শুক্রবার, ১৪ অগাস্ট ২০২০, ০২:৪৫ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
জলমহাল নিয়ে সংঘর্ষে জাহির হত্যার জের ॥ নবীগঞ্জের দেবপাড়ায় আতঙ্কে রাত কাটে নারী-শিশুদের শহরের কোর্ট স্টেশন এলাকায় অমিত ভট্টাচার্য্যরে ঝুঁকিপূর্ণ ভবন শহরের অনন্তপুরে কৃষকলীগের অফিস ভাংচুর ॥ ৪ জন আহত ৩২৭ রোগীর মাঝে দেড় কোটি টাকার সরকারি সহায়তা বিতরণ করলেন এমপি আবু জাহির তাসনুভা শামীম ফাউন্ডেশনের প্রতিবন্ধি স্কুল ও পূনর্বাসন কেন্দ্র পরিদর্শন করেছেন সিলেট রেঞ্জের অতিরিক্ত ডিআইজি স্বাস্থ্য বিধি না মেনে হোটেল রেস্তোরায় চলছে ব্যবসা নবীগঞ্জে হত্যা মামলার আসামীসহ গ্রেফতার ২ নবীগঞ্জে কমিটি না দেয়ার জন্য নির্বাহী কর্মকর্তার নিকট অভিযোগ জাতীয়তাবাদী তরুণ দল হবিগঞ্জ জেলা শাখার নতুন কমিটি ঘোষণা নবীগঞ্জে মাসিক আইনশৃংখলা কমিটির সভায় ॥ বরখাস্তকৃত চেয়ারম্যান মুকুলের বিরুদ্ধে মামলা না হওয়ায় ক্ষোভ
সদর হাসপাতালে নার্সদের কর্ম দক্ষতা নিয়ে নানা অভিযোগ

সদর হাসপাতালে নার্সদের কর্ম দক্ষতা নিয়ে নানা অভিযোগ

স্টাফ রিপোর্টার ॥ হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালে নার্সদের কর্ম দক্ষতা নিয়ে অভিযোগ উঠেছে। হাসপাতালে আসা রোগীদের সার্বক্ষণিক দেখ ভালের জন্য নার্স নিয়োগ করা হলেও প্রশিক্ষিত নার্স ছাড়া শিক্ষানবীশদের দিয়ে দায়িত্ব পালন করায় ঘটছে দুর্ঘটনা। গতকাল বৃহস্পতিবার সড়ক দুর্ঘটনায় আহত হন রহিমা বেগম ও সাহেদা বেগম এবং দক্ষিণ সাঙ্গর গ্রামের মফিজা আক্তার। তাদের স্বজনদের অভিযোগ গতকাল বৃহস্পতিবার তারা হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে এলে সিনিয়র নার্সরা গল্প গুজব আর আড্ডায় মেতে থাকেন। সিনিয়র নার্স কর্মস্থলে দায়িত্ব পালন না করে শিক্ষানবীশ নার্স দিয়ে দায়িত্ব পালন করান। ফলে কয়েকজন শিক্ষানবীশ নার্স আহত হাফিজপুরের রহিমা বেগম ও সাহেদা বেগম এবং মফিজা বেগমের হাতে ১০ থেকে ১২বার ইনজেকশন পুশ করেন। বারবার ইনজেকশন পুশ করতে গিয়ে তাদের অনেকের হাত থেকে অতিরিক্ত রক্ত বের হয়ে যায়। এ সময় আহত রোগীরা সিনিয়র নার্স দ্বারা ইনজেকশন পুশ করার কথা বললেও সিনিয়র নার্সরা না আসায় তাদের দায়িত্ব পালন নিয়ে সমালোচনার সৃষ্টি হয়। এ নিয়ে গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে নার্সদের সাথে রোগী ও তাদের স্বজনদের বাকবিতন্ডা ও হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। গতকাল সরেজমিনে হাসপাতালে গেলে এর সত্যতা পাওয়া যায়। এ ব্যাপারে কয়েকজন সিনিয়র নার্স জানান, ২৫০ শয্যার এ হাসপাতালে সিনিয়র নার্সের সংখ্যা কম থাকায় একসাথে অনেক রোগীর সেবা দিতে গিয়ে তাদেরকে হিমশিম খেতে হয়। যার কারণে তারা শিক্ষানবীশদের ব্যবহার করতে বাধ্য হয়। অনেক সময় রোগীর হাতের রগ না পাওয়ায় এ ঘটনা ঘটে। এতে দায়িত্ব পালনে অবহেলার কিছুই নেই।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com