মঙ্গলবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০১:৪৩ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
হবিগঞ্জে বহু কাঙ্খিত পুরোনো খোয়াই নদীর অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ শুরু শারদীয় দুর্গাপুজাকালে মন্ডপগুলোতে ডিজে বন্ধ থাকবে-এসপি মোহাম্মদ উল্লাহ কয়েন বিভ্রাটে জেলাবাসী বাংলাদেশ কেন্দ্রীয় ব্যাংকের বিধি থাকলেও প্রয়োগ নেই প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে জাতীসংঘের অধিবেশনে যোগ দিতে যুক্তরাষ্ট্র যাচ্ছেন হবিগঞ্জ চেম্বার প্রেসিডেন্ট মোতাচ্ছিরুল হবিগঞ্জ পৌর যুবলীগের আহবায়ক কমিটি গঠন নবীগঞ্জে ঢাকাইয়া নারীসহ আটক ৪ বেগম জিয়ার মুক্তির দাবিতে নবীগঞ্জে পোষ্টার লাগলেন মেয়র ছাবির চৌধুরী বাহুবলে সিএনজিকে জরিমানা করায় শ্রমিকদের মহাসড়ক অবরোধ বিকেজিসি স্কুলে রচনা প্রতিযোগিতায় পুলিশ সুপার ॥ মোবাইলের অপব্যবহারে সামাজিক বন্ধন নষ্ট হচ্ছে নবীগঞ্জে সর্বদলীয় উলামা পরিষদের জরুরী সভা
তিন টাকার বিদ্যুৎ খরচেই চলবে মোটরসাইকেল!

তিন টাকার বিদ্যুৎ খরচেই চলবে মোটরসাইকেল!

এক্সপ্রেস ডেস্ক ॥ নিজের প্রচেষ্টায় যে সব কিছু করা সম্ভব এমনটাই প্রমান করলেন ভোলার এক যুবক। তিনি উদ্ভাবন করেছেন জ্বালানিবিহীন মোটরসাইকেল। সম্পূর্ণ নিজস্ব প্রযুক্তিতে তিনি মোটরসাইকেলটি আবিষ্কার করেন। যা কোন ধরনের তেল-গ্যাস ছাড়া ধোঁয়াবিহীন শতভাগ পরিবেশ বান্ধব। চট্টগ্রামের সীতাকুন্ডের পেশকারপাড়া এলাকার মোঃ তাজুল ইসলামের কলেজ পড়ুয়া ছেলে মোঃ মনোয়ারুল ইসলাম মুন্নার মোটরসাইকেল আবিষ্কার নিয়ে এলাকায় রীতিমত হৈ চৈ পড়ে গেছে। গত কিছুদিন ধরে বিভিন্ন এলাকায় পরীক্ষামূলকভাবে চালানো তার আবিষ্কৃত মোটরসাইকেলটি নিয়ে উৎসুক জনতার ব্যাপক উদ্দীপনা লক্ষ্য করা গেছে। তরুণ উদ্ভাবক মনোয়ারুল ইসলাম মুন্নার সাথে কথা বলে জানা যায়, তার আবিস্কৃত মোটর সাইকেলটি চালাতে কোন প্রকার তেল গ্যাস লাগেনা। এটা সম্পূর্ণ ব্যাটারীচালিত। এটি একবার চার্জ করলে ৩০ কিলোমিটার যায় এবং স্বয়ংক্রিয় চার্জের কারণে আরও ৩০ কিলোমিটার যায়। অর্থাৎ একবার চার্জ করলে ৬০ কিলোমিটার পর্যন্ত চলতে পারে। প্রতিবার চার্জ করতে মাত্র ৩ থেকে ৪ টাকা খরচ হয় বলে জানিয়েছে মুন্না। তাছাড়া তার আবিষ্কৃত এই মোটরসাইকেলের গতি ৪৫ কিলোমিটার এবং এই মোটরসাইকেলের চেসিস, বডিসম্পূর্ণ স্টিলনেসষ্টিলের তৈরি। তাই শতবছর পরও এটিতে কোন মরিচা আসবেনা এবং সাধারণ মোটর সাইকেলের মতই বিভিন্ন সিগনালবাতি, হর্ন, হেডলাইট, ব্রেকলাইট ও ড্রাম ব্রেকও কাজ করবে।
এমন উদ্ভাবনের শখ বা ইচ্ছা নিয়ে জানতে চাইলে মুন্না জানান, এখনো ইন্টারমিডিয়েড পড়ছেন মুন্না। পারিবারিক পেশার কারণে ছোটবেলা থেকেই বাইক চালাতে হত। বাইকের তেল কিনতে বেশি টাকা অপচয় হওয়ার বিড়ম্বনা থেকে বাচতে এবং সাশ্রয়ি হতে এই পরিকল্পনা মাথায় রেখে গত ১ বছর ধরে নিরলস চেষ্টা করে অবশেষে সফল হয়েছেন দাবী মুন্নার। এখন বাণিজ্যিকভাবে প্রতি পিস মোটরবাইক তৈরিতে তার খরচ হতে পারে ৫০ হাজার টাকা বলেও জানান মুন্না। এই মোটরসাইকেল কন্ট্রোল করা খুবই সহজ ও নিরাপদ। মুন্না আরো জানায় বর্তমানে তার মোটরসাইকেলের নাম দেওয়া হয়েছে এঅখঅঢণ ইওকঊ। কোন কোম্পানী যদি তার সাথে কন্ট্রাকে আসে তাহলে সে তার আবিস্কৃত মোটরসাইকেলটি সল্পমূল্যে বাজারজাত করবে। মুন্নার এই মোটরসাইকেল আবিস্কার ছাড়াও আরো অনেক আবিষ্কার রয়েছে, তারমধ্যে উল্লেখযোগ্য হল, মোবাইল দিয়ে মেশিন স্টার্ট দেওয়ার যন্ত্র এবং পানির ট্যাংক খালি হলে অটোমেটিক মোটর ষ্ট্রাট হওয়ার যন্ত্র। এ মোটর সাইকেলটি বাণিজ্যিক উৎপাদনে কোনো প্রতিষ্ঠান বা সরকার এগিয়ে এলে পরিবেশবান্ধব মোটরসাইকেলটি দেশের জ্বালানি খরচ কমানোর পাশাপাশি বিদেশেও রফতানি করা সম্ভব হবে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি।
উল্লেখ্য, অতি সম্প্রতি হবিগঞ্জের রিচি গ্রামের নুরুজ্জামান নামে জনৈক যুবক সম্পুর্ণ বাতাস চালিত মোটরসাইকেল আবিষ্কার করে এলাকায় হৈ চৈ ফেলে দেন।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com