রবিবার, ২০ অক্টোবর ২০১৯, ০৬:২৮ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
চুনারুঘাট সীমান্তের মাদক সম্রাট দুলন গ্রেফতার ॥ এলাকায় উল্লাস, মিষ্টি বিতরণ শহরের চাঞ্চাল্যকর মা ও মেয়েকে হত্যার দায়ে তাজুল গ্রেফতার হবিগঞ্জে কনফারেন্সে ড. বোরহান উদ্দিন ॥ ভারত উপমহাদেশে আ’লা হযরত ছিলেন আশির্বাদ স্বরূপ বাহুবলে দুই ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে চালক ও হেলপার নিহত খেলাধূলার উন্নয়নে আন্তরিকতা অব্যাহত থাকবে-এমপি আবু জাহির বাহুবলে ৭ কেজি গাঁজাসহ দুই মাদক ব্যবসায়ী গ্রেপ্তার বাংলাদেশ পুস্তক প্রকাশক ও বিক্রেতা সমিতি হবিগঞ্জ জেলা শাখার বার্ষিক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত ঈদে মিলাদুন্নবী (দঃ) উপলক্ষে বিশেষ পরামর্শ সভা অনুষ্টিত বানিয়াচঙ্গের এক গৃহবধূ সাপের কামড়ে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে বাইপাস সড়কে অবৈধভাবে আবারো জায়গা দখল চলছে
ছোট বহুলায় সম্পত্তি নিয়ে দু’পক্ষের বিরোধের ২০ বছর পর নিষ্পত্তি

ছোট বহুলায় সম্পত্তি নিয়ে দু’পক্ষের বিরোধের ২০ বছর পর নিষ্পত্তি

স্টাফ রিপোর্টার ॥ হবিগঞ্জ সদর উপজেলার ছোট বহুলা গ্রামে দু’পক্ষের সম্পত্তি নিয়ে দীর্ঘ ২০ বছরের বিরোধের ঘটনা নিস্পতি করা হয়েছে। গতকাল শুক্রবার এ বিরোধ নিস্পত্তি করে দেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (হবিগঞ্জ সদর সার্কেল) মোঃ রবিউল ইসলাম। এর মধ্যে আবারও ২টি পরিবারের মধ্যে সৌহাদ্যপূর্ণ সম্পর্ক স্থাপন হলো। পুলিশ সূত্র জানায়, ছোট বহুলা গ্রামের দিদার আলীর ছেলে লোকমান মিয়ার সাথে একই গ্রামের গোলাপ মিয়া গংদের সাথে প্রায় ২০ বছর ধরে বাড়ী সংলগ্ন খাল ও বাড়ীর জমি দখল নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। এছাড়াও আফিয়া খাতুনের কাছ থেকে ২০ বছর পূর্বে ২ শতক জমি ক্রয় করেন অভিযোগকারী লোকমান। কিন্তু আফিয়া বিক্রিকৃত ২শতক জায়গা লোকমানকে রেজিষ্টি করে দেননি। এ নিয়ে বিরোধের জের ধরে লোকমানের বাড়ির উপর দিয়ে আফিয়া খাতুনের বিদ্যুত সংযোগ বন্ধ করে দেন এবং তার জমির উপর দিয়ে আফিয়া খাতুনের পরিবারসহ তার পরিবারের লোকজনদের বাধা প্রদান করেন।
অপরদিকে অভিযোগকারী লোকমানের দাদা কাছ থেকে অবসরপ্রাপ্ত প্রাইমারি শিক্ষক হাজী আব্দুর রহমান প্রায় ২০ বছর পূর্বে ২৮ শতক জমি ক্রয় করেন। জমি রেজিষ্ট্রির পূর্বে লোকমানের দাদা মারা যান। পরবর্তীতে লোকমানের বাবা ও লোকমান অদ্যবর্তী পর্যন্ত জমি হাজী আব্দুর রহমানকে জমিটি রেজিষ্ট্রি করে দেয়নি। উল্লেখ্য, হাজী আব্দুর রহমান লোকমানের বাবা আপন মামা। সর্বপরি অভিযোগকারী লোকমান, আফিয়া খাতুন এবং হাজী আব্দুর রহমান একই পরিবারের লোক। জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধ থাকায় তাদের মধ্যে পরস্পর সম্পর্কের মধ্যে দুরত্ব সৃষ্টি হয়। এছাড়া লোকমানের বাড়ী সংলগ্ন সরকারী খাল দখল করে অপর পক্ষও লোকমানের সাথে বিরোধে জড়িয়ে পড়ে। গতকাল উভয় পক্ষ ও ছোট বহুলা গ্রামের গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গকে নিয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে সমঝোতা বৈঠকে বসেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রবিউল ইসলাম। বৈঠকে দু’পক্ষের দীর্ঘদিনের বিরোধ নিস্পত্তি করা হয়। বৈঠকে লোকমান মিয়ার আফিয়া খাতুনের কাছ থেকে ক্রয়কৃত ২ শতক ভূমি ফিরিয়ে দেন। অপরদিকে হাজী আব্দুর রহমানের ২৮ শতক জমিও রেজিষ্ট্রি মাধ্যমে ফিরে দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। অদ্যবতী হতে এ নিয়ে উভয় পক্ষ কোন বিরোধে জড়াবেন না মর্মে অঙ্গীকার করেন। অফিয়া খাতুন তার বাড়ীতে বিদ্যুৎ সংযোগে আর বাধা রইল না। সরকারি খাল উদ্ধার হলো। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রবিউল ইসলাম বলেন-আমি মনে করি সমাজে ছোটখাটো সমস্যাগুলো যদি সমাধান করা হতো তাহলে বড় বড় সমস্যা সৃষ্টি হতো না এবং সমাজে বিশৃংখলা ও সৃষ্টি হতো না। সমাজের সকলের উচিত ছোটখাটো সমস্যাগুলো চিহ্নিত করে যত দ্রুত সম্ভব সমাধান করা।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com