শনিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৪:২৭ পূর্বাহ্ন

যৌতুকের জন্য হত্যা ॥ আদালতে মামলা দায়ের ॥ দক্ষিণ সাঙ্গরে জেসমিন হত্যা মামলা এফআইআর গণ্যে রুজুর নির্দেশ

যৌতুকের জন্য হত্যা ॥ আদালতে মামলা দায়ের ॥ দক্ষিণ সাঙ্গরে জেসমিন হত্যা মামলা এফআইআর গণ্যে রুজুর নির্দেশ

স্টাফ রিপোর্টার ॥ বানিয়াচং উপজেলার দক্ষিণ সাঙ্গরে গৃহবধু জাসমিন ওরফে জেসমিনের হত্যা মামলাটি এফআইআর গণ্যে রুজু করতে বানিয়াচং থানার ওসিকে নির্দেশ দিয়েছেন নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-২ এর বিচারক জিয়াউদ্দিন মাহমুদ। নিহত জেসমিন আক্তারের মাতা কুলসুমা বেগম বাদী হয়ে জেসমিন আক্তারের স্বামীসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা দায়ের করেন। আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে এফআইআর গন্যে রুজু করতে বানিয়াচং থানার ওসিকে নির্দেশ দেন। মামলার আসামীরা হল নিহত জেসমিন আক্তারের স্বামী দনি সাঙ্গর গ্রামের জুনাইদ মিয়া, জুনাইদ মিয়ার ৩ ভাই ছমেদ মিয়া, জুবায়েল মিয়া, আলমগীর মিয়া, জুনাইদ মিয়ার ভাবী রুশেনা আক্তার, লাখাইর সিংহগ্রাম গ্রামের ফরহাদ মিয়া।
জানা যায়, জুনাইদ মিয়া ও ভাবী রুশেনা আক্তারের মধ্যে পরকিয়া প্রেমের সম্পর্ক ছিল। তা মেনে নিতে পারেনি নিহত জেসমিন আক্তার। এনিয়ে স্বামী স্ত্রীর মধ্যে বিরোধ দেখা দেয়। এক পর্যায়ে আসামী জুনাইদ মিয়া জেসমিন আক্তারের কাছে ২ লক্ষ টাকা যৌতুক দাবী করে। যৌতুক দিতে অস্বীকার করায় গত ১ সেপ্টেম্বর রাতে জেসমিন আক্তারকে খুন করা হয়। খুনের ঘটনা ভিন্নখাতে প্রবাহিত করতে প্রচার করা হয় আত্বহত্যার কাহিনী। জেসমিন আক্তারের বাবা আছকির আলমকে দিয়ে থানায় একটি মৃত্যু সংক্রান্ত আইনগত ব্যবস্থা গ্রহনের আবেদন বিষয়ে একটি লিখিত কাগজে টিপসই নেয়া হয়। বিষয়টি ব্যাপকভাবে প্রচার করা হয় যে, জেসমিন আক্তার আত্বহত্যা করেছে। গত ৬ সেপ্টেম্বর তারিখে জেসমিন আক্তারের মাতা কুলসুমা বেগম বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে যৌতুক দিতে অস্বীকার করায় জেসমিনকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে মর্মে মামলা দায়ের করেন। আদালত মামলাটি এফআইআর গন্যে রুজুর নির্দেশ দেন। আদালতের আদেশের সংবাদ শুনার পর থেকে আসামীরা বাড়ি থেকে পালিয়ে যায়। নিহত জেসমিনের মাতা কুলসুমা বেগম জানান।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com