সোমবার, ০১ Jun ২০২০, ০২:৩১ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
এমপি আবু জাহির এর প্রচেষ্টায় হবিগঞ্জে হতে যাচ্ছে করোনা পরীক্ষার ল্যাব জেলা গোয়েন্দা পুলিশের অভিযানে বিপুল পরিমাণ ইয়াবাসহ ১ মাদক ব্যবসায়ী আটক নবীগঞ্জে মাসিক আইনশৃংঙ্খলা কমিটির সভা অনুষ্ঠিত লাখাইয়ে পরীক্ষায় ফেল করায় কিশোরী আত্মহত্যা করোনায় চুনারুঘাটে সেলুন ব্যবসায়ীরা দিশেহারা নবীগঞ্জে এসএসসি পরীক্ষায় পাশের হার ৭৯.৩১% জিপিএ-৫ পেয়েছে ৭৬ জন ভারতীয় নাগরিকদের হাতে নিহত বাংলাদেশীর লাশ ৬ দিন পর বিজিবির কাছে হস্তান্তর হবিগঞ্জে দুই গ্রামবাসির সংঘর্ষে আহত ৫০ নবীগঞ্জে পুলিশের হস্তক্ষেপে সংঘাত থেকে রক্ষা পেল গ্রামবাসী বানিয়াচঙ্গে কিশোরীকে ধর্ষণের চেষ্টা ॥ লম্পট গ্রেফতার
নবীগঞ্জে গৃহবধুর স্বর্ণের চেইন ছিনতাই ঘটনায় ৫ শিশু আসামী অভিযোগ প্রমানিত হয়নি

নবীগঞ্জে গৃহবধুর স্বর্ণের চেইন ছিনতাই ঘটনায় ৫ শিশু আসামী অভিযোগ প্রমানিত হয়নি

নবীগঞ্জ প্রতিনিধি ॥ নবীগঞ্জে সংখ্যালঘু পািবারের গৃহবধুর কথিত স্বর্ণলঙ্কার ছিনতাইসহ শ্লীলতাহানীর ঘটনায় ৫ শিশুকে আসামী করে থানায় অভিযোগ দেয়ার ১২ ঘন্টার মধ্যে বিষয়ের মীমাংসা হয়েছে। তবে ১১ থেকে ১২ বছরের শিশুদের অহেতুক আসামি করায় সংশ্লিষ্ট অভিভাবকদের মাঝে ক্ষোভের সঞ্চার হয়েছে। হবিগঞ্জের সহকারী পুলিশ সুপার (উত্তর) মোঃ নাজমুল ইসলাম গতকাল সকালে বিষয়টির তদারকি করেছেন।
জানা যায়, গত সোমবার রাতে বাউসা ইউনিয়নের দক্ষিণ গহরপুরের সুকেশ রায় থানায় একটি লিখিত অভিযোগে বলেন, তার স্ত্রী কাবেরী রায় (২৪) ওই দিন সন্ধ্যায় প্রকৃতির ডাকে ঘর থেকে বের হলে একই গ্রামের ৫ যুবক তার স্ত্রীকে ঝাপটে ধরে মুখে কাপড় চেপে শ্লীলতাহানীসহ গৃহবধুর গলার স্বর্ণের চেইন ও কানের দোল ছিনতাই করে নিয়ে যায়। অভিযোগে আসামীদের বয়স ১৮ থেকে ২৪ বছর উল্লেখ করা হয়। আসামী ধরতে রাতেই সংশ্লিষ্ট তদন্তকারী কর্মকর্তা নবীগঞ্জ থানার সাব-ইন্সপেক্টর আবুল কালাম আজাদ একদল পুলিশ নিয়ে অভিযান চালান। কিন্তু কথিত আসামীদের বাড়ি গিয়ে শিশু বয়সের আসামী দেখে তদন্তকারী কর্মকর্তা পড়েন বিপাকে। উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের পরামর্শে শিশুদের অভিভাবকদেরকে বলে আসেন সকালে আসামী (শিশুদের) থানায় নিয়ে আসতে। গতকাল সকালে অভিভাবকরা তাদের সন্তানদের নিয়ে থানায় আসেন। এরই মধ্যে গতকাল সকালে বিষয়টি তদারকি করতে সহকারী পুলিশ সুপার (উত্তর) মোঃ নাজমুল হুদা নবীগঞ্জ থানায় পৌঁছেন। শিশু আসামীদের দেখে থানায় উপস্থিত পুলিশ কর্মকর্তা, সাংবাদিকসহ অনেক লোক অবাক হয়ে পড়েন। শিশুদের বিরুদ্ধে আনা শ্লীলতাহানীসহ গৃহবধুর স্বর্ণের চেইন ছিনতাই ঘটনার যথাযথ প্রমাণ দিতে ব্যর্থহন বাদি। পরে বাদি স্বীকার করেন তার বাড়ির চলিতা গাছের চলিতা পাড়তে এসেছিল শিশুরা। তার স্ত্রী শিশুদের তাড়িয়ে দিলে শিশুরা গৃহবধুকে বকাঝকা দিয়ে চলে যায়। শিশুদের বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ ও ভুল তথ্য দিয়ে পুলিশকে হয়রানির জন্য বাদিকে সতর্ক করে দেয়া হয়। একই শিশুরা সুকেশ রায়ের বাড়িতে বিনাঅনুমতিতে চলিতা পাড়তে যাওয়ার জন্য অভিভাবকরা দুঃখ প্রকাশ করেন এভাবেই সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন পরিষদের সদস্যদের মাধ্যমে ভুল বুঝাবুঝির অবসান হয়। এবং শিশুদেরকে তাদের অভিভাবকদের সাথে ফিরিয়ে দেয়া হয়।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com