রবিবার, ২০ অক্টোবর ২০১৯, ০৬:৫৫ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
চুনারুঘাট সীমান্তের মাদক সম্রাট দুলন গ্রেফতার ॥ এলাকায় উল্লাস, মিষ্টি বিতরণ শহরের চাঞ্চাল্যকর মা ও মেয়েকে হত্যার দায়ে তাজুল গ্রেফতার হবিগঞ্জে কনফারেন্সে ড. বোরহান উদ্দিন ॥ ভারত উপমহাদেশে আ’লা হযরত ছিলেন আশির্বাদ স্বরূপ বাহুবলে দুই ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে চালক ও হেলপার নিহত খেলাধূলার উন্নয়নে আন্তরিকতা অব্যাহত থাকবে-এমপি আবু জাহির বাহুবলে ৭ কেজি গাঁজাসহ দুই মাদক ব্যবসায়ী গ্রেপ্তার বাংলাদেশ পুস্তক প্রকাশক ও বিক্রেতা সমিতি হবিগঞ্জ জেলা শাখার বার্ষিক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত ঈদে মিলাদুন্নবী (দঃ) উপলক্ষে বিশেষ পরামর্শ সভা অনুষ্টিত বানিয়াচঙ্গের এক গৃহবধূ সাপের কামড়ে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে বাইপাস সড়কে অবৈধভাবে আবারো জায়গা দখল চলছে
মাধবপুরে দুর্বৃত্তের হামলায় আহত মাতব্বর জহিরুল মারা গেছেন

মাধবপুরে দুর্বৃত্তের হামলায় আহত মাতব্বর জহিরুল মারা গেছেন

আবুল হোসেন সবুজ, মাধবপুর থেকে ॥ মাধবপুরে দুর্বৃত্তের হামলায় আহত জহিরুল ইসলাম (৭৫) মারা গেছেন। গতকাল মঙ্গলবার দুপুর দেড়টার দিকে ঢাকার ধানমন্ডি কিডনি জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। নিহত জহিরুল ইসলাম উপজেলার চৌমুহনী ইউনিয়নের শিবনগর গ্রামের মৃত সমসু মিয়ার ছেলে।
নিহতের পারিবারিক ও প্রতিবেশি সূত্রে জানা গেছে, গত রবিবার দিবাগত রাত ৩টার দিকে ৭/৮জনের এক দল দুর্বৃত্ত জানালা ভেঙ্গে জহিরুলের বসত ঘরে প্রবেশ করে নগদ টাকা খুজতে থাকে। এসময় তিনি বাধা দিলে দুর্বৃত্তরা ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে তাকে রক্তাক্ত জখম করে পালিয়ে যায়। পরে পরিবারের লোকজনের চিৎকারে আত্মীয়-স্বজন ও প্রতিবেশিরা পৌছে তাকে উদ্ধার করে প্রথমে মাধবপুর ও পরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ, অতপর ধানমন্ডি কিডনি জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করেন। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গতকাল তিনি মারা যান।
পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, একই গ্রামের উমেদ আলীর বোন নুরুন্নাহার মধ্যপ্রাচ্য থাকে। সেখানে ওই মহিলা কাজ করে যা উপার্জন করে তা তার মা সাবানুর এর কাছে পাঠায়। কিন্তু উমেদ আলী সেই টাকা নিয়ে খরচ করে ফেলে। মেয়ের কষ্টার্জিত টাকা ছেলের কাছ থেকে রক্ষা করার উপায় না পেয়ে উমেদ আলীর মা সম্প্রতি একই গ্রামের মাতব্বর জহিরুল ইসলামের কাছে ১ লাখ টাকা জমা দেন। জহিরুল ইসলাম সেই টাকা ঘরে জমা রাখেন। সোমবার দিবাগত রাতে উমেদ আলী ও তার দুই ছেলে ওই টাকা আত্মসাতের জন্য জহিরুল ইসলাম এর বাড়ীতে দরজা ভেঙ্গে প্রবেশ করে। তারা ট্রাংকের তালা ভেঙ্গে টাকা নেয়ার সময় জহিরুল ইসলামের ঘুম ভাঙ্গলে তিনি তাদেরকে দেখে ফেলেন। তখন উমেদ আলী ও তার ছেলেরা জহিরুল ইসলামের মাথায় আঘাত করে। গুরুতর অবস্থায় তাকে মাধবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে ঢাকায় প্রেরণ করেন।
কাশিমনগর পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ মনোয়ার হোসেন এর নেতৃত্বে পুলিশ উমেদ আলীর ছেলে সজীবকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য গতকাল মঙ্গলবার সকালে আটক করেছে বলে জানিয়েছেন মাধবপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোকতাদির হোসেন।
তিনি আরো জানান, টাকা আত্মসাতের বিষয়টি দেখে ফেলায় জহিরুল ইসলামকে খুন করা হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। তদন্তের মাধ্যমে প্রকৃত রহস্য উদঘাটন হবে বলেও জানান তিনি।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com