সোমবার, ০১ Jun ২০২০, ১১:৫৮ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
এমপি আবু জাহির এর প্রচেষ্টায় হবিগঞ্জে হতে যাচ্ছে করোনা পরীক্ষার ল্যাব জেলা গোয়েন্দা পুলিশের অভিযানে বিপুল পরিমাণ ইয়াবাসহ ১ মাদক ব্যবসায়ী আটক নবীগঞ্জে মাসিক আইনশৃংঙ্খলা কমিটির সভা অনুষ্ঠিত লাখাইয়ে পরীক্ষায় ফেল করায় কিশোরী আত্মহত্যা করোনায় চুনারুঘাটে সেলুন ব্যবসায়ীরা দিশেহারা নবীগঞ্জে এসএসসি পরীক্ষায় পাশের হার ৭৯.৩১% জিপিএ-৫ পেয়েছে ৭৬ জন ভারতীয় নাগরিকদের হাতে নিহত বাংলাদেশীর লাশ ৬ দিন পর বিজিবির কাছে হস্তান্তর হবিগঞ্জে দুই গ্রামবাসির সংঘর্ষে আহত ৫০ নবীগঞ্জে পুলিশের হস্তক্ষেপে সংঘাত থেকে রক্ষা পেল গ্রামবাসী বানিয়াচঙ্গে কিশোরীকে ধর্ষণের চেষ্টা ॥ লম্পট গ্রেফতার
হবিগঞ্জের খোয়াই নদীরপাড় তীরের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে

হবিগঞ্জের খোয়াই নদীরপাড় তীরের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে

মোহাম্মদ আলী মমিন ॥ হবিগঞ্জের খোয়াই নদীরপাড় তীরের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে। উচ্ছেদ অভিযানের ওয়ার্নিং পাওয়া মাত্রই অবৈধ স্থাপনায় বসবাসকারী নিজেরাই যে যেভাবে পারছে স্থাপনা ভেঙ্গে অক্ষত মালামাল সরিয়ে নিয়ে যাচ্ছে। মনে হয়, নিকট পূর্বে প্রচন্ড ঘূর্নিঝড়ে নদীরপাড় তীর থেকে অদৃশ্য করে নিয়ে গেছে। ৩০/৩৫ বছর যাবৎ দৃশ্যমান অসংখ্য বৃক্ষরাজী, ঝুপড়ী, কাচা-পাকা ঘরবাড়ী। পড়ে রয়েছে লন্ডভন্ড অবকাঠামো। গতকাল হবিগঞ্জ খোয়াই নদীর উপরের কামড়াপুর মেজর জেনারেল এম,এ,রব ব্রীজ থেকে নদীর বামপাড় তীরের গরুর বাজার খেয়াঘাট পর্যন্ত পর্যবেক্ষন ও অবলোকনকালে এরূপ দৃশ্য লক্ষনীয়। জানা যায়, ৮০ইং পূর্বাপর খোয়াই নদীর মাছুলিয়া রামপুর লুপ কাটিং পর কামড়াপুর থেকে নছরতপুর মীর্জাপুর পর্যন্ত খোয়াই’র ডান তীরকে সোজা করে প্রসস্তপাড় নির্মান করা হয়। ফলে সুলতানমামদপুর মৌজার প্রবাহমান নদী খোয়াইর গতিপথ আনোয়ারপুর মৌজার দক্ষিন ও উত্তরকুল মৌজার উত্তর দিয়ে নছরতপুরের দক্ষিনে একই নদীতে যুক্ত হয়ে যায়। নদীর গতিপথ পরিবর্তনের ফলে উত্তরকুল মৌজার রিচি ইউনিয়নের কথিত হাতকাটাপুর (যশেরআব্দা) নদীর গর্ভে চলে যায়। ’৮৮ সালের বন্যায় প্রকাশিত হাতকাটাপুর গ্রামের বাড়ীঘরের উপর দিয়ে স্রোত