সোমবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৯:২২ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
সিলেট এমসি কলেজে স্বামীকে বেধে স্ত্রীকে ধর্ষণের ঘটনায় ॥ হবিগঞ্জ থেকে ধর্ষক অর্জুন রনি ও রবিউল গ্রেফতার মাধবপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় চালক ও হেলপার নিহত নবীগঞ্জের প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা সাইফুলের অনিয়মের তদন্ত শুরু নবীগঞ্জে ৭ মামলার পলাতক আসামী ইয়াহিয়া অধরা বানিয়াচঙ্গের নয়াপাথারিয়া গ্রামের ডাবল মার্ডার মামলার আসামী যুবদল নেতা কুহিনুর আলম কারাগারে ডাঃ মুশফিক হুসেন চৌধুরীকে সংবর্ধনা সিলেট বিভাগের শ্রেষ্ট উপজেলা চেয়ারম্যান মোতাচ্ছিরুল ইসলামকে গণসংবর্ধনা প্রদান হবিগঞ্জ জীবন বীমা কর্পোরেশন সেলস অফিসের ব্যবসা উন্নয়ন সভা অনুষ্ঠিত শহরে নাম্বার প্লেইটের দাবিতে শ্রমিকের বিক্ষোভ ও সমাবেশ দাবী আদায়ে অনশনের হুমকি লাখাইয়ে মেম্বারের বিরুদ্ধে চাল আত্নসাতের অভিযোগ
শহরে পিতৃত্বের স্বীকৃতির দাবীতে দুই মাসের শিশু কোলে নিয়ে মা থানায়

শহরে পিতৃত্বের স্বীকৃতির দাবীতে দুই মাসের শিশু কোলে নিয়ে মা থানায়

স্টাফ রিপোর্টার ॥ স্টাফ রিপোর্টার ॥ দুই মাসের ফুটফুটে পুত্র সন্তানের পিতৃত্বের স্বীকৃতি পেতে আইনের আশ্রয় নিয়েছে সুপ্তা সুত্রধর নামের অসহায় এক কিশোরী। তার এ আইনি লড়াইয়ে সর্বাত্মক সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েছেন সদর থানার ওসি। গত মঙ্গলবার সদর উপজেলার রামপুর গ্রামের মৃত উমা চরণ সূত্রধরের লম্পট পুত্র শ্রীপদ সুত্রধরসহ কয়েকজনকে আসামী করে মামলা দায়ের করা হয়। ওসি বলেন, লম্পট শ্রীপদ সুত্রধরসহ তার সহযোগিদের গ্রেফতার করতে পুলিশ শীঘ্রই সাড়াশি অভিযান চালাবে।
মামলার বিবরণে জানা যায়, কয়েক বছর আগে সদর উপজেলার রামপুর গ্রামের সুপ্তাকে স্কুলে আসা যাবার পথে উত্যক্ত করতো শ্রীপদ সূত্রধর। তার সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তুলে। সুপ্তার সাথে শারিরীক সম্পর্ক গড়ে তুলে। লম্পট শ্রীপদ ওই কিশোরীকে বিয়ের আশ্বাসে ক্রমাগতভাবে শারিরীক সম্পর্ক চালিয়ে যেতে থাকে। এক পর্যায়ে সুপ্তা অন্তঃস্বত্তা হয়ে পড়ে। বিষয়টি শ্রীপদ ও তার পরিবারকে জানালে তারা সামাজিকভাবে সমাধান করবে বলে আশ্বাস প্রদান করে। কিন্তু সমাধান না করে এড়িয়ে যায়। এ নিয়ে সম্প্রতি স্থানীয় পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশ হলে লম্পট শ্রীপদের পরিবার আবারো সমাধানের আশ্বাস দেয়। প্রায় তিন মাস পূর্বে ওই কিশোরী একটি পুত্র সন্তান প্রসব করে। কিন্তু ওই লম্পটের পরিবারের পক্ষ থেকে কিশোরী ও তার পুত্রকে স্বীকৃতি না দিয়ে সময় ক্ষেপন করে। এদিকে দিনে দিনে ওই কিশোরীর পুত্র সন্তানটি বড় হতে থাকলে বাড়তে থাকে তার দুঃশ্চিন্তা। সুষ্ঠু বিচারের আশায় দ্বারস্থ হয় এলাকার সমাজপতিদের নিকট। কিন্তু পিতৃহীন দরিদ্র ওই কিশোরী পরিবার আর্থিকভাবে স্বচ্ছল না হওয়ায় বিচার পায়নি। স্থানীয় সুত্র জানায়, ঘটনা সত্য, কিন্তু কিশোরীর পরিবারটি দরিদ্র হওয়ায় কতিপয় সমাজপতিদের কারণে ন্যায় বিচার পাওয়া থেকে বঞ্চিত হয়েছে ওই কিশোরী। নিরুপায় হয়ে সুপ্তা আদালতে মামলা দায়ের করে। মামলাটি এফআইআর এর জন্য আদালত থেকে হবিগঞ্জ সদর মডেল থানায় প্রেরণ করা হয়। এর প্রেক্ষিতে গতকাল হবিগঞ্জ সদর থানার ওসি ইয়াছিনুল হক সুপ্তাকে খবর নিয়ে থানায় নিয়ে আসেন। এ সময় সুপ্তার জবানবন্দি শুনে তাৎক্ষনিক মামলাটি এফআইআর ভূক্ত করেন। পরে শিশুটিকে দুধ খাওয়ানোর জন্য ১ হাজার টাকা আর্থিক সহযোগিতা করেন ওসি ইয়াছিনুল হক।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com