ী সংগঠনের নেতারা হবিগঞ্জ জেলা প্রশাসনের নির্দেশনা অনুযায়ী দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে রাখতে কাজ করছেন এবং এজন্য মজুতদারদের পরিচয় প্রকাশ করা হয়নি বলে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জানিয়েছেন।
একই দিন হবিগঞ্জে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের ভ্রাম্যমাণ আদালত দেখে আগের দামে পেঁয়াজ বিক্রি করেছেন ব্যবসায়ীরা। এ সময় অনেক ক্রেতা লাইন ধরে পেঁয়াজ কিনে নেন। দুপুর ১টার দিকে হবিগঞ্জ শহরের সবচেয়ে বড় চৌধুরীবাজার এলাকায় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক দেবানন্দা সিনহার নেতৃত্বে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হয়। এ সময় পাইকারি ও খুচরা ব্যবসায়ীর কাছ থেকে ক্রেতারা প্রতি কেজি পেঁয়াজ ১২৫ টাকা করে কিনেছেন। অভিযান পরিচালনাকালে একটি দোকানে অতিরিক্ত টাকায় পেঁয়াজ বিক্রি করার অপরাধে দুই হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। ভ্রাম্যমাণ আদালত আসার আগে প্রতি কেজি পেঁয়াজ ১৬০ থেকে ১৮০ টাকা ধরে বিক্রি করছিলেন ব্যবসায়ীরা।
এ বিষয়ে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক দেবানন্দা সিনহা বলেন, আমাদের উপস্থিতিতে ব্যবসায়ীরা নির্ধারিত মূল্যে পেঁয়াজ বিক্রি করছেন। কেউ যদি এর ব্যতিক্রম করে তার বিরুদ্ধে জরিমানা করা হচ্ছে। এ ভাবে জেলার সব কটি উপজেলায় গতকাল জেলা প্রশাসনের নির্দেশে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটরা বাজার মনিটরিং করেন। কোথাও কোথাও জরিমানা করেন আবার কোথাও সতর্ক করেন।
এর আগে জেলা প্রশাসক দেবী চন্দ হবিগঞ্জের বাজারে পেঁয়াজের মূল্য বেঁধে দিয়েছেন। পাইকারি এলসি পেঁয়াজের মূল্য ১২০ টাকা এবং খুচরা মূল্য ১২৫ টাকা।
প্রশাসনের নির্দেশনা অনুযায়ী খুচরা বিক্রেতারা এক বা দুই বস্তার বেশি পেঁয়াজ একসঙ্গে ক্রয় করতে পারবেন না। খুচরা ক্রেতারা ক্রয় করতে পারবেন সর্বোচ্চ এক কেজি। বিক্রেতারা সর্বনিম্ন ২৫০ গ্রাম পেঁয়াজও বিক্রি করবেন। তবে হবিগঞ্জ শহরের চৌধুরী বাজার, শায়েস্তানগর ও চাষি বাজারে এখনও প্রশাসনের আদেশ উপেক্ষা করে প্রতিকেজি পেঁয়াজ ১৮০ থেকে ২শ টাকায় বিক্রি করা হচ্ছে। এ বিষয়ে মনিটরিংয়ের দাবি জানিয়েছেন ক্রেতারা।

 

 

 

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2013-2021 HabiganjExpress.Com
Design and Development BY ThemesBazar.Com