বুধবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১১:১৬ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
ড্রেজার মেশিন দিয়ে বালু উত্তোলনের দায়ে বানিয়াচং উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতিকে জরিমানা করায় বিক্ষোভ নবীগঞ্জে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করায় ১ লাখ টাকা জরিমানা ড্রেজার মেশিন পুড়িয়ে ধ্বংস হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতাল ! নবীগঞ্জে ধান চাল ও মিল মালিক সমিতির কমিটি গঠন হবিগঞ্জ জেলা যুবদলের বিবৃতি ॥ সাংগঠনিক কার্যক্রমকে বাধাগ্রস্ত ও প্রশ্নবিদ্ধ করতেই যুবদল নেতা জালাল আহমেদের বিরুদ্ধে অপপ্রচার নবীগঞ্জে সুদখোরের বিরুদ্ধে অভিযোগ ॥ তদন্তে পুলিশ প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিনে দরিদ্রদের মাঝে মোতাচ্ছিরুল ইসলামের শাড়ী-লুঙ্গী বিতরণ শহরের গোসাইপুরে সাপের দংশনে ১ ব্যক্তি গুরুতর আহত পানিউমদায় ডায়মন্ড লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানীর মাসিক উন্নয়ন সভা অনুষ্ঠিত বাংলাদেশ দলিল লেখক সমিতি হবিগঞ্জ সদর উপজেলা কমিটি গঠন
গ্রেফতারকৃত ভূয়া এএসপি রাহুলের সহযোগীদের অনুসন্ধানে মাঠে পুলিশ

গ্রেফতারকৃত ভূয়া এএসপি রাহুলের সহযোগীদের অনুসন্ধানে মাঠে পুলিশ

স্টাফ রিপোর্টার ॥ ভূয়া এএসপি নিলাদ্রী শেখর রাহুল (৩৫) গ্রেফতার হওয়ার পর তার ধর্ম ভাই বহু অপকর্মের হোতা শেখ মোঃ জালাল মিয়াকে খোঁজে বের করতে সন্ধানে নেমেছে পুলিশ। তাদের বিরুদ্ধে বেরিয়ে আসছে অপকর্মের নানা কাহিনী। তাদের প্রতারণার শিকার হয়ে অনেক বেকার যুবক নিঃস্ব হয়ে গেছেন। ভূক্তভোগীরা জানান, রাহুলের ধর্ম ভাই শহরের শ্যামলী এলাকার বাসিন্দা বানিয়াচঙ্গ উপজেলার গুনই গ্রামের শেখ মোঃ জালাল এর মাধ্যমেই লোকদেরকে সংগ্রহ করে চাকুরী ও বিভিন্ন তদবিরের প্রলোভন দিয়ে টাকা পয়সা হাতিয়ে নিত ওই প্রতারক চক্রটি। খোঁজ নিয়ে জানা যায়, জালাল একজন বেকার লোক। কিন্তু তার জীবিকা নির্বাহের কোন পেশা নেই। তবুও হবিগঞ্জ শহরের শ্যামলী এলাকায় ৩ তলা কোটি টাকা মূল্যের বিলাসবহুল বাড়ি ও রয়েছে গাড়ী। হবিগঞ্জসহ বিভিন্ন জেলায় তাদের একটি সংঘবদ্ধ সিন্ডিকেট রয়েছে। আর এই সিন্ডিকেট দিয়ে তারা বিভিন্ন লোকদের কাছ থেকে প্রলোভন দিয়ে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়ে গা-ঢাকা দেয়। ১৯ জানুয়ারী ঢাকার প্রগতি ইন হোটেলে নারীসহ ভূয়া এএসপি গ্রেফতার হলে এসব কাহিনী একের পর এক বেরিয়ে আসছে। গতকাল রোববার ঢাকা থেকে একটি গোয়েন্দা টিম হবিগঞ্জ শহরের রাহুল ও তার ধর্ম ভাই জালাল মিয়ার ব্যাপারে অনুসন্ধান শুরু করে। তবে জালালকে খোঁজে পাওয়া যায়নি। তাছাড়া জালাল এর সাথে রাহুলের বিভিন্ন অন্তরঙ্গ মূহূর্তেও ছবি ইতোমধ্যে ফেইসবুক থেকে ডিলিট করা হয়েছে। জালাল ও রাহুল এর একাধিক মোবাইল ফোন রয়েছে। তারা দুইজন মিলে কখনও এএসপি কখনও ডিসি আবারও কখনও বিভিন্ন অফিসার পদবি ব্যবহার করে এসব প্রতারণা করছে। খুব কষ্ট করে কৌশলে অভিয্ক্তু জালাল এর মোবাইল ফোন নাম্বার সংগ্রহ করে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, এএসপি বলে কথা, সবাই তার সাথে মিশিছে, আমি মিশলে দোষ কি? শুনেছি সে ধরা পড়েছে।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com