সোমবার, ২৬ অগাস্ট ২০১৯, ১২:৩০ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
লাখাইয়ে পারিবারিক বিষয় নিয়ে বাকবিতন্ডা ॥ পুত্রের হাতে পিতা খুন হবিগঞ্জে স্থানীয় সরকার মন্ত্রী তাজুল ইসলাম ॥ রোহিঙ্গাদের নিজ দেশে প্রত্যাবর্তনই উত্তম পন্থা শহরের বিভিন্ন স্কুল ও কলেজের সামন থেকে ১২ রোমিও আটক পরিবারের মুছলেখায় মুক্তি ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত হয়ে চুনারুঘাটের ১ জনের মৃত্যু নবীগঞ্জে বউ-শাশুড়ীর ঝগড়া প্রাণ গেল সবুর হোসেনের বঙ্গবন্ধুকে হত্যার মধ্য দিয়ে দেশকে পিছিয়ে দিয়েছিল-এমপি মিলাদ গাজী বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের বাংলা গড়াই হোক জাতীয় শোক দিবসের অঙ্গীকার-এমপি মজিদ খান পইলে শহীদ এনাম স্মৃতি সংঘের ৭ম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত তিতখাই-চান্দপুর সড়কটি সংস্কার কাজ বন্ধ ॥ জনদুর্ভোগ চরমে বানিয়াচঙ্গে চেক ডিজঅনার মামলার সাজা প্রাপ্ত পলাতক আসামী গ্রেপ্তার
বাহুবল উপজেলা যুবলীগ নেতা আব্দুল জলিলের বিরুদ্ধে পুলিশের মামলা দায়ের

বাহুবল উপজেলা যুবলীগ নেতা আব্দুল জলিলের বিরুদ্ধে পুলিশের মামলা দায়ের

স্টাফ রিপোর্টার ॥ বাহুবল উপজেলা যুবলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি আব্দুল জলিলের অত্যাচারে অতিষ্ট হয়ে পড়েছেন মিরপুরবাসী। মামলার ভয় ও বিদ্যুৎ সংযোগের নামে চাদাবাজী, দলীয় প্রভাব খাটিয়ে সাধারণ মানুষের উপর নির্যাতন, প্রশাসনে অবৈধ তদবির বাণিজ্য, জমি দখল নিয়ে পুলিশের সাথে সংঘর্ষ, হত্যা মামলা থেকে আসামীদের নি®কৃতি দেয়ার নামে মোটা অংকের টাকা আত্মসাৎসহ একাধিক অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। তবে পুলিশ বাদী হয়ে আব্দুল জলিলের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হওয়ায় কিছুটা স্বস্থি নেমে এসেছে জনমনে। এ অবস্থায় ভোক্তভোগী এলাকাবাসী অবিলম্বে তার গ্রেফতার দাবী করছেন।
অভিযোগ উঠেছে, মিরপুর ইউনিয়নের পশ্চিম জয়পুর গ্রামের মৃত এরশাদ উল্লার পুত্র আব্দুল জলিল বাহুবল উপজেলা যুবলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি। গত কয়েক বছরে মামলার ভয় দেখিয়ে এলাকার বিরোধী দলীয় নেতাকর্মীসহ সাধারণ মানুষের কাছ থেকে হাতিয়ে নিয়েছেন টাকা।
এলাকাবাসীর অভিযোগ, পল্লী বিদ্যুতের “জিএম” কে নিজের ক্লাসমেট পরিচয় দিয়ে বিদ্যুৎ সংযোগের নামে গ্রামের সহজ সরল বহু সাধারণ মানুষের কাছ থেকে হাতিয়ে নিয়েছেন হাজার হাজার টাকা। সাটিয়াজুরি এলাকার একটি হত্যা মামলার আসামীদের মামলা থেকে নিস্কৃতি দেয়ার প্রলোভনে আত্মসাৎ করেছেন লক্ষাধিক টাকা। আব্দুল জলিল প্রশাসনের প্রায় প্রতিটি সেক্টরে দলীয় প্রভাব খাটিয়ে করছেন অবৈধ তদবির বাণিজ্য। তার এসব কর্মকান্ডে প্রতিবাদ করলে প্রতিবাদকারীর উপর নেমে আসে মামলা ও হামলার খড়গ। যে কারণে তার বিরুদ্ধে মুখ খোলার সাহস নেই এলাকার কারও। যদিও এসব বিষয় নিয়ে স্থানীয় পত্রিকায় আব্দুল জলিলের বিরুদ্ধে সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে।
তবে অবশেষে তার বিরুদ্ধে পুলিশ বাদী হয়ে মামলা দায়ের হওয়ায় কিছুটা হলেও স্বস্থি নেমে এসেছে এলাকার জনমনে। মিরপুর কামারগাও গ্রামে জমি দখলের সময় পুলিশের সাথে সংঘর্ষের অভিযোগে আব্দুল জলিলের বিরুদ্ধে বাহুবল থানার এএসআই খবির উদ্দিন বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেন। যার নং-১৭/১৬। এ ব্যাপারে বাহুবল মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোল্লা মনির হোসেন বলেন, “আব্দুল জলিলের বিরুদ্ধে কিছু অভিযোগ রয়েছে। বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে খতিয়ে দেখা হচ্ছে। জানতে চাইলে অভিযুক্ত আব্দুল জলিল তার বিরুদ্ধে উত্থাপিত সকল অভিযোগ অস্বীকার করে বলেছেন, “সবই ষড়যন্ত্র। একটি মহল ব্যক্তিগত ভাবে আমাকে সমাজে হেয় প্রতিপন্ন ও দলীয় ভাবমুর্তি ক্ষুন্ন করার জন্য অপ-প্রচার চালাচ্ছে।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com