সোমবার, ০১ Jun ২০২০, ১১:১৮ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
এমপি আবু জাহির এর প্রচেষ্টায় হবিগঞ্জে হতে যাচ্ছে করোনা পরীক্ষার ল্যাব জেলা গোয়েন্দা পুলিশের অভিযানে বিপুল পরিমাণ ইয়াবাসহ ১ মাদক ব্যবসায়ী আটক নবীগঞ্জে মাসিক আইনশৃংঙ্খলা কমিটির সভা অনুষ্ঠিত লাখাইয়ে পরীক্ষায় ফেল করায় কিশোরী আত্মহত্যা করোনায় চুনারুঘাটে সেলুন ব্যবসায়ীরা দিশেহারা নবীগঞ্জে এসএসসি পরীক্ষায় পাশের হার ৭৯.৩১% জিপিএ-৫ পেয়েছে ৭৬ জন ভারতীয় নাগরিকদের হাতে নিহত বাংলাদেশীর লাশ ৬ দিন পর বিজিবির কাছে হস্তান্তর হবিগঞ্জে দুই গ্রামবাসির সংঘর্ষে আহত ৫০ নবীগঞ্জে পুলিশের হস্তক্ষেপে সংঘাত থেকে রক্ষা পেল গ্রামবাসী বানিয়াচঙ্গে কিশোরীকে ধর্ষণের চেষ্টা ॥ লম্পট গ্রেফতার
নবীগঞ্জ সড়কে দফায় দফায় বাস-সিএনজি শ্রমিকদের সংঘর্ষ ॥ সমঝোতা বৈঠক

নবীগঞ্জ সড়কে দফায় দফায় বাস-সিএনজি শ্রমিকদের সংঘর্ষ ॥ সমঝোতা বৈঠক

স্টাফ রিপোর্টার ॥ গতকালও বাস ও সিএনজি শ্রমিকদের মধ্যে দফায় দফায় হামলা, ভাংচুর ও Untitled-1.jpg2সংঘর্ষ হয়েছে। এতে বেশ কয়েকজন শ্রমিক আহত হয়েছে। এদিকে গতকালও হবিগঞ্জ-নবীগঞ্জ সড়কে কোন বাস এবং সিএনজি চলাচল করেনি। বিকেলে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে উভয় পরিবহণের শ্রমিক ও মালিকদের সমঝোতা বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৈঠকে বিরোধ মিমাংসার জন্য আগামী ১৯ জুন নির্ধারণ করা হয়েছে। এছাড়া বাস ও সিএনজি চলাচলে কোন ধরণের বাধা প্রদান না করতে সিদ্ধান্ত হয়েছে। গত সোমবার দুপুরে দিকে ইমামবাড়ি থেকে একটি সিএনজি (হবিগঞ্জ-থ-১১-৩০০) যাত্রী নিয়ে হবিগঞ্জে আসছিল। সিএনজিটি পুকড়া নামক স্থানে পৌছুলে বিপরীতমুখী একটি বাস (সিলেট-জ-১১-০২৪৬) ধাক্কা দেয়। এতে সিএনজি চালক রিপন আহত হয় এবং সিএনজির ক্ষতি হয়।
Untitled-1.jpg2 copyএ খবর ইমামবাড়ি এলাকায় পৌছুলে সেখানে সিএনজি শ্রমিকরা বাসটি আটক করে। এ সময় বাস শ্রমিকদের সাথে সিএনজি শ্রমিকদের কথা কাটাকাটি হয়। ঘটনাস্থলে বাজারের লোকজন জড়িত হয়ে বিষয়টি মিমাংসার চেষ্টা করেন। এ সময় নবীগঞ্জ থেকে আরেকটি বাস ঘটনাস্থলে পৌছে সড়কে আড়াআড়ি করে সড়ক বন্ধ করে দিয়ে চালক গাড়ি থেকে নেমে চলে যায়। এক পর্যায়ে উভয় পক্ষের শ্রমিকদের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া হয়। খবর পেয়ে নবীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ লুৎফর রহমান, সহকারী পুলিশ সুপার নাজমুল ইসলাম ও নবীগঞ্জ থানার ওসি জাহাঙ্গীর আলম চৌধুরী ঘটনাস্থলে গিয়ে উভয় পক্ষের শ্রমিকদের সাথে আলোচনা করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করেন। এর পর থেকে ওই সড়কে বাস ও সিএনজি চলাচল বন্ধ থাকে।
এদিকে এর জের ধরে গতকাল মঙ্গলবার দফায় দফায় হামলা ও ভাংচুরের ঘটনা ঘটে। এ সময় কয়েকটি সিএনজি ভাংচুর ও ১টি সিএনজি নদীতে ফেলে দেয়া হয়। হামলায় সিএনজি ম্যানেজারসহ কয়েকজন শ্রমিক আহত হয়। খবর পৌছুলে সিএনজি ষ্ট্যান্ডের শ্রমিকরা ছুটে আসলে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। দুপুর দেড়টার দিকে নতুন বাজারে হামলা চালিয়ে ২টি সিএনজি ভাংচুর করা হলে উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বাধে। এতে ২ বাস শ্রমিকসহ কয়েকজন আহত হয়। এছাড়া মান্দারকান্দি ও শচীন্দ্র কলেজ এলাকায়ও সিএনজি ভাংচুর করা হয়।
এদিকে বিকেল ৪টার দিকে জেলা প্রশাসক জয়নাল আবেদীন উভয় পক্ষকে নিয়ে সমঝোতা বৈঠকে বসেন। এতে উভয় পক্ষের মালিক ও শ্রমিক নেতারা এবং প্রশাসনের লোকজন উপস্থিত ছিলেন। আগামী ১৯ জুন পুনরায় বৈঠকের সিদ্ধান্ত হয়েছে। এছাড়া শান্তিপূর্ণ অবস্থায় থেকে উভয় পক্ষের গাড়ি চলাচল করারও সিদ্ধান্ত হয়।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com