বইতে থাকলে তৎকালীন এমপি আবু লাইছ মোবিন চৌধুরী প্রশাসনিক সহায়তায় ঐ গ্রামের বাসিন্দাদের সেখান থেকে উদ্ধার করে শহরের আশ্রয় কেন্দ্রে নিয়ে আসেন। এক পর্যায়ে ওদেরকে সওদাগর কৃষ্ণধন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের আশেপাশে নদীরপাড় ও রেলভূমিতে অস্থায়ীভাবে থাকার সুযোগ দেয়া হয়। এমনি দু’টি পরিবারের সদস্য-সদস্যা মোঃ মনু মিয়া, ধনু মিয়া, দুদু মিয়া, মমতা বেগম, সিরাজুল ইসলাম জীবন, আজিজুল ইসলাম, পারভিন আক্তার, জেসমিন আক্তার ও সুমি আক্তার বসবাস করছেন স্কুলের পশ্চিমে নদীর পাড়ে। তাদের একজন মনু মিয়া নদীর পাড়ে অবৈধ স্থাপনা নির্মাণের প্রেক্ষাপট বর্ণনা করে বলেন, নদীর গর্ভে চলে যাওয়া বাড়ীর ভূমি সরকার অধিগ্রহণ করে ক্ষতিপূরণ দিবেন, পূর্নবাসন করবে সে আশ্বাসেই প্রায় ৩০ বছর যাবত এখানে বসবাস করেছি। আদালতে মামলাও করেছি। কোথায় ক্ষতিপূরণ উল্টো দেখছি আমাদের ভূমি সরকার বালু মহালের নামে ইজারা দিয়ে মাটি বিক্রি করে অর্থ আয় করছে। সরকার আমাদের ট্যাক্সের টাকা রোহিঙ্গাদের খাওয়া-থাকা পূর্নবাসনে খরচ করছে অথচ দেশের ভিটেমাটিহারাদের নদীরপাড়ের আবাসস্থল ভেঙ্গে বিতারিত করছে ? আমরা পৈত্রিক ভূমির ক্ষতিপূরণ চাই। একাধিক স্থাপনাকারী জানান, ৪/৫ দিন আগে সরকারের লোকেরা মঙ্গলবার এর মধ্যে অবৈধ স্থাপনা সরানোর জন্য কঠোর বাণী শুনিয়েছে। এ থেকেই ঘরবাড়ী ভেঙ্গে অক্ষতাবস্থায় মালামাল সরানোর ধুম পড়েছে। তারা জানান, এক্সেভেটরে ভাঙ্গলে সরকারকে জরিমানা দিতে হয়, এ আশংকা থেকে মালামাল সরানো চলছে। নদীরপাড় তীরের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ ও পাড় মজবুতিকরণ উন্নয়ন বিষয়ে শতাধিক পথচারী, গণ্যমান্য এলাকাবাসীর প্রশংসনীয় মতামত পাওয়া যায়। অনেকেই খোয়াই রিভারভিউ দৃষ্টিনন্দনের দৃশ্যায়নের আহবান জানিয়েছেন। আবার পাড়ে তীরে মলমূত্র ত্যাগের স্থান যেন সৃষ্টি না হয় সেরূপ প্রতিরোধ ব্যবস্থা গড়ে তুলতে বলেছেন। সরজমিনে নদীর তীরেপাড়ে চলছে মজবুতিকরণ, সবুজায়নের কর্মযজ্ঞ। ঠিকাদারী কার্যক্রমে সার্বক্ষনিক পর্যবেক্ষণে একজন এসও নিয়োজিত থাকলেও হবিগঞ্জ পাউবো এসডিই এম.এল সৈকতকে প্রতিদিন আকস্মিক পরিদর্শনকালে কাজের গুণগতমান নিবিড় পর্যবেক্ষণ করতে দেখা যায়।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com