বুধবার, ২৭ মে ২০২০, ০২:৫৪ পূর্বাহ্ন

লোভনীয় অফার দিয়ে প্রতারণা নবীগঞ্জের সৈয়দা রাখা গ্রেফতার

লোভনীয় অফার দিয়ে প্রতারণা নবীগঞ্জের সৈয়দা রাখা গ্রেফতার

কিবরিয়া চৌধুরী, নবীগঞ্জ থেকে ॥ লোভনীয় অফার দিয়ে বিরাট অংকের টাকা আত্মসাতের অভিযোগে নবীগঞ্জের সৈয়দা রাখা বেগম (৩৪)কে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গত সোমবার দিবাগত রাত ১১ টায় বোনের বাড়িতে লুকানো থাকা অবস্থায় তাকে গ্রেফতার করে নবীগঞ্জ থানা পুলিশ। গ্রেফতারকৃত রাখা বেগম নবীগঞ্জ উপজেলার বাউসা ইউনিয়নের নাদামপুর গ্রামের সৈয়দ আব্দুল মতিনের কন্যা ও মৃত সাদক আলীর স্ত্রী।
পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ২০০৭ সালের ২৫এপ্রিল রাখা বেগমসহ তার স্বামী সাকদ আলী, মোঃ শফিক আলী, আলী হোসেন ও সুর্যবান বিবি মিলে সিলেট জেলার বিশ্বনাথ উপজেলার ইসলামের গাঁও গ্রামের সৈয়দ শহিদুর রহমান ওরফে শহিদ আলীর স্ত্রী যুক্তরাজ্য প্রবাসী শেখ সুবেরা খাতুনের বাড়িতে যান। এ সময় তারা সিলেটি গ্র“প এন্ড কোম্পানি নামের একটি কোম্পানীর ব্যবস্থাপনা পরিচালক হিসেবে পরিচয় দিয়ে ৩জনের শেয়ার বিক্রি করার প্রস্তাব দেন। প্রতিটি শেয়ারের মূল্য ৬০লাখ করে দুটি শেয়ার বাবদ ১কোটি ২০লাখ টাকা নগদ অথবা কিস্তিতে পরিশোধ করা যাবে বলেও সুবেরাকে প্রস্তাব দেয়া হয়। তাদের প্রস্তাবে শেখ সুবেরা খাতুন রাজি হন এবং বিভিন্ন কিস্তিতে ৮৩ লাখ ৪৯ হাজার ৬৫ পরিশোধ করেন। পরবর্তীতে প্রতিশ্র“তি মোতাবেক প্ল্যাট বাড়ি বুঝিয়ে না দিয়ে টাকা আদায়ের বিষয়টি তারা অস্বীকার করে। নিরুপায় হয়ে শেখ সুবেরা খাতুনের নিকটাত্মীয় বিশ্বনাথ উপজেলার ইসলামের গাঁও গ্রামের আব্দুল খালিকের পুত্র মোঃ মুক্তার হোসেন বাদী হয়ে সিলেট সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে সৈয়দা রাখা বেগম, সাকদ আলী, শফিক আলী, আলী হোসেন ও সূর্যবান বিবিসহ ৫জনকে আসামী করে প্রতারণা মামলা দায়ের করেন। মামলা দায়েরের পর থেকে প্রধান আসামী সৈয়দা রাখা বেগম দীর্ঘদির যাবত পলাতক ছিলেন। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে নবীগঞ্জ থানার এসআই চাঁন মিয়া একদল পুলিশ নিয়ে তাকে তার বোনের বাড়ি উপজেলার বড়ভাকৈর পূর্ব ইউনিয়নের হরিনগর গ্রাম থেকে গ্রেফতার করেন। তার গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন নবীগঞ্জ থানার এসআই চাঁন মিয়া।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com