বৃহস্পতিবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২১, ০৬:৪০ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে পুত্রের কান্ড ! সম্পত্তির জন্য পুত্রের অত্যাচারে চিকিৎসাধীন পিতা-মাতার পলায়ন শায়েস্তাগঞ্জে তানভীর হত্যাকান্ড ॥ একমাত্র ছেলেকে হারিয়ে নিভে গেলো পরিবারের আলোর মশাল লাখাইয়ের ৬ ইউনিয়নে কম্পিউটার বিতরণ করলেন এমপি আবু জাহির চুনারুঘাট ও বাহুবলের বিভিন্ন স্থানে রাতের আধারে জমজমাট হয়ে উঠে জুয়া খেলার আসর হবিগঞ্জ পৌরসভায় বিএনপির দলীয় মনোনয়ন ফরম জমা দিলেন মেয়র প্রার্থী রিংগন পুলিশ সুপারের সাথে হবিগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী নূরুল আমিন ওসমানের শুভেচ্ছা বিনিময় বাহুবলের মিরপুরে বন্ধবন্ধু ক্রিকেট টুর্নামেন্টের বর্ণাঢ্য উদ্বোধন কিবরিয়া হত্যাকান্ডের ১৬ বছর পূর্তির দিনে সাক্ষ্য দিলেন ৪ জন শায়েস্তাগঞ্জে মাপে কম দেয়ায় ফিলিং স্টেশনসহ ৪টি প্রতিষ্ঠানকে ভ্রাম্যমান আদালতের অর্থদন্ড সাবেক অর্থমন্ত্রী কিবরিয়ার সমাধিতে জেলা যুবলীগের পুষ্পস্তবক অর্পণ
নতুন প্রতিষেধকে ৪৮ ঘণ্টায়ই ধ্বংস হবে করোনাভাইরাস: অস্ট্রেলিয়ান গবেষক

নতুন প্রতিষেধকে ৪৮ ঘণ্টায়ই ধ্বংস হবে করোনাভাইরাস: অস্ট্রেলিয়ান গবেষক

এক্সপ্রেস ডেস্ক ॥ চীনের উহান থেকে উৎপত্তি করোনাভাইরাস এখন গোটা বিশ্বের জন্য আতংক হয়ে দাঁড়িয়েছে। প্রাণঘাতী এই ভাইরাসের কোনো প্রতিষেধক না থাকায় পুরো দুনিয়া হিমশিম খাচ্ছে। তবে ভাইরাসটির প্রতিষেধক বানানোর জন্য অনেক চেষ্টা করা হচ্ছে।
এরই মধ্যে কিছুটা আশাজাগানিয়া খবর পাওয়া গেছে। অস্ট্রেলিয়ার মোনাশ বিশ্ববিদ্যালয়ের নেতৃত্বাধীন এক গবেষণায় দেখা গেছে, অ্যান্টি-প্যারাসিটিক বা পরজীবীনাশী ওষুধ ইভারমেকটিনের এক ডোজই করোনাভাইরাসকে থামিয়ে দিতে পারে। ৪৮ ঘণ্টার মধ্যেই প্রাণঘাতী ভাইরাসটিকে মেরে ফেলছে এই ওষুধ। খবর অস্ট্রেলিয়ার সংবাদমাধ্যম ৭নিউজের।
অ্যান্টিভাইরাল রিসার্চ জার্নালে এই গবেষণাটি প্রকাশিত হয়েছে। গবেষণায় দাবি করা হচ্ছে, অনুমোদিত এই ওষুধ এইচআইভি, ডেঙ্গু ও ইনফ্লুয়েঞ্জাসহ ভাইরাসের বিরুদ্ধে কার্যকর।
শুক্রবার মোনাশ বায়োমেডিসিন ডিসকভারি ইন্সটিটিউটের ড. ক্যালিয়ে ওয়াগস্টাফ বলেন, আমরা দেখেছি, ২৪ ঘণ্টার মধ্যে সব ভাইরাল আরএনএ (কার্যকরভাবে ভাইরাসের সব জিনগত উপাদান ধ্বংস) থেকে মুক্তি দিতে পারে ইভারমেকটিনের এক ডোজ।
তবে ওষুধটি শুধুমাত্র ল্যাবেই পরীক্ষা করা হয়েছে। এখনো মানবদেহে পরীক্ষা করা হয়নি। বিষয়টি নিয়ে আরও গবেষণা করা হবে বলে জানানো হয়েছে। গবেষকরা বলছেন, এখন তাদের পরবর্তী পদক্ষেপটি হবে, মানবদেহের জন্য সঠিক ডোজ নির্ধারণ এবং মানুষের জন্য নিরাপদ কিনা তা নিশ্চিত করা।
ড. ক্যালিয়ে ওয়াগস্টাফ বলেন, আমাদের বিশ্বব্যাপী মহামারী দেখা দিয়েছে। অনুমোদিত কোনো চিকিৎসা নেই এই রোগের। তবে আমাদের এমন একটি ভ্যাকসিন তৈরি করতে হবে যা এরই মধ্যে বিশ্বজুড়ে পাওয়া যায়। আর তা মানুষকে দ্রুত সহায়তা করতে পারে।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com