সোমবার, ১৮ জানুয়ারী ২০২১, ০১:০৩ অপরাহ্ন

মাদক ব্যবসা করে চনের ঘর থেকে কোটি টাকার দালানে ॥ বড় বহুলার মাদক ব্যবসায়ী সৈয়দ আলী পুলিশের খাচায়

মাদক ব্যবসা করে চনের ঘর থেকে কোটি টাকার দালানে ॥ বড় বহুলার মাদক ব্যবসায়ী সৈয়দ আলী পুলিশের খাচায়

স্টাফ রিপোর্টার ॥ হবিগঞ্জ শহরতলীর বহুলা গ্রামের বহুল আলোচিত মাদক ব্যবসায়ী সৈয়দ আলীকে আটক করেছে পুলিশ। এ সময় তার সহযোগি জুনাব আলীকেও আটক করা হয়। তাদের কাছ থেকে বিপুল পরিমাণ মাদক ও ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করেছে পুলিশ। তাকে আটক করায় এলাকাবাসীর মধ্যে স্বস্তি ফিরে  এসেছে।
সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে-গতকাল রাত সাড়ে ৯টার দিকে হবিগঞ্জ থানা পুলিশ তাকে ধরতে অভিযান চালায়। বিপুল সংখ্যক পুলিশ তার বাড়িসহ ওই এলাকা ঘেরাও করে। এ সময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে সৈয়দ আলী ও জুনাব আলী হাওরের দিকে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। এ সময় পুলিশ তাদের পিছু ধাওয়া করে গুলি ছুড়ে তাদেরকে আটক করতে সক্ষম হয়।
তাকে আটকের খবরে এলাকাবাসীর মধ্যে স্বস্তির নি:শ্বাস ফিরে  এসেছে।
কে এই সৈয়দ আলী : বহুলা গ্রামের মৃত আব্দুল রশিদের ছেলে সে। তারা বাবা একজন কৃষক ছিলেন। মজুরী করে পরিবারের ভরণপোষন করতেন। বাড়িতে একটি ছনের ঘর ছাড়া সম্পদ বলতে কিছুই ছিলনা। এক পর্যায়ে সৈয়দ আলী মাদক ব্যবসায় হাতেখড়ি নেয়। এরপর থেকে তাকে আর পিছন ফিরে থাকাতে হয়নি। প্রায় ২০ বছর ধরে সে মাদক ব্যবসার সাথে জড়িত। ছনের ঘর থেকে সে কোটিপতি বনে গেছে। বর্তমানে তার ৩টি আলীশান বাড়ি রয়েছে। বিয়ে করেছে মোট ৭টি। সবশেষ বিয়ে করেছে মাদকের আস্তানা খ্যাত বি-বাড়িয়া জেলার বিজয় নগরে।
এলাকাবাসী জানান, শ্বশুড় বাড়ি বিজয় নগর থেকে মাদক এনে সে হবিগঞ্জসহ সিলেটের বিভিন্ন এলাকায় সরবরাহ করে থাকে। তার নিয়োগকৃত রয়েছে অসংখ্য সরবরাহকারী। নিয়োগকৃতদের মধ্যে নারী ও শিশুরাও রয়েছে। বহুলা এলাকায় কয়েকটি পয়েন্টে রয়েছে তার মাদকের আন্ডারগ্রাউন্ড আস্তানা। এসব আস্তানায় মাদক জমা করে সরবরাহকারীদের মাধ্যমে বিভিন্ন এলাকায় সরবরাহ করে থাকে। এছাড়া বিভিন্ন পয়েন্টে তার নিয়োগ দেয়া সোর্স রয়েছে। পুলিশ বা আইনপ্রয়োগকারী সংস্থার উপস্থিতি বুঝে এসব সোর্স তাকে আগাম সংকেত দিয়ে থাকে। তার বিরুদ্ধে ৩০টিরও বেশী মামলা রয়েছে বলে জানা গেছে। অসংখ্যবার হাজত বাসও করেছে। বার বারই আইনের ফাক দিয়ে বেরিয়ে মাদক ব্যবসায় নেমে পড়ে। একটি মামলায় তার যাবজ্জীবন সাজা হয়। আপিল করে বর্তমানে সে জামিনে আছে। তাকে রিমান্ডে এনে জিজ্ঞাসাবাদ করলে মাদকের আস্তানাসহ অনেক অজানা তথ্য জানা যাবে বলে এলাকাবাসী জানান।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com