শনিবার, ০৮ মে ২০২১, ০৪:২৬ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
প্রসঙ্গ নিম্বর টাওয়ার ॥ ৫০ লাখ টাকা ঘুষ দাবি! নবীগঞ্জের ভূমি উপসহকারী কর্মকর্তা আবিদ আলী বরখাস্ত হবিগঞ্জে জমে উঠেছে ঈদ বাজার ॥ স্বাস্থ্যবিধি পালনে প্রশাসন কঠোর বাংলাদেশি-আমেরিকান দুই ভাই তীর্থ ও তন্ময়ের সাফল্য খোশ আমদেদ মাহে রমজান ॥ আজ ২৫ রমজান লোকড়ায় অর্থ সহায়তা বিতরণ করলেন এমপি আবু জাহির বানিয়াচংয়ের ঐতিহ্যবাহী ঠাকুরানী দিঘী রক্ষায় এলাকাবাসীর অভিযোগ ॥ ড্রেজার মেশিন জব্দ খালেদা জিয়ার সুস্থতা কামনায় জেলা যুবদলের দোয়া ও ইফতার মাহফিল বানিয়াচংয়ে অভ্যন্তরীণ বোরে ধান সংগ্রহের উদ্বোধন রিচি গ্রামে ট্রাক্টরের চাপায় স্কুল ছাত্র নিহত শায়েস্তাগঞ্জ নতুন ব্রীজে বাস উল্টে ১৫ জন যাত্রী আহত
হবিগঞ্জে কালবৈশাখীর পূর্বাভাস ॥ ৮০ শতাংশ পাকলেই দ্রুত ধান কেটে নেয়ার তাগিদ

হবিগঞ্জে কালবৈশাখীর পূর্বাভাস ॥ ৮০ শতাংশ পাকলেই দ্রুত ধান কেটে নেয়ার তাগিদ

স্টাফ রিপোর্টার ॥ হবিগঞ্জে চলতি মাসেই কালবৈশাখী ঝড়ের আশংকা রয়েছে। হতে পারে ভারি বৃষ্টিপাতসহ আকস্মিক বন্যাও। আগামী ৩ দিনের মধ্যেই বড় ধরণের বৃষ্টিপাতের আশংকা রয়েছে। তাই ৮০ শতাংশ পাকা ধান দ্রুত কেটে নেয়ার তাগিদ দিয়েছে জেলা প্রশাসন। প্রয়োজনে ১৭টি কম্বাইন্ড হার্ভেস্টিং মেশিন কাজে লাগাতে ও শ্রমিক বাড়াতেও তাগিদ দেয়া হয়। সোমবার আজমিরীগঞ্জ উপজেলায় হাওরে বোরো ফসলের মাঠ পরিদর্শনে গিয়ে এ তাগিদ দেন জেলা প্রশাসক ইশরাত জাহান। এ সময় তিনি কৃষকদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন। জেলা প্রশাসক ইশরাত জাহান জানান, আগামী ৩ দিনের মধ্যেই হবিগঞ্জে বড় ধরনের বৃষ্টিপাতের আশংকা রয়েছে। আকস্মিক বন্যাও হতে পারে। তাই ৮০ শতাংশ পাকা ধান এ সময়ের মধ্যে কেটে ফেলার পরামর্শ দেয়া হয়েছে। প্রয়োজনে শ্রমিক বেশি লাগিয়ে হলেও যেন দ্রুত ধান কেটে ঘরে তুলা যায় সে ব্যবস্থা নিতে বলা হয়েছে। তিনি বলেন, ১৭টি কম্বাইন্ড হার্ভেস্টিং মেশিন রয়েছে। এগুলো কাজে লাগিয়ে যেন দ্রুত ধান কাটা হয় সে ব্যবস্থা নিতে বলা হয়েছে।
জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক তমিজ উদ্দিন খান জানান, জেলায় ৮ এপ্রিল থেকে ধান কাটা শুরু হয়। এখন পর্যন্ত ২৭ শতাংশ ধান কাটা সম্পন্ন হয়েছে। জেলায় বাইরে থেকে শ্রমিক এসেছেন ৮ হাজার ৫শ’ জন। আর নিজস্ব শ্রমিক রয়েছেন ৩৮ হাজার ৫শ’ জন। এখানে শ্রমিকের কোন সংকট নেই। তিনি বলেন, তবুও যদি কেউ শ্রমিক বাইরে থেকে নিয়ে আসতে চান তবে কৃষি বিভাগ বা জেলা প্রশাসনের সাথে যোগযোগ করলে সর্বাত্মক সহযোগিতা করা হবে। জেলা কৃষি সম্পসারণ অধিদপ্তর সূত্রে জানা যায়, জেলায় চলতি বছর বোরো আবাদের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ১ লাখ ২০ হাজার ৮শ’ হেক্টর জমি। কিন্তু আবাদ হয়েছে ১ লাখ ২২ হাজার ১৩০ হেক্টর জমিতে। ধান উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে প্রায় ৫ লাখ ১৪ হাজার মেট্রিক টন।
গতকাল সোমবার জেলা প্রশাসক ইশরাত জাহান আজমিরীগঞ্জ উপজেলার হাওড়ে বোরো ধান কর্তন কার্যক্রম পরিদর্শন করেন। এসময় তিনি কৃষকদের সাথে কথা বলেন এবং নির্ধারিত সময়ে তাদের ধান কাটতে অনুরোধ করেন। জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে এ বিষয়ে সর্বাত্মক সহায়তারও আশ^াস দেন তিনি। এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান মো. মর্তুজা হাসান, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মিন্টু চৌধুরী, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক তমিজ উদ্দীন খান, সহকারী কমিশনার (ভূমি) উত্তম কুমার দাশ, সহকারী কমিশনার নাভিদ সারওয়ার, আজমিরীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নুরুল ইসলাম, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো. মোস্তাফিজুর রহমান, উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অফিসার রাজীব সরকার এবং প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মোহাম্মদ আলী।

 

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2021 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